বাসায় গিয়ে পড়াতে রাজি না হওয়ায় শিক্ষিকাকে জুতাপেটা! - বিবিধ - Dainikshiksha

বাসায় গিয়ে পড়াতে রাজি না হওয়ায় শিক্ষিকাকে জুতাপেটা!

নিজস্ব প্রতিবেদক |

নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লায় বাসায় গিয়ে পড়াতে রাজি না হওয়ায় শিক্ষিকাকে জুতাপেটা ও মারধরের অভিযোগে জেলা জাতীয় পার্টির সদস্য সচিব আবদুল মজিদ খন্দকারকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। তবে  এখনও তার স্ত্রীকে গেপ্তার করতে পারেনি পুলিশ।

সোমবার (১২ ফেব্রুয়ারি) সন্ধ্যায় ফতুল্লার হাজীগঞ্জের বাড়ি থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়।

শিক্ষিকা শাহীনূর পারভীন জানান, স্থানীয় প্রভাবশালী জাতীয় পার্টি নেতা ও আইনজীবী আবদুল মজিদ খন্দকার রোববার (১১ ফেব্রুয়ারি) রাত ১০টার দিকে স্ত্রীকে সঙ্গে নিয়ে তার বাসায় আসেন। এসময় তার তাদের নাতনীকে বাসায় গিয়ে পড়ানোর প্রস্তাব দেন।

এর আগেও কয়েকবার তার তাদের নাতনীকে পড়ানোর প্রস্তাব দিয়ে ছিলেন। কিন্তু দীর্ঘ ছয় মাস যাবত কিডনিজনিত রোগে অসুস্থ থাকায় তাদের ফিরিয়ে দেওয়া হয়। তাদের ফিরিয়ে দেওয়ার অপরাধে ওই আইনজীবী ও তার স্ত্রী প্রথমে আমাকে মৌখিকভাবে হুমকি দেন। এক পর্যায়ে ক্ষিপ্ত হয়ে তারা ছেলে-মেয়েদের সামনেই আমাকে মারধর করেন।

 

জানা গেছে, রাতেই তাকে শহরের খানপুরে নারায়ণগঞ্জ ৩শ’ শয্যা বিশিষ্ট হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে থেকে সোমবার সকালে তাকে সদর উপজেলার হাজীগঞ্জের ভাড়া বাড়িতে নেওয়া হয়। দুপুরে ওই শিক্ষিকার সঙ্গে দেখা করে কথা বলেন নারায়ণগঞ্জ জেলা পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (ক সার্কেল) শরফুদ্দিন।

শাহীনূরের মা রাবেয়া ইসলাম জানান, তার মেয়ে শাহীনূর পারভীন শানু দীর্ঘ ছয় মাস যাবত কিডনিজনিত রোগে ভুগছেন। এ কারণে প্রাভভেট পড়ানো ছেড়ে দিয়েছেন। কিন্তু অন্যায়ভাবে একজন আইনজীবী ও তার স্ত্রী বাড়িতে ঢুকে ছেলে-মেয়ের সামনেই মেয়েকে মারধর ও জুতাপেটা করেছে। একজন আইনজীবী হয়ে তিনি এ বেআইনি কাজ কিভাবে করেছেন?

বাড়ির মালিক ও জেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের ডেপুটি কমান্ডার অ্যাডভোকেট নূরুল হুদা ক্ষোভপ্রকাশ করে বলেন, তিনি একজন আইনজীবী তেমনি আমিও একজন আইনজীবী। অনুমতি ছাড়া বাড়িতে ঢুকে আমার ভাড়াটের গায়ে হাত তোলা ও জুতাপেটা করা দণ্ডনীয় সামাজিক অপরাধ। তার উচিত ছিলো আগে আমার সঙ্গে কথা বলা। কিন্তু তিনি সেটা না করে চরম অপরাধ করেছেন।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে জাপা নেতা

অ্যাডভোকেট আবদুল মজিদ খন্দকার বলেন, সস্ত্রী আমি নাতনীকে পড়ানোর জন্য ওই শিক্ষিকার বাসায় প্রস্তাব নিয়ে যাই। তিনি পড়াবেন না ভালো কথা। আমাদের মুখের ওপর না করে দিলো। আমাদের অপমান করলো। তাই অপমানের বদলে তাকেও অপমান করা হয়েছে। এসময় শিক্ষিকাকে মারধরের অভিযোগ অস্বীকার করে তাকে জুতাপেটা করার হুমকি দেওয়ার কথা স্বীকার করেন তিনি।

হাসপাতালের জরুরি বিভাগের কর্তব্যরত চিকিৎসক ডা. তাহমিনা নাজনীন জানান, শাহীনূরের শরীরের বিভিন্ন স্থানে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। হাসপাতালে আনার পর তাকে প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে।

ফতুল্লা মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কামাল উদ্দিন জানান, সোমবার দুপুরে শাহীনূর পারভীনের বাবা সাইফুল ইসলাম বাদী হয়ে আবদুল মজিদ খন্দকার ও তার স্ত্রী রোকেয়া খন্দকারকে আসামি করে মামলা করেছে। সন্ধ্যায় মজিদ খন্দকারকে হাজীগঞ্জের বাড়ি থেকে গ্রেফতার করা হয়েছে। অপর আসামিকে গ্রেফতারে অভিযান চলছে।

ঘটনার শিকার প্যাসিফিক ইন্টারন্যাশনাল স্কুলের শিক্ষিকা শাহীনূর পারভীন শানু এক যুগেরও বেশি সময় ধরে ওই স্কুলে শিক্ষকতা করছেন। স্থানীয় আইনজীবী ও জেলা মুক্তিযোদ্ধা ডেপুটি কমান্ডার মো. নুরুল হুদার বাড়িতে পরিবার নিয়ে ভাড়া থাকেন।

প্রাথমিকের শিক্ষার্থীদের প্রতিদিন একটি শব্দ শেখানোর নির্দেশ - dainik shiksha প্রাথমিকের শিক্ষার্থীদের প্রতিদিন একটি শব্দ শেখানোর নির্দেশ মাস্টার্স ভর্তির আবেদন শুরু ২১ অক্টোবর - dainik shiksha মাস্টার্স ভর্তির আবেদন শুরু ২১ অক্টোবর সহকারী অধ্যাপক পদে পদোন্নতির খসড়া তালিকা প্রকাশ - dainik shiksha সহকারী অধ্যাপক পদে পদোন্নতির খসড়া তালিকা প্রকাশ বিজয়ফুল প্রতিযোগিতার তথ্য পাঠাতে হবে অধিদপ্তরে - dainik shiksha বিজয়ফুল প্রতিযোগিতার তথ্য পাঠাতে হবে অধিদপ্তরে স্কুলে ভর্তি সংক্রান্ত সভা ২৪ অক্টোবর - dainik shiksha স্কুলে ভর্তি সংক্রান্ত সভা ২৪ অক্টোবর মহাপরিচালকের চিকিৎসায় মানবিক সাহায্যের আবেদন - dainik shiksha মহাপরিচালকের চিকিৎসায় মানবিক সাহায্যের আবেদন দৈনিক শিক্ষায় বিজ্ঞাপন পাঠান ইমেইলে - dainik shiksha দৈনিক শিক্ষায় বিজ্ঞাপন পাঠান ইমেইলে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া - dainik shiksha জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া please click here to view dainikshiksha website