বোল্টের রেকর্ড ভাঙলেন যে নারী - খেলাধুলা - দৈনিকশিক্ষা

বোল্টের রেকর্ড ভাঙলেন যে নারী

দৈনিকশিক্ষা ডেস্ক |

অ্যাথলেটিকসের ট্র্যাক অ্যান্ড ফিল্ডে উসাইন বোল্টই শেষ কথা? জ্যামাইকার সাবেক এ গতিমানব স্প্রিন্টে যত দ্রুত হোক না কেন প্রশ্নবোধক চিহৃটি রাখতেই হচ্ছে। সেটি যুক্তরাষ্ট্রের তারকা নারী অ্যাথলেট অ্যালিসন ফেলিক্সের জন্য। ট্র্যাক অ্যান্ড ফিল্ডের ইতিহাসে অন্যতম সফল এ স্প্রিন্টার যে ভেঙেছেন বোল্টের রেকর্ড!

দোহায় রোববার বিশ্ব অ্যাথলেটিকস চ্যাম্পিয়নশিপে নারী-পুরুষ মিশ্র ৪০০ মিটার রিলে দৌড়ে সোনা জেতেন ফেলিক্স। অ্যাথলেটিকস বিশ্ব চ্যাম্পিয়নশিপে ট্র্যাক অ্যান্ড ফিল্ডে সবচেয়ে বেশি সোনা জয়ের রেকর্ড এখন যুক্তরাষ্ট্রের এ ট্র্যাকের রানির। অলিম্পিকে আটবার সোনাজয়ী বোল্ট বিশ্ব চ্যাম্পিয়নশিপে ট্র্যাক অ্যান্ড ফিল্ডে জিতেছেন ১১টি সোনার পদক। মোট পদকসংখ্যা বিচারেও বোল্টকে পেছনে ফেললেন ফেলিক্স। বোল্টের (১৪) চেয়ে তিনটি পদক বেশি জিতেছেন ফেলিক্স (১৭)।

স্প্রিন্টের ১০০ ও ২০০ মিটার এবং ৪০০ মিটার রিলে দৌড়ে বোল্ট বিশ্ব রেকর্ড ধারি। গতি বিচারে ফেলিক্সের সঙ্গে বোল্টের তুলনা চলে না। তবে ফেলিক্সের এবারের সাফল্য অনেক বেশি তাৎপর্যপূর্ণ হয়ে উঠেছে তাঁর নিকট অতীত বিচারে। সন্তান জন্মদান নিয়ে শারীরিক জটিলতার জন্য ১৩ মাস ট্র্যাকের বাইরে ছিলেন ৩৩ বছর বয়সী এ স্প্রিন্টার। ট্র্যাকে ফিরেছেন গত জুলাইয়ে। সব প্রতিযোগিতা মিলিয়ে এ নিয়ে মোট ২৬টি পদক জিতলেন ফেলিক্স। এর মধ্যে রয়েছে অলিম্পিকে ছয়টি সোনার পদকও। বিশ্ব চ্যাম্পিয়নশিপ ও অলিম্পিক মিলিয়ে ট্র্যাক অ্যান্ড ফিল্ডে ফেলিক্সের পদকসংখ্যাই সবচেয়ে বেশি।

দোহায় নিজের মেয়ে ক্যামরিনের সামনে অনন্য এ কীর্তি গড়তে পেরে ভীষণ আনন্দিত ফেলিক্স, ‘মেয়ের সামনে পারফর্ম করতে পারা আমার কাছে বিশেষ কিছু। বিশ্বজয়ের সমান। পাগলাটে একটা বছর কাটছে আমার।’

এমপিওভুক্তির তালিকায় প্রধানমন্ত্রীর অনুমোদন - dainik shiksha এমপিওভুক্তির তালিকায় প্রধানমন্ত্রীর অনুমোদন মেডিকেলে ভর্তি পরীক্ষার ফল প্রকাশ - dainik shiksha মেডিকেলে ভর্তি পরীক্ষার ফল প্রকাশ মারধরে অসুস্থ হলে আবরারকে অন্য রুমে নিয়ে গিয়ে পেটাই : রবিন - dainik shiksha মারধরে অসুস্থ হলে আবরারকে অন্য রুমে নিয়ে গিয়ে পেটাই : রবিন কী আছে শিক্ষক গোকুল দাশের লাইব্রেরিতে, কেন বিক্রির বিজ্ঞাপন? - dainik shiksha কী আছে শিক্ষক গোকুল দাশের লাইব্রেরিতে, কেন বিক্রির বিজ্ঞাপন? ৪২ শতাংশই অন্য চাকরি না পেয়ে শিক্ষকতায় এসেছেন - dainik shiksha ৪২ শতাংশই অন্য চাকরি না পেয়ে শিক্ষকতায় এসেছেন ডিগ্রি ১ম বর্ষ পরীক্ষার ফল পুনঃনিরীক্ষণের আবেদন ২৭ অক্টোবর পর্যন্ত - dainik shiksha ডিগ্রি ১ম বর্ষ পরীক্ষার ফল পুনঃনিরীক্ষণের আবেদন ২৭ অক্টোবর পর্যন্ত শিক্ষার এক্সক্লুসিভ ভিডিও দেখতে দৈনিক শিক্ষার ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন - dainik shiksha শিক্ষার এক্সক্লুসিভ ভিডিও দেখতে দৈনিক শিক্ষার ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া - dainik shiksha জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া please click here to view dainikshiksha website