বিজ্ঞপ্তি ছাড়াই শেকৃবিতে ১৯ শিক্ষক নিয়োগ - বিশ্ববিদ্যালয় - Dainikshiksha

বিজ্ঞপ্তি ছাড়াই শেকৃবিতে ১৯ শিক্ষক নিয়োগ

শেকৃবি প্রতিনিধি |

শেরেবাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ে (শেকৃবি) নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি ও বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের (ইউজিসি) অনুমোদন ছাড়াই ১৯ জন শিক্ষক নিয়োগ দেয়ার অভিযোগ উঠেছে। গত সোমবার তারা তাদের কর্মক্ষেত্রে যোগ দিয়েছেন বলে জানা গেছে। তবে উপাচার্য কামাল উদ্দিন দাবি করেছেন, সিন্ডিকেটের অনুমোদন সাপেক্ষেই তিনি তাদের নিয়োগ দিয়েছেন।

এর আগে ২০১৭ খ্রিষ্টাব্দের ২৪ ডিসেম্বর বিশ্ববিদ্যালয়ের চারটি অনুষদে সহযোগী অধ্যাপক, সহকারী অধ্যাপক ও প্রভাষক পদে ৭৫ জন শিক্ষক নিয়োগের বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয়। 

বিভিন্ন বিভাগের মৌখিক পরীক্ষার পর গত বছরের ২৭ ডিসেম্বর ১০১ জনকে শিক্ষক হিসেবে নিয়োগের সুপারিশ করা হয়, যা বিজ্ঞাপিত চাহিদার চেয়েও প্রায় ৩৫ শতাংশ বেশি ছিল। এ সময় শিক্ষক নিয়োগের পর ইউজিসির আইনে না থাকলেও ২১ জনকে অপেক্ষমাণ রাখা হয়। যা 'আইনের পরিপন্থি' বলে সাংবাদিকদের জানিয়েছিলেন ইউজিসির তৎকালীন চেয়ারম্যান অধ্যাপক আবদুল মান্নান। নিয়মবহির্ভূতভাবে তৈরি করা  সেই অপেক্ষমাণ তালিকা থেকে এই ১৯ জনকে নিয়োগ দেয়া হয়েছে বলে জানা গেছে।

এ প্রসঙ্গে গতকাল মঙ্গলবার ইউজিসির সদস্য ড. শাহনেওয়াজ আলী সাংবাদিকদের জানান, মঞ্জুরি কমিশন গত জুন মাসে ২০১৯-২০ অর্থবছরের জন্য ১৯টি নতুন পদের অনুমতি দিয়েছে। তবে এ জন্য অবশ্যই নিয়ম অনুযায়ী বিজ্ঞপ্তি দিয়ে নতুন নিয়োগ দিতে হবে। যদি বিজ্ঞপ্তি দেয়া না হয়, তা হলে নিয়োগ প্রক্রিয়া অস্বচ্ছ বলে গণ্য হবে। ইউজিসির পক্ষ থেকে এ ধরনের নিয়মবহির্ভূত নিয়োগের ক্ষেত্রে কোনো ব্যবস্থা নেয়া হবে কি না, এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, কেউ যদি এ বিষয়ে অভিযোগ করেন, কমিশন নিয়ম অনুযায়ী ব্যবস্থা নেবে।

এ ব্যাপারে ইউজিসির চেয়ারম্যান হিসেবে দায়িত্ব পালনের সময় অধ্যাপক আবদুল মান্নান সাংবাদিকদের জানিয়েছিলেন, ইউজিসির আইনে কোনো কন্ডিশনাল (শর্তসাপেক্ষে) নিয়োগ দেয়ার বিধান নেই। যাদের অপেক্ষমাণ তালিকায় রাখা হয়েছে, তাদের নিয়োগ দিতে হলে আগেই অনুমতি নিতে হবে। কিন্তু ইউজিসির আইনে না থাকায় তাদের এ ক্ষেত্রে কোনো রকম অনুমতি দেয়া যাবে না।

তবে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. কামাল উদ্দিন আহাম্মদ দাবি করেছেন, নিয়মের বাইরে গিয়ে তিনি কিছুই করেননি। নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি ছাড়া কীভাবে নিয়োগ দিলেন- এমন প্রশ্ন এড়িয়ে গিয়ে তিনি বলেন, সিন্ডিকেটের অনুমোদন নিয়েই ১৯ জনকে নিয়োগ দিয়েছি। এতে নিয়মের কোনো ব্যত্যয় ঘটেনি।

এসএসসির ফরম পূরণের সময় বাড়ল - dainik shiksha এসএসসির ফরম পূরণের সময় বাড়ল নতুন গ্রেডে প্রাথমিক শিক্ষকদের বেতন কমবে না, আশ্বাস অর্থ সচিবের - dainik shiksha নতুন গ্রেডে প্রাথমিক শিক্ষকদের বেতন কমবে না, আশ্বাস অর্থ সচিবের স্বামী-স্ত্রী-শ্যালিকা-কন্যা চালিত শিক্ষার্থীবিহীন এমপিওভুক্ত একটি বিদ্যালয়ের গল্প - dainik shiksha স্বামী-স্ত্রী-শ্যালিকা-কন্যা চালিত শিক্ষার্থীবিহীন এমপিওভুক্ত একটি বিদ্যালয়ের গল্প মাদরাসা-কারিগরির এমপিও নীতিমালা সংশোধনে ১২ সদস্যের কমিটি - dainik shiksha মাদরাসা-কারিগরির এমপিও নীতিমালা সংশোধনে ১২ সদস্যের কমিটি এমপিওভুক্ত মাদরাসা-কারিগরি প্রতিষ্ঠানের তথ্য যাচাইয়ে ১০ সদস্যের কমিটি - dainik shiksha এমপিওভুক্ত মাদরাসা-কারিগরি প্রতিষ্ঠানের তথ্য যাচাইয়ে ১০ সদস্যের কমিটি ২৬ প্রতিষ্ঠান এমপিওভুক্তি নিয়ে শিক্ষামন্ত্রীর ব্যাখ্যা - dainik shiksha ২৬ প্রতিষ্ঠান এমপিওভুক্তি নিয়ে শিক্ষামন্ত্রীর ব্যাখ্যা গ্রেফতারের পরও বহিষ্কার দাবিতে কেন বুয়েটে আন্দোলন, প্রশ্ন শিক্ষা উপমন্ত্রীর - dainik shiksha গ্রেফতারের পরও বহিষ্কার দাবিতে কেন বুয়েটে আন্দোলন, প্রশ্ন শিক্ষা উপমন্ত্রীর সরকারি হচ্ছে আরও দুই কলেজ - dainik shiksha সরকারি হচ্ছে আরও দুই কলেজ কোন বোর্ডে কত শিক্ষার্থী পাবে এসএসসির বৃত্তি - dainik shiksha কোন বোর্ডে কত শিক্ষার্থী পাবে এসএসসির বৃত্তি স্কুলে মাকে অপমান করায় ক্ষোভে অজ্ঞান ছাত্রের মৃত্যু - dainik shiksha স্কুলে মাকে অপমান করায় ক্ষোভে অজ্ঞান ছাত্রের মৃত্যু সরকারি স্কুলে ভর্তির নীতিমালা প্রকাশ - dainik shiksha সরকারি স্কুলে ভর্তির নীতিমালা প্রকাশ এমপিও কমিটির সভা ২৪ নভেম্বর - dainik shiksha এমপিও কমিটির সভা ২৪ নভেম্বর জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া - dainik shiksha জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া শিক্ষার এক্সক্লুসিভ ভিডিও দেখতে দৈনিক শিক্ষার ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন - dainik shiksha শিক্ষার এক্সক্লুসিভ ভিডিও দেখতে দৈনিক শিক্ষার ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন please click here to view dainikshiksha website