মধুর ক্যান্টিনে ছাত্রলীগের ২ সহ সভাপতির মারামারি, আহত ১ - বিশ্ববিদ্যালয় - দৈনিকশিক্ষা

মধুর ক্যান্টিনে ছাত্রলীগের ২ সহ সভাপতির মারামারি, আহত ১

নিজস্ব প্রতিবেদক |

ছাত্রলীগের সভাপতি রেজওয়ানুল হক চৌধুরী শোভনের অনুসারী দুই ছাত্রলীগ নেতার নিজেদের মধ্যকার মারামারিতে একজনের কপাল ফেটে গেছে। মঙ্গলবার (১০ সেপ্টেম্বর) দুপুর দেড়টার দিকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মধুর ক্যান্টিনের সামনে এই মারামারির ঘটনা ঘটে।

মারমারি করা দুই ছাত্রলীগ নেতা হলেন তৌহিদুল ইসলাম চৌধুরী জহির ও শাহরিয়ার কবির বিদ্যুৎ। এরা দুইজনই ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সহ সভাপতি ও ছাত্রলীগ সভাপতি শোভনের অনুসারী। আহত বিদ্যুৎ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মেডিকেল সেন্টার থেকে প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়েছেন।

আদর্শগত দ্বন্দ্বের জন্য কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে জহির ইট দিয়ে আঘাত করে বিদ্যুৎ এর চোখের বাম চোখের ওপরে কপাল ফাটিয়ে দিয়েছে বলে অভিযোগ করেন বিদ্যুৎ।

তিনি বলেন, ‘সপ্তাহ খানেক সময় ধরে ওদের সিন্ডিকেটের সাথে আমাদের মতানৈক্য ও বিরোধ চলে আসছিল। আজ মধুর ক্যান্টিনে এসব বিষয় নিয়ে কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে জহির আমার শার্টের কলার চেপে ধরে। তখন আমিও ওর জামার কলার চেপে ধরি। এক পর্যায়ে জহির ইট দিয়ে আঘাত করে আমার কপাল ফাটিয়ে দেয়। এসময় জহিরের এক ছোট ভাইয়ের হাতে বাঁশ ছিল বলে অভিযোগ করেন বিদ্যুৎ।

জহির জামাত-শিবিরের সাথে সংশ্লিষ্ট এবং জহিরের সিন্ডিকেট মিলে ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় কমিটি ভাঙার ষড়যন্ত্র করছিল বলে অভিযোগ করেন বিদ্যুৎ। আর এসব বিষয় নিয়েই মুলত জহিরের সঙ্গে গত কিছুদিন ধরে জামেলা চলছিল বলে জানান বিদ্যুৎ। এছাড়া অভিযুক্ত জহির ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী নয় বলেও অভিযোগ করেন বিদ্যুৎ।

অভিযুক্ত জহির কোথায় এখন কোথায় আছেন এ সম্পর্কে এখনো নিশ্চিতভাবে জানা যায়নি। তাৎক্ষণিকভাবে তার সঙ্গে যোগাযোগ করা যায়নি। তবে জহির ছাত্রলীগ সভাপতি শোভনের বাসায় আছেন বলে জানান কিছু ছাত্রলীগ নেতা।

এদিকে মধুর ক্যান্টিনের সামনে মারামারি সংঘটিত হওয়ার সময় দৈনিক ইনকিলাবের ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় সাংবাদিক সমিতির সদস্য নুর হোসেন ইমন ঘটনার ভিডিও তার মুঠোফোনে ধারণ করেন। এটি দেখে ছাত্রলীগ সভাপতি শোভন জোরপূর্বক ওই সাংবাদিককে তার গাড়িতে তুলে নিয়ে যান। পরে ভিডিও ডিলেট করিয়ে দিয়ে তাকে গাড়ি থেকে নামিয়ে দেন।

ঘটনার বিষয়ে জানতে শোভনের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে এরকম কোনো ঘটনা ঘটেনি বলে দাবি করেন তিনি।

শিক্ষা আইন যেন শুধু শিক্ষকদের শাসন করার জন্য না হয় - dainik shiksha শিক্ষা আইন যেন শুধু শিক্ষকদের শাসন করার জন্য না হয় হঠাৎ রাজধানীর ৩ স্কুলে প্রতিমন্ত্রী, ৫ শিক্ষককে শোকজ - dainik shiksha হঠাৎ রাজধানীর ৩ স্কুলে প্রতিমন্ত্রী, ৫ শিক্ষককে শোকজ ১৩ অক্টোবরের মধ্যে দাবি আদায় না হলে কর্মবিরতির হুমকি প্রাথমিক শিক্ষকদের - dainik shiksha ১৩ অক্টোবরের মধ্যে দাবি আদায় না হলে কর্মবিরতির হুমকি প্রাথমিক শিক্ষকদের প্রাথমিক বিদ্যালয়ে দপ্তরী নিয়োগের নীতিমালা প্রকাশ - dainik shiksha প্রাথমিক বিদ্যালয়ে দপ্তরী নিয়োগের নীতিমালা প্রকাশ এইচএসসি পরীক্ষার সূচি প্রকাশ - dainik shiksha এইচএসসি পরীক্ষার সূচি প্রকাশ কোন পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের কবে ভর্তি পরীক্ষা, এক নজরে - dainik shiksha কোন পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের কবে ভর্তি পরীক্ষা, এক নজরে শিক্ষার এক্সক্লুসিভ ভিডিও দেখতে দৈনিক শিক্ষার ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন - dainik shiksha শিক্ষার এক্সক্লুসিভ ভিডিও দেখতে দৈনিক শিক্ষার ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া - dainik shiksha জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া please click here to view dainikshiksha website