মাদরাসা সুপারকে হত্যার হুমকি, প্রতিবাদে মানববন্ধন - মাদরাসা - Dainikshiksha

মাদরাসা সুপারকে হত্যার হুমকি, প্রতিবাদে মানববন্ধন

শেরপুর প্রতিনিধি |

শেরপুরে চৈতনখিলা জাব্বারিয়া দাখিল মাদরাসার পরিচালনা পর্ষদের সাবেক সভাপতি আবুল কামাল কর্তৃক সুপার মো. আইন উদ্দিনকে শারীরিকভাবে লাঞ্ছিত ও হত্যার হুমকি দেওয়ার প্রতিবাদে মানববন্ধন করা হয়েছে।  বৃহস্পতিবার (১২ জুলাই) দুপুরে শেরপুর সদর উপজেলার চৈতনখিলা এলাকার মাদরাসার সামনে  শিক্ষক-শিক্ষার্থী, কর্মচারী ও এলাকাবাসী মানববন্ধনে অংশ নেন।

মানববন্ধন বক্তব্য দেন জেলা জামিয়াতুল মোদারেছিনের সাধারণ সম্পাদক মো. মেরাজ উদ্দিন, চৈতনখিলা জাব্বারিয়া দাখিল মাদরাসার জ্যেষ্ঠ শিক্ষক মাওলানা মুনছর আলী, শিক্ষার্থী বায়েজিদ, রুখসানা, আবু রাশেদ প্রমুখ।

মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, মাদরাসার বিভিন্ন বিষয় নিয়ে সুপার আইন উদ্দিনের সঙ্গে মাদরাসা পরিচালনা পর্ষদের সাবেক সভাপতি আবুল কালামের দ্বন্দ্ব ও বিরোধ চলে আসছিল। এর জের ধরে গত ৮ জুলাই রোববার সকালে আবুল কালাম তাঁর চৈতনখিলা বটতলা বাজারের ব্যক্তিগত কার্যালয়ে ডেকে নিয়ে সুপার আইন উদ্দিনকে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করেন। এর প্রতিবাদ করায় কালাম সুপার আইন উদ্দিনকে কিলঘুষি ও বেদম মারপিট করেন।

এক পর্যায়ে তিনি (কালাম) সুপার আইন উদ্দিনকে খুন করে লাশ গুম করে ফেলার হুমকি দেন। এ ঘটনার বিচার দাবি করে ও নিরাপত্তা চেয়ে ইতিমধ্যে সুপার আইন উদ্দিন সদর থানা ও জেলা শিক্ষা কর্মকর্তাসহ জেলা ও পুলিশ প্রশাসনের বিভিন্ন কর্মকর্তার নিকট আবেদন জানিয়েছেন। 

মানববন্ধনে বক্তারা এ ঘটনার জন্য দায়ী মাদরাসা সাবেক সভাপতি আবুল কালামকে অনতিবিলম্বে গ্রেফতারপূর্বক দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির  দাবি জানান।

তবে অভিযোগ অস্বীকার করে সাবেক সভাপতি আবুল কালাম বলেন, মাদরাসা সুপার আইন উদ্দিন বিভিন্ন সময়ে তাঁর দুর্নীতি ও অপকর্ম ঢাকতে তাঁর (আবুল কালাম) বিরুদ্ধে কয়েকজন শিক্ষককে নিয়ে এ ধরনের ষড়যন্ত্রমূলক ও ভিত্তিহীন অভিযোগ করেছেন।  

১৬তম শিক্ষক নিবন্ধনে আবেদনের সময় বাড়ছে না - dainik shiksha ১৬তম শিক্ষক নিবন্ধনে আবেদনের সময় বাড়ছে না প্রশ্নফাঁসের প্রমাণ পেলে শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষা বাতিল হবে: গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী - dainik shiksha প্রশ্নফাঁসের প্রমাণ পেলে শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষা বাতিল হবে: গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী পাবলিক পরীক্ষায় পাস নম্বর ৪০ করার উদ্যোগ - dainik shiksha পাবলিক পরীক্ষায় পাস নম্বর ৪০ করার উদ্যোগ ৫ বছরে পৌনে দুই লাখ শিক্ষক নিয়োগ দেয়া হবে - dainik shiksha ৫ বছরে পৌনে দুই লাখ শিক্ষক নিয়োগ দেয়া হবে প্রাণসহ ৫ কোম্পানির নিষিদ্ধ পণ্য বিক্রি, সাত প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে মামলা - dainik shiksha প্রাণসহ ৫ কোম্পানির নিষিদ্ধ পণ্য বিক্রি, সাত প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে মামলা কলেজের নবসৃষ্ট পদে এমপিওভুক্তির নির্দেশনা - dainik shiksha কলেজের নবসৃষ্ট পদে এমপিওভুক্তির নির্দেশনা জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া - dainik shiksha জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া please click here to view dainikshiksha website