please click here to view dainikshiksha website

মধুর ক্যান্টিনে ছাত্রদলকে ধাওয়া করল ছাত্রলীগ

ঢাবি প্রতিনিধি | আগস্ট ১০, ২০১৭ - ২:৫০ অপরাহ্ণ
dainikshiksha print

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদের (ডাকসু) দাবিতে সাধারণ শিক্ষার্থীদের ডাকা উন্মুক্ত আলোচনায় অংশ নিতে মধুর ক্যান্টিনে এসে ছাত্রলীগের ধাওয়া খেয়েছে ছাত্রদল। এ সময় হাজী মুহম্মদ মুহসীন হল ছাত্রদলের যুগ্ম-আহ্বায়ক ওমর ফারুক মামুন আহত হয়েছেন বলে সংগঠনটির পক্ষ থেকে দাবি করা হয়েছে।

জানা গেছে, পূর্বঘোষিত কর্মসূচির অংশ হিসেবে বৃহস্পতিবার ( ১০ আগস্ট) দুপুরে মধুর ক্যান্টিনের সামনে আলোচনা শুরুর ঠিক আগ মুহূর্তে বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রদলের সভাপতি আল মেহেদী তালুকদার ও সাধারণ সম্পাদক আবুল বাশার সিদ্দিকীর নেতৃত্বে প্রায় শ’খানেক নেতাকর্মী উপস্থিত হন। এ সময় সেখানে আগে থেকেই উপস্থিত থাকা ছাত্রলীগের হাজী মুহম্মদ মুহসীন হল শাখার সভাপতি জহিরুল ইসলাম ও সাধারণ সম্পাদক মেহেদী হাসান সানী, এসএম হল ছাত্রলীগের সভাপতি তাহসান আহমেদ রাসেলের নেতৃত্বে কেন্দ্রীয় ও বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের কয়েকজন নেতাকর্মী তাদের ধাওয়া দেন।

এ বিষয়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রদলের সভাপতি আল মেহেদী তালুকদার অভিযোগ করে বলেন, ‘ডাকসুর দাবিতে সাধারণ শিক্ষার্থীদের ডাকা পূর্বঘোষিত উন্মুক্ত আলোচনায় আমরা (ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রদল) অংশ নিতে এসেছিলাম। কিন্তু ছাত্রলীগের নেতারা আমাদের অংশ নিতে দেয়নি। তারা আমাদের নেতাকর্মীদের ওপর হামলা চালায়। এ সময় আমাদের মুহসীন হল ছাত্রদলের যুগ্ম-আহ্বায়ক মামুন আহত হন।’

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক আবুল বাশার সিদ্দিকী দাবি করেন, ‘আমরা চেয়েছিলাম সাধারণ শিক্ষার্থীদের দাবির সঙ্গে নিজেদের মতামত ব্যক্ত করতে। কিন্তু ছাত্রলীগের নেতারা আমাদের ওপর দেশীয় অস্ত্র নিয়ে অতর্কিত হামলা চালায়।’

এ বিষয়ে ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক এস এম জাকির হোসাইন বলেন, ছাত্রদলের নেতাকর্মীদের ধাওয়া দেয়া হয়েছে- এমন কোনো তথ্য আমাদের কাছে নেই। তারা কখন এসেছে, কিভাবে এসেছে তা আমাদের জানা নেই। তাদের ধাওয়া দেবারই কী আছে?

তবে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মোতাহার হোসেন প্রিন্স বলেন, ‘তারা (ছাত্রদল) এসেছিল। কিন্তু এমন কোনো ঘটনা (ধাওয়া) ঘটেনি। তারা এসেই মধুর ক্যান্টিনে ছাত্রলীগের জন্য নির্ধারিত টেবিলে (আসন) বসেন। তখন আমাদের কয়েকজন নেতাকর্মী তাদের বলেন, ভাই আপনারা কারা? কারণ, তাদের সাধারণ শিক্ষার্থী বলে মনে হচ্ছিল না।’

‘তারা বলে, আমরা ছাত্রদল করি। তখন আমাদের নেতারা তাদের অন্য টেবিলে গিয়ে বসতে বলেন। একপর্যায়ে তাদের সঙ্গে কথা কাটাকাটির ঘটনা ঘটে। তবে কাউকে ধাওয়া দেয়া হয়নি’- যোগ করেন তিনি।

সংবাদটি শেয়ার করুন:


আপনার মন্তব্য দিন