মহাত্মা অশ্বিনী দত্তের নামে কলেজের নাম পরিবর্তনের দাবিতে প্রধানমন্ত্রী-শিক্ষামন্ত্রীকে স্মারকলিপি - কলেজ - দৈনিকশিক্ষা

মহাত্মা অশ্বিনী দত্তের নামে কলেজের নাম পরিবর্তনের দাবিতে প্রধানমন্ত্রী-শিক্ষামন্ত্রীকে স্মারকলিপি

বরিশাল প্রতিনিধি |

মহাত্মা অশ্বিনী কুমার দত্তের নামে সরকারি বরিশাল কলেজের নামকরণের দাবিতে বরিশালের জেলা প্রশাসকের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনিকে স্মারকলিপি দেয়া হয়েছে। এছাড়া সংবাদ সম্মেলন করে বরিশাল সরকারি কলেজের নাম পরিবর্তনের দাবি জানিয়েছে বরিশাল সরকারি কলেজকে মহাত্মা অশ্বিনী কুমার দত্তের নামে নামকরণ বাস্তবায়ন কমিটি।

বৃহস্পতিবার (১৬ জুলাই) বরিশাল নগরের অশ্বিনী কুমার টাউন হলের সামনে সংবাদ সম্মেলন করে এ দাবি জানানো হয়।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন মহাত্মা অশ্বিনী কুমার দত্তের নামে নামকরণ বাস্তবায়ন কমিটির যুগ্ম আহ্বায়ক বীরপ্রতীক কেএসএ মহিউদ্দিন মানিক, সদস্য সচিব সাইফুর রহমান মিরন, সমন্বয়ক স্নেহাংশু কুমার বিশ্বাস, অধ্যাপিকা শাহ সাজেদা, বাংলাদেশ সমাজতান্ত্রিক দল (বাসদ) সদস্য সচিব ডা. মনিষা চক্রবর্তী, ওয়াকার্স পার্টির সভাপতি অধ্যাপক নজরুল হক নিলু, বাংলাদেশ ট্রেড ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক এ কে আজাদ, কমিউনিস্ট পার্টির সাধারণ সম্পাদক দুলাল মজুমদার প্রমুখ।

লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন মহাত্মা অশ্বিনী কুমার দত্তের নামে নামকরণ বাস্তবায়ন কমিটির আহ্বায়ক মানবেন্দ্র বটব্যাল।

তিনি বলেন, মহাত্মা অশ্বিনী কুমার দত্তের নামে নামে বরিশাল কলেজের নামকরণের দাবিতে কয়েক যুগ ধরে বরিশালের সর্বস্তরের মানুষ আন্দোলন করে আসছে। আন্দোলনের ধারাবাহিকতায় সরকারি বরিশাল কলেজের নাম মহাত্মা অশ্বিনী কুমার দত্তের নামে নামে করে গেজেট নোটিফিকেশন জারি হওয়া এখন সময়ের দাবি।

তিনি বলেন, মহাত্মার বাসভবনে কলেজ প্রতিষ্ঠার পর থেকেই বরিশালে অসাম্প্রদায়িক নাগরিকরা কলেজের নামকরণ ‘মহাত্মা অশ্বিনী কুমার কলেজ’ করার দাবি জানালেও তৎকালীন মুসলিম লীগের সাম্প্রদায়িক নেতারা সেই দাবি অগ্রাহ্য করছেন। বর্তমান জেলা প্রশাসকের কাছে এ দাবি জানানো হলে গত ফেব্রুয়ারি মাসে তিনি শিক্ষা মন্ত্রণালয়ে সুপারিশ পাঠান। ওই সুপারিশের ভিত্তিতে শিক্ষা মন্ত্রণালয় নীতিগতভাবে ইতিবাচক পদক্ষেপ গ্রহণ করে।

তিনি আরও বলেন, দীর্ঘদিনের দাবির প্রেক্ষিতে সরকারি বরিশাল কলেজের নামকরণ এই সংগ্রামী ও মহান ব্যক্তি অশ্বিনী কুমারের নামে করার সিদ্ধান্ত সরকারের নীতিনির্ধারক মহলের বিবেচনাধীন থাকায় আমাদের আশান্বিত করেছে। তবে আমরা গভীরভাবে উদ্বেগ ও শঙ্কার সাথে লক্ষ করেছি একটি কুচক্রী মহল মহাত্মা অশ্বিনী কুমার দত্তের নামে সরকারি বরিশাল কলেজের নামকরণের বিরোধিতার অপতৎপরাতায় লিপ্ত হয়েছে।

সংবাদ সম্মেলনে বক্তারা বলেন, পাকিস্তান সরকারের আমলে মহাত্মা অশ্বিনী কুমার দত্তের বাসভবনটি সরকার রিকিউজিশন করে এবং তার বাসভবনে ব্রজমোহন কলেজের কসমোপলিটান ছাত্রাবাস প্রতিষ্ঠা করা হয়। ১৯৬৬ খ্রিষ্টাব্দে তার বাসভবনে প্রতিষ্ঠা করা হয় ‘বরিশাল নৈশ মহাবিদ্যালয়’। বাংলাদেশ স্বাধীন হওয়ার পর নৈশ কলেজটিকে প্রথমে বরিশাল দিবা ও নৈশ কলেজে রূপান্তর করা হয়। পরে এটির নামকরণ করা হয় ‘বরিশাল কলেজ’। এরশাদ সরকারের আমলে কলেজটিকে ১৯৮৬ খ্রিষ্টাব্দে সরকারিকরণ করা হলে কলেজটির নামকরণ করা হয় সরকারি বরিশাল কলেজ নামে। ১৯৯০ খ্রিষ্টাব্দে মহাত্মার ঐতিহাসিক বাসভবনটিও ভেঙ্গে ফেলা হয়।

সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে তারা এই অপতৎপরতার তীব্র নিন্দা জানান বক্তারা। একই সাথে অবিলম্বে সরকারি বরিশাল কলেজের নামকরণ মহাত্মা অশ্বিনী কুমার দত্তের নামে করার প্রস্তাবনা দ্রুত বাস্তবায়নের দাবি জানান তারা।

সংবাদ সম্মেলন শেষে নেতারা বরিশালের জেলা প্রশাসকের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী ও শিক্ষামন্ত্রী বরাবর স্মারকলিপি দেন।

Admission going on at Navy Anchorage School and College Chattogram - dainik shiksha Admission going on at Navy Anchorage School and College Chattogram একাদশ শ্রেণিতে ভর্তির আবেদন করবেন যেভাবে - dainik shiksha একাদশ শ্রেণিতে ভর্তির আবেদন করবেন যেভাবে please click here to view dainikshiksha website