বেরোবির সেই চার কর্মকর্তা এখনো বহাল তবিয়তে - বিশ্ববিদ্যালয় - Dainikshiksha

বেরোবির সেই চার কর্মকর্তা এখনো বহাল তবিয়তে

বেরোবি প্রতিনিধি |

দুর্নীতির মামলায় বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের (বেরোবি) চার কর্মকর্তা এখনো বহাল তবিয়তে আছেন। ১২ দিন আগে এদের একজনকে কারাগারে পাঠিয়েছে আদালত। অন্য তিনজনের বিরুদ্ধে আদালত গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করে। এখন পর্যন্ত তাদের বিরুদ্ধে কোনো ব্যবস্থা নেয়নি বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। তাদের গ্রেফতারে পুলিশের উদ্যোগও লক্ষণীয় নয়। এদিকে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারির পর থেকে ছুটি ছাড়াই ৩ কর্মকর্তা বিশ্ববিদ্যালয়ে অনুপস্থিত থাকলেও দুজনকে দুটি কমিটির সদস্য করেছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন।

জানতে চাইলে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক নাজমুল আহসান কলিমউল্লাহ বলেন, গ্রেফতারি পরোয়ানার বিষয়টি গণমাধ্যমে জেনেছি। তবে এ সংক্রান্ত আদালতের লিখিত আদেশ পাইনি। পেলে অবশ্যই ব্যবস্থা নেওয়া হবে। কোতোয়ালি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এবিএম জাহিদুল ইসলাম বলেন, বেরোবির ৩ কর্মকর্তার গ্রেফতারি পরোয়ানার কপি থানায় এসেছে কিনা জানি না।

এসে থাকলে তাদের গ্রেফতারে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। তবে জেলা জজ আদালতে রাষ্ট্র পক্ষের আইনজীবী (পিপি) আবদুল মালেক বলেন, আদালতে আদেশ জারির পরপরই সংশ্লিষ্ট থানায় গ্রেফতারি পরোয়ানার কপি পাঠানো হয়েছে। জানা গেছে, দুর্নীতির   মামলায় গত ২০ জুলাই রংপুরের জ্যেষ্ঠ বিশেষ জজ উপ-পরিচালক এটিজিএম গোলাম ফিরোজ, সহকারী রেজিস্ট্রার মোর্শেদ উল আলম রনি ও সহকারী পরিচালক খন্দকার আশরাফুল    আলম আদালতে অনুপস্থিত থাকায় বিচারক তাদের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেন।

জেডিসি ও ইবতেদায়ি জন্মসনদ অনুযায়ী রেজিস্ট্রেশন বাধ্যতামূলক - dainik shiksha জেডিসি ও ইবতেদায়ি জন্মসনদ অনুযায়ী রেজিস্ট্রেশন বাধ্যতামূলক অর্থাভাবে দুই বোনের লেখাপড়া বন্ধ হওয়ার উপক্রম - dainik shiksha অর্থাভাবে দুই বোনের লেখাপড়া বন্ধ হওয়ার উপক্রম অবসর সুবিধার আবেদন শুধুই অনলাইনে, দালাল ধরবেন না(ভিডিও) - dainik shiksha অবসর সুবিধার আবেদন শুধুই অনলাইনে, দালাল ধরবেন না(ভিডিও) দৈনিক শিক্ষায় বিজ্ঞাপন পাঠান ইমেইলে - dainik shiksha দৈনিক শিক্ষায় বিজ্ঞাপন পাঠান ইমেইলে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া - dainik shiksha জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া please click here to view dainikshiksha website