বাংলা একাডেমির প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী আজ - বিবিধ - Dainikshiksha

বাংলা একাডেমির প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী আজ

নিজস্ব প্রতিবেদক |

পাকিস্তানের স্বাধীনতার দিন থেকে বর্ধমান হাউস ছিল পূর্ব পাকিস্তানের মুখ্যমন্ত্রীর বাসভবন। যেখান থেকে ১৯৫২ খ্রিস্টাব্দের ২১ ফেব্রুয়ারি ছাত্রদের ওপর গুলি চালানোর নির্দেশ আসে। ১৯৫৪ খ্রিস্টাব্দের নির্বাচনে যুক্তফ্রন্টের ২১ দফা দাবির মধ্যে অন্যতম ছিল, বর্ধমান হাউস হবে বাংলা ভাষার গবেষণাগার। ১৯৫৫ খ্রিস্টাব্দের ৩ ডিসেম্বর পূর্ণ হয় এ দাবি। বর্ধমান হাউসে যাত্রা শুরু করে বাংলা ভাষা ও সাহিত্যের গবেষণাধর্মী প্রতিষ্ঠান বাংলা একাডেমি। পাঁচ দিন পর ৮ ডিসেম্বর আনুষ্ঠানিক কার্যক্রম শুরু হয়। 

সোমবার (৩ ডিসেম্বর) বাংলা একাডেমির ৬৩তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী। ছয় দশকেরও অধিককাল ধরে এ প্রতিষ্ঠানটি দেশ ও দেশের বাইরে বাংলা ভাষার চর্চা ও গবেষণায় কাজ করে চলেছে। আগামী  দিনগুলো প্রতিষ্ঠানটি বাংলা সাহিত্যকে অনুবাদ করে দেশের বাইরে ছড়িয়ে দেওয়ার লক্ষ্য নির্ধারণ করেছে। সেই সঙ্গে বাংলার পুঁথি সাহিত্যকে ডিজিটালাইজেশনের মাধ্যমে সংরক্ষরণের উদ্যোগও নিতে যাচ্ছে প্রতিষ্ঠানটি।

প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী সামনে রেখে বাংলা একাডেমির পরিচালক ড. জালাল আহমেদ বলেন, বাংলা একাডেমি আমাদের গর্বের প্রতিষ্ঠান। জাতীয় পর্যায় পেরিয়ে বাংলা একাডেমির এগিয়ে চলা আন্তর্জাতিক পর্যায়েও প্রশংসিত হচ্ছে। বাংলা একাডেমির গবেষণা আজ বিশ্বের কাছে সমাদৃত। শুরু থেকে বাংলা একাডেমি বাংলা সাহিত্যের পাশাপাশি বিদেশি সাহিত্যের অনুবাদ নিয়েও কাজ করেছে। তবে এখন বাংলা সাহিত্যের ধ্রুপদী সাহিত্যগুলো ইংরেজিসহ বিদেশি ভাষায় অনুবাদের উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। যার ফলে বাংলা সাহিত্যকে বিশ্বদরবারে তুলে ধরা সম্ভব হবে। এর পাশাপাশি প্রধানমন্ত্রীর আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিষয়ক উপদেষ্টা ড. গওহর রিজভীর তত্ত্বাবধানে ও যুক্তরাষ্ট্রের একটি বিশ্ববিদ্যালয়ের সহযোগিতায় বাংলা পুঁথিকে ডিজিটালাইজেশনেরও উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। দ্রুতই এর কাজ শুরু হবে।

ইতিহাস থেকে জানা যায়, একাডেমি থেকে প্রকাশিত প্রথম গ্রন্থ হলো আহমদ শরীফ সম্পাদিত দৌলত উজির বাহরাম খানের 'লাইলি-মজনু'। সেই থেকে আজ পর্যন্ত প্রকাশিত হয়েছে প্রায় ছয় হাজার বই। যার মধ্যে উল্লেখযোগ্য- ড. মুহম্মদ শহীদুল্লাহর 'আঞ্চলিক ভাষা অভিধান', 'বিবর্তনমূলক অভিধান', 'লোকজ সাংস্কৃতিক ইতিহাস', 'রবীন্দ্রজীবনী', 'বাংলা ও বাঙালির ইতিহাস', 'বাংলা সাহিত্যের ইতিহাস', 'বিজ্ঞানকোষ', 'প্লেটোর আইন-কানুন' ইত্যাদি। এ ছাড়া 'বাংলা একাডেমি পত্রিকা', 'উত্তরাধিকার', 'বাংলা একাডেমি বার্তা', 'বাংলা একাডেমি বিজ্ঞান পত্রিকা', 'বাংলা একাডেমি জার্নাল' ও 'ধানশালিকের দেশ' নামে ছয়টি নিয়মিত প্রকাশনা রয়েছে।

চারটি বিভাগের মাধ্যমে বাংলা একাডেমি বিভিন্ন কার্যক্রম সম্পাদন করছে। সেগুলো হলো- গবেষণা, সংকলন ও ফোকলোর বিভাগ; ভাষা, সাহিত্য, সংস্কৃতি ও পত্রিকা বিভাগ; পাঠ্যপুস্তক বিভাগ এবং প্রাতিষ্ঠানিক পরিকল্পনা ও প্রশিক্ষণ বিভাগ। একাডেমি প্রতি বছর ফেব্রুয়ারি মাসজুড়ে 'অমর একুশে গ্রন্থমেলা'র আয়োজন করে। সেই সঙ্গে প্রদান করে বাংলা একাডেমি সাহিত্য পুরস্কার, যা দেশের অন্যতম সম্মানের এক পুরস্কার হিসেবে বিবেচিত। এ ছাড়া রবীন্দ্র পুরস্কার, মযহারুল ইসলাম কবিতা পুরস্কার, মুনীর চৌধুরী স্মৃতি পুরস্কার, চিত্তরঞ্জন সাহা স্মৃতি পুরস্কার ও প্রবাসী সাহিত্য পুরস্কার প্রদান করে থাকে। এসবের পাশাপাশি বর্ধমান হাউসে ভাষা আন্দোলন জাদুঘর, জাতীয় সাহিত্য ও লেখক জাদুঘর এবং লোকঐতিহ্য জাদুঘর পরিচালনা করে প্রতিষ্ঠানটি। এ ছাড়া ভাস্কর নভেরা প্রদর্শনালয় নামে একটি গ্যালারিও রয়েছে একাডেমির অধীনে।

কর্মসূচি :প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদযাপন উপলক্ষে আজ বিকেল ৪টায় একাডেমির আবদুল করিম সাহিত্যবিশারদ মিলনায়তনে প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী বক্তৃতা, স্মৃতিচারণ ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে। 'বৈশ্বিক পটভূমিকায় বাঙালি জাতীয়তাবাদ ও জাতিরাষ্ট্র' শীর্ষক প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী বক্তৃতা প্রদান করবেন প্রাবন্ধিক মফিদুল হক। স্মৃতিচারণে অংশ নেবেন একাডেমির সাবেক মহাপরিচালক, সচিব এবং পরিচালকরা। সাংস্কৃতিক পরিবেশনায় অংশ নেবেন বাংলা একাডেমির কর্মকর্তা ও কর্মচারীরা। 

ম্যানেজিং কমিটির শিক্ষাগত যোগ্যতা নিয়ে সংসদীয় কমিটিতে বিতর্ক - dainik shiksha ম্যানেজিং কমিটির শিক্ষাগত যোগ্যতা নিয়ে সংসদীয় কমিটিতে বিতর্ক প্রাথমিকে শিক্ষক নিয়োগ: ৫ দিন আগে অ্যাডমিট না পেলে যা করবেন - dainik shiksha প্রাথমিকে শিক্ষক নিয়োগ: ৫ দিন আগে অ্যাডমিট না পেলে যা করবেন নতুন সূচিতে কোন জেলায় কবে প্রাথমিকের শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষা - dainik shiksha নতুন সূচিতে কোন জেলায় কবে প্রাথমিকের শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষা সেহরি ও ইফতারের সময়সূচি - dainik shiksha সেহরি ও ইফতারের সময়সূচি ২০১৯ খ্রিষ্টাব্দের স্কুলের ছুটির তালিকা - dainik shiksha ২০১৯ খ্রিষ্টাব্দের স্কুলের ছুটির তালিকা জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া - dainik shiksha জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া please click here to view dainikshiksha website