মহিলা শিক্ষক হোস্টেলের কক্ষ বরাদ্দে অনিয়মের অভিযোগ - স্কুল - দৈনিকশিক্ষা

মহিলা শিক্ষক হোস্টেলের কক্ষ বরাদ্দে অনিয়মের অভিযোগ

সাটুরিয়া (মানিকগঞ্জ) প্রতিনিধি |

মানিকগঞ্জের সাটুরিয়ায় মহিলা শিক্ষক হোস্টেল বরাদ্দে নীতিমালা না মেনে বরাদ্দ দিয়েছেন মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা। সরকারি কর্মকর্তারা ওই প্রমোট মহিলা শিক্ষক হোস্টেলে থাকার বিধান না থাকলেও তাদের নামে বরাদ্দ দিয়েছেন প্রমোট ব্যবস্থাপনা কমিটি। ফলে বিভিন্ন স্কুল-কলেজের মহিলা শিক্ষকরা আবেদন করেও আসন পাচ্ছেন না। প্রমোটটি দীর্ঘদিন ধরে সংস্কার না করে ওই হোস্টেলের টাকা লুটপাটের অভিযোগ রয়েছে।

মহিলা শিক্ষক হোস্টেল (প্রমোট) এর নীতি মালায় রয়েছে, উপজেলার বিভিন্ন বেসরকারি শিক্ষকরা ওই হোস্টলে প্রতি মাসে ৩ শত টাকা ভাড়া দিয়ে থাকতে পারবেন। এ হোস্টেলে মহিলা শিক্ষক ছাড়া অন্য কারো থাকার বিধান নেই। কিন্তু নীতিমালার তোয়াক্কা না করে ওই হোস্টেলের ব্যবস্থাপনা কমিটির সদস্য সচিব সরকারি কর্মকর্তাদের নামে বরাদ্দ দিয়েছেন। সরকারি এই হোস্টেলে কক্ষ প্রতি ৩ শত টাকা দেয়ার কথা থাকলেও সরকারি কর্মকর্তাদের মধ্যে মাসে কক্ষ প্রতি ১২শ টাকায় ভাড়া নিচ্ছেন উপজেলা মাধ্যমিক কর্মকর্তা মো. মহিউদ্দিন।

যেসব সরকারি কর্মকর্তার নামে বরাদ্দ দেয়া হয়েছে তারা হলেন, উপজেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা মুরসালিন বেগম, মৎস্য কর্তকর্তা ফাতেমা-তোজ জোহরা, শাখা ব্যবস্থাপক রত্না আক্তার, উপ-সহকারি কৃষি কর্মকর্তা খালেদা আক্তার, মহিলা বিষয়ক প্রশিক্ষক তানজিলা রহমান, তথ্যসেবা কর্মকর্তা সামছুন নাহার ও ডি এফ এ মুক্তারাণী সরকার। এসব সরকারি কর্মকর্তারা সরকারি কোয়াটার খালি থাকার পরও কেন শিক্ষক হোস্টেলে থাকেন তা নিয়ে প্রশ্ন দেখা দিয়েছে।

সাটুরিয়া মহিলা শিক্ষক হোস্টেলে অনিয়মের বিষয়ে জানতে তথ্য চাইলে মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা তথ্য দেননি। পরে ১২ সেপ্টেম্বর তথ্য অধিকার আইনে ‘ক’ ফরমে আবেদন করলে তিনি ১৯ সেপ্টেম্বর তথ্য দেন। তার দেয়া তথ্যমতে মহিলা শিক্ষক হোস্টেলের নীতিমালার নিয়ম মানা হয়নি। এদিকে মহিলা শিক্ষক হোস্টেলের ২০১৮-১৯ অর্থবছরের আয় ব্যয়ের হিসাব চাইলে তিনি বিষয়টি এড়িয়ে যান।

সাটুরিয়া উপজেলার বেশ কয়েকজন নারী শিক্ষক অভিযোগ করে বলেন, আবেদন করলেও তাদের হোস্টেল কক্ষ বরাদ্দ দেয়া হয়নি। তবে তারা হয়রানির ভয়ে নাম প্রকাশ করতে রাজি হননি। এদের একজন জানান, প্রায় দেড় বছর আগে তিনি চাকরিতে যোগ দেন। অন্য জেলায় বাড়ি হওয়ায় তিনি হোস্টেলের একটি কক্ষের জন্য আবেদন করেন। কিন্তু সিট খালি নেই বলে তাকে বরাদ্দ দেয়া হয়নি।

আরেকজন জানান, কিছুদিন আগে তিনি সাটুরিয়ায় একটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে যোগ দিয়েছে। হোস্টেলের একটি কক্ষ বরাদ্দের জন্য উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তার অফিসে যোগাযোগ করলে তাকে বলে দেয়া হয় সিট নেই।

এ বিষয়ে কমিটির (সদস্য সচিব) মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মো. মহিউদ্দিন জানান, ২০০৬ খ্রিষ্টাব্দে সাটুরিয়া উপজেলা মহিলা শিক্ষক হোস্টেল অরক্ষিত থাকায় প্রমোট কমিটি সভা করে সরকারি কর্মকর্তাদের নামে অস্থায়ী বরাদ্দ দেয়ার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। তবে কোনো মহিলা শিক্ষক আবেদন করলে সরকারি কর্মকর্তাদের সিট বাতিল করে ওই মহিলা শিক্ষককে দ্রুত আসন বরাদ্দ দেয়ারও সিদ্ধান্ত হয়েছে।

সাটুরিয়া উপজেলা হিসাবরক্ষক কৃঞ্চপদ মণ্ডল জানান, সরকারি কর্মকর্তারা যদি সরকারি কোয়াটারে থাকে তাহলে তাদের মূল বেতন থেকে ৪০ থেকে ৪৫ ভাগ টাকা বাসা ভাড়া হিসেবে কাটা হয়। আর যারা সরকারি কর্মকর্তা মহিলা হোস্টেলে থাকেন সে ভাড়া নির্ধারণ করেন উপজেলা ইউএনও ও মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা। তবে মহিলা হোস্টেলে যারা থাকেন তাদের আমরা কোনো ভাড়া কর্তন করি না।

এ বিষয়ে সাটুরিয়ার ইউএনও ও প্রমোট ব্যবস্থাপনা কমিটির সভাপতি আশরাফুল আলমের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, এ বিষয়ে আমি অবগত নই। বিষয়টি জেনে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

সরকারি স্কুলে ভর্তির নীতিমালা প্রকাশ - dainik shiksha সরকারি স্কুলে ভর্তির নীতিমালা প্রকাশ প্রশ্নফাঁসের গুজব রোধে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলো নজরদারিতে : গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী - dainik shiksha প্রশ্নফাঁসের গুজব রোধে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলো নজরদারিতে : গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী ইবতেদায়ি সমাপনীতে নকল, শিক্ষকসহ ১৪ পরীক্ষার্থী বহিষ্কার - dainik shiksha ইবতেদায়ি সমাপনীতে নকল, শিক্ষকসহ ১৪ পরীক্ষার্থী বহিষ্কার সমাপনী পরীক্ষার হল থেকে পালালেন হাইস্কুল-কলেজের ৩৭ শিক্ষার্থী - dainik shiksha সমাপনী পরীক্ষার হল থেকে পালালেন হাইস্কুল-কলেজের ৩৭ শিক্ষার্থী শিশুদের অধিকার নিশ্চিতে স্কুলগুলোতে টাস্কফোর্সের কাজ অন্তর্ভুক্তির সুপারিশ বিবেচনা করা হবে : নওফেল - dainik shiksha শিশুদের অধিকার নিশ্চিতে স্কুলগুলোতে টাস্কফোর্সের কাজ অন্তর্ভুক্তির সুপারিশ বিবেচনা করা হবে : নওফেল টেস্টে ফেল ছাত্রদের স্কুলে হামলা - dainik shiksha টেস্টে ফেল ছাত্রদের স্কুলে হামলা এমপিও কমিটির সভা ২৪ নভেম্বর - dainik shiksha এমপিও কমিটির সভা ২৪ নভেম্বর নতুন এমপিওভুক্ত ১ হাজার ৬৫০ প্রতিষ্ঠানের তথ্য পাঠানোর নির্দেশ - dainik shiksha নতুন এমপিওভুক্ত ১ হাজার ৬৫০ প্রতিষ্ঠানের তথ্য পাঠানোর নির্দেশ জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া - dainik shiksha জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া শিক্ষার এক্সক্লুসিভ ভিডিও দেখতে দৈনিক শিক্ষার ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন - dainik shiksha শিক্ষার এক্সক্লুসিভ ভিডিও দেখতে দৈনিক শিক্ষার ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন please click here to view dainikshiksha website