ফেসবুক এক নেশার জায়গা - মতামত - দৈনিকশিক্ষা

ফেসবুক এক নেশার জায়গা

দৈনিকশিক্ষা ডেস্ক |

বর্তমানে ফেসবুক ইউজার বাড়ছে। অসৎ লোকেরা তার রিয়েল আইডির বাইরেও একাধিক আইডি ব্যবহার করে থাকেন। এটা আগে অনেকটা ধোঁয়াশা থাকলেও এখন অনেকটা পরিষ্কার। মোবাইল প্রথম-প্রথম ব্যবহারের কিছু দিন পর দেশে দেখা গিয়েছিল মিস কল দেওয়ার প্রবণতা! আর এটা করা হতো অধিকাংশ মেয়েদের সঙ্গে। কোথাও নম্বর পেলেই কল দেওয়া হতো। আর তা হতো বেশিরভাগ মিস কল। দিনে রাতে যখন-তখন চলত। আবার সরাসরি কল দিয়েও নারীদের হেনস্থা করা হতো! ঠিক তেমনি ফেসবুক আসার পর নতুন উপদ্রব শুরু হয়। শনিবার (১৮ জানুয়ারি) ইত্তেফাক পত্রিকায় প্রকাশিত এক নিবন্ধে এ তথ্য জানা যায়।

নিবন্ধে আরও জানা যায়, অধিকাংশ নারী যেমন ফেসবুক ইউজার আছেন, আবার অনেকে আছেন এই সোশ্যাল মিডিয়া থেকে দূরে। এই মাধ্যমটি একটু ফ্যাশনেবল ও যুগের সঙ্গে চলা নারীরাই ব্যবহার করছেন বেশি। সাম্প্রতিক সময়ে বেশ কিছু ঘটনা দেশে আলোড়ন তুলেছে। ফেসবুকে পরিচয় অতঃপর দেখা করতে গিয়ে ধর্ষণের শিকার! আবার ফেসবুকে পরকীয়ার ঘটনা, নাম পরিচয়, ছবি ভুয়া ব্যবহার করে প্রতারণা করছে। অল্পবয়সী ছেলে সেজে মধ্যবয়স্ক লোকে উঠতি বয়সী মেয়েদের ধোঁকা দিচ্ছে। ফেইক নাম, পরিচয়, ঠিকানা ও পশুপাখি, ফুল, বিল্ডিং, জামাকাপড়, আল্লার পবিত্র কালাম ইত্যাদি ব্যবহার করেও অনেকে অন্যদের অসম্ভব রকম বিরক্ত করছে। টাকাপয়সা চেয়েও ব্ল্যাকমেইল করা হচ্ছে। অনেকের আইডি হ্যাকের জন্য বিশেষ হ্যাকার গোষ্ঠীও তৈরি হয়েছে।

ফেসবুক অথরিটি এই ফেইক আইডির বিরুদ্ধে নানা অ্যাকশন নেওয়ার পরও আগাছা অনেক রয়ে গেছে। এজন্য নারী ফেবু ফ্রেন্ডসদের বলছি, মিউচুয়াল দেখে বন্ধুত্ব গ্রহণ না করে নিজ বিবেচনায় ভালো দেখে, প্রোফাইল পড়ে ও পরিচিত ব্যক্তিকে আপনার তালিকায় যুক্ত করুন। কোন নারীর পোস্টে লাইক, কমেন্ট ও ফলোয়ার বেশি—এ নিয়ে প্রতিযোগিতায় নামতে গিয়ে নিজের বিপদ ডেকে আনবেন না। একজন শিক্ষিত নারীকে আরো ব্যক্তিত্ববান হওয়া আবশ্যক।

বিজ্ঞানের সব আবিষ্কারের কুফল-সুফল দুটোই রয়েছে। ইন্টারনেটের সব শাখায় বিচরণ করতে হলে এসব বিষয় মাথায় রাখতে হয়। ঝুঁকি নিয়ে ব্যবহার করা আদৌ উচিত নয়। আমার, আপনার মিউচুয়াল হলেই যে সে আপনার-আমার প্রতি উদার এবং ভালো আচরণ করবে—তা আপনি কি করে ভাবলেন?

ফেসবুক একটা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম হলেও তা এখন যে বাণিজ্যিকভাবে ব্যবহৃত হচ্ছে—তা সকলে এখন অবগত। যারা এটির সফল ব্যবহার করছেন, তারাই আছেন ভালোতে, আর যারা অপব্যবহারে মত্ত তাদের নমুনা শুরুতে যা বললাম এর চেয়েও ভয়ঙ্কর!

ফেসবুক এক নেশার জমি! ছেলেবুড়ো সকলে এতে আকণ্ঠ নিমজ্জিত। অনেক সংসার ধ্বংস হয়েছে, হচ্ছে! অনেকের বাড়ছে চোখের সমস্যা! বিশেষ করে শিশু কিশোরদের। ক্লাস ফোর-ফাইভের ছেলেমেয়ের এখন ফেসবুক আইডি রয়েছে। মায়েরা নিমজ্জিত ফেবু চ্যাট নিয়ে। আসুন এজন্য সকলে ফেসবুককে সঠিকভাবে ব্যবহার করি, অহেতুক অপব্যবহারে নিজের এবং অন্যের জীবনকে অসহনীয় করে যেন না তুলি।

লেখক: সাহিদা সাম্য লীনা, ফেনী।

করোনায় গত ২৪ ঘণ্টায় ২১ জনের মৃত্যু, নতুন শনাক্ত ১ হাজার ১৬৬ - dainik shiksha করোনায় গত ২৪ ঘণ্টায় ২১ জনের মৃত্যু, নতুন শনাক্ত ১ হাজার ১৬৬ এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষার ফল প্রকাশ ৩১ মে - dainik shiksha এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষার ফল প্রকাশ ৩১ মে দাখিলের ফল পেতে প্রি-রেজিস্ট্রেশন যেভাবে - dainik shiksha দাখিলের ফল পেতে প্রি-রেজিস্ট্রেশন যেভাবে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া - dainik shiksha জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া please click here to view dainikshiksha website