বাগাতিপাড়ায় বিদ্যালয়ে জ্ঞান হারাল ১০ শিক্ষার্থী - স্কুল - Dainikshiksha

বাগাতিপাড়ায় বিদ্যালয়ে জ্ঞান হারাল ১০ শিক্ষার্থী

নিজস্ব প্রতিবেদক |

নাটোরের বাগাতিপাড়া উপজেলার রহিমানপুর উচ্চবিদ্যালয়ে সমাবেশের সময় গতকাল মঙ্গলবার ১০ শিক্ষার্থী জ্ঞান হারিয়ে অসুস্থ হয়ে পড়ার ঘটনা ঘটেছে। এসব শিক্ষার্থীকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে।

বিদ্যালয় সূত্রে জানা যায়, গতকাল জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে ওই বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা সকাল আটটায় বিদ্যালয়ে আসে। সাড়ে আটটায় সমাবেশ শুরু হয়। পরে শোক দিবসের আলোচনা হয়। এ সময় হঠাৎ করে এক ছাত্রী জ্ঞান হারিয়ে অসুস্থ হয়ে মাটিতে পড়ে যায়। পরে ওই ছাত্রীকে কমনরুমে নিয়ে যাওয়া হলে আরও নয়জন ছাত্রী অসুস্থ হয়ে পড়ে। পরে তাদের বাগাতিপাড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। কয়েক ঘণ্টা চিকিৎসা দেওয়ার পর অবস্থার উন্নতি হলে তাদের বাড়িতে পাঠিয়ে দেওয়া হয়।

ওই বিদ্যালয়ের শিক্ষর্থীদের জ্ঞান হারানোর ঘটনা এর আগেও ঘটেছে। রহিমানপুর বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সদস্য ও ২ নম্বর জামনগর ইউনিয়নের ওয়ার্ড সদস্য জালাল উদ্দিন সরকার বলেন, গত বছরও একই ঘটনা ঘটেছিল। ছাত্রীরা তাদের কমনরুমের ভেতরে একপ্রকার গ্যাস-জাতীয় গন্ধ পেয়ে মাথা ঘুরে পড়ে যায় আর মুখ দিয়ে ফেনা বের হয়। পরে হাসপাতালে নিয়ে তাদের চিকিৎসা দিলে তারা ভালো হয়। খোঁজ নিয়ে ওই কক্ষে কিছু না পেয়ে কমিটি ও অভিভাবকদের সিদ্ধান্ত মোতাবেক বিদ্যালয়ে হাফেজ দিয়ে কোরআন খতম ও মিলাদ মাহফিল করা হয়। এ বছর আবারও একই ঘটনা ঘটেছে। বিষয়টি নিয়ে তাঁরা খুবই উদ্বিগ্ন।

বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক রওশন আলম বলেন, হঠাৎ এক ছাত্রী মাথা ঘুরে পড়ে যায়। পরে কমনরুমে নিয়ে যাওয়া হলে আরও কয়েকজন ছাত্রী অসুস্থ হয়ে পড়ে। পরে তাদের উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়।

উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের কর্তব্যরত চিকিৎসা কর্মকর্তা আব্দুল্লাহ মুহম্মদ বলেন, এটি গণমনস্তাত্ত্বিক রোগ। শারীরিক দুর্বলতা থেকেই এ ঘটনা ঘটে।

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের মনোবিজ্ঞান বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক তানজির আহমেদ বলেন, এটি মনস্তাত্ত্বিক সমস্যা। একজন মনোরোগ বিশেষজ্ঞকে দিয়ে ওই বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের সচেতনতায় ওয়ার্কশপ করা প্রয়োজন।

দুর্নীতিবাজরা সাবধান হয়ে যান: গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী - dainik shiksha দুর্নীতিবাজরা সাবধান হয়ে যান: গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী অর্ধাক্ষর শিক্ষকরা সিকিঅক্ষর শিক্ষার্থী তৈরি করছেন: যতীন সরকার - dainik shiksha অর্ধাক্ষর শিক্ষকরা সিকিঅক্ষর শিক্ষার্থী তৈরি করছেন: যতীন সরকার অধ্যক্ষ-উপাধ্যক্ষ নিয়োগ নিয়ে যা বলেছেন শিক্ষামন্ত্রী - dainik shiksha অধ্যক্ষ-উপাধ্যক্ষ নিয়োগ নিয়ে যা বলেছেন শিক্ষামন্ত্রী ১৮১ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের এমপিও বন্ধের প্রক্রিয়া শুরু - dainik shiksha ১৮১ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের এমপিও বন্ধের প্রক্রিয়া শুরু স্টুডেন্টস কাউন্সিল নির্বাচন ২০ ফেব্রুয়ারি - dainik shiksha স্টুডেন্টস কাউন্সিল নির্বাচন ২০ ফেব্রুয়ারি প্রাথমিকে সহকারী শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষা ১৫ মার্চ - dainik shiksha প্রাথমিকে সহকারী শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষা ১৫ মার্চ ২০১৯ খ্র্রিস্টাব্দের স্কুলের ছুটির তালিকা - dainik shiksha ২০১৯ খ্র্রিস্টাব্দের স্কুলের ছুটির তালিকা জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া - dainik shiksha জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া please click here to view dainikshiksha website