মোবাইলসহ কেন্দ্রে ঢুকলেও গ্রেপ্তার হয়নি পরীক্ষার্থী - বিবিধ - Dainikshiksha

মোবাইলসহ কেন্দ্রে ঢুকলেও গ্রেপ্তার হয়নি পরীক্ষার্থী

নিজস্ব প্রতিবেদক |

এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষা কেন্দ্রের ২০০ মিটারের মধ্যে কিংবা পরীক্ষা কেন্দ্রের মধ্যে মোবাইল ফোনসহ কাউকে পাওয়া গেলে তাকে তৎক্ষণাৎ গ্রেপ্তারের সরকারি নির্দেশনা থাকলেও মঙ্গলবার (১৩ই ফেব্রুয়ারি) যশোর সদরের একটি কেন্দ্রে মোবাইলসহ একজন পরীক্ষার্থীকে ধরা হলেও তাকে বহিষ্কার বা গ্রেপ্তার করা হয়নি।

যশোর সদর উপজেলার জঙ্গলবাধাল হাইস্কুল কেন্দ্রে এসএসসির বাংলাদেশের ইতিহাস ও বিশ্ব সভ্যতা বিষয়ের পরীক্ষায় অংশ নিতে মোবাইলসহ এক পরীক্ষা প্রবেশ করে। কর্তব্যরত কক্ষ পরির্দশক ওই পরীক্ষার্থীকে মোবাইলসহ হাতেনাতে ধরলেও তার বিরুদ্ধে কোনো ব্যবস্থা নেয়া হয়নি। এ ঘটনায় অন্যান্য পরীক্ষার্থীরা ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন।

এ বিষয়ে যশোর শিক্ষা বোর্ডের পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক মাধব চন্দ্র রুদ্র দৈনিকশিক্ষা ডটকমকে বলেন, মোবাইলসহ কোনো পরীক্ষার্থীকে আটক করা হয়েছে এ ধরনের কোনো তথ্য আমাদের কাছে নেই। কোনো পরীক্ষার্থীকে বহিষ্কারের খবরও নেই।

প্রশ্নফাঁস রোধ করে প্রশ্ন ফাঁসের গুজবমুক্ত সুষ্ঠু পরিবেশে পরীক্ষা অনুষ্ঠানের লক্ষ্যে জরুরি ভিত্তিতে কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগের উপসচিব আবু আলী মো. সাজ্জাদ হোসেন স্বাক্ষরিত নির্দেশনাটি গত রোববার (১১ ফেব্রুয়ারি) সংশ্লিষ্টদের কাছে পাঠানো হয়।

মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক, সব বিভাগীয় কমিশনার, সব শিক্ষা বোর্ড চেয়ারম্যান, সব জেলা প্রশাসকের পাঠানা ওই নির্দেশনায় বলা হয়েছে, গত ১ ফেব্রুয়ারি থেকে সারাদেশে এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষা শুরু হয়েছে। পরীক্ষা শুরুর ৩০ মিনিট আগে সব পরীক্ষার্থীদের আবশ্যিকভাবে পরীক্ষার হলে প্রবেশ করে আসন গ্রহণ করার নির্দেশনা দেওয়া হয়েছিলো। কিন্তু লক্ষ্য করা যাচ্ছে যে, বর্ণিত সময়ের পরেও কিছু কিছু কেন্দ্রে পরীক্ষার্থীরা প্রবেশ করছে। এছাড়া পরীক্ষা কেন্দ্রের আশেপাশে অনেকেই স্মার্টফোন নিয়ে ঘোরাফেরা করছে।

‘পরীক্ষা শুরুর ৩০ মিনিট আগে সব পরীক্ষার্থীর আবশ্যিকভাবে পরীক্ষার হলে প্রবেশ ও আসন গ্রহণ নিশ্চিত করা, উক্ত সময়ের পর কোনো পরীক্ষার্থীকে কেন্দ্রে প্রবেশ করতে দেওয়া যাবে না’।

দুর্নীতিবাজরা সাবধান হয়ে যান: গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী - dainik shiksha দুর্নীতিবাজরা সাবধান হয়ে যান: গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী অর্ধাক্ষর শিক্ষকরা সিকিঅক্ষর শিক্ষার্থী তৈরি করছেন: যতীন সরকার - dainik shiksha অর্ধাক্ষর শিক্ষকরা সিকিঅক্ষর শিক্ষার্থী তৈরি করছেন: যতীন সরকার অধ্যক্ষ-উপাধ্যক্ষ নিয়োগ নিয়ে যা বলেছেন শিক্ষামন্ত্রী - dainik shiksha অধ্যক্ষ-উপাধ্যক্ষ নিয়োগ নিয়ে যা বলেছেন শিক্ষামন্ত্রী ১৮১ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের এমপিও বন্ধের প্রক্রিয়া শুরু - dainik shiksha ১৮১ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের এমপিও বন্ধের প্রক্রিয়া শুরু স্টুডেন্টস কাউন্সিল নির্বাচন ২০ ফেব্রুয়ারি - dainik shiksha স্টুডেন্টস কাউন্সিল নির্বাচন ২০ ফেব্রুয়ারি প্রাথমিকে সহকারী শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষা ১৫ মার্চ - dainik shiksha প্রাথমিকে সহকারী শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষা ১৫ মার্চ ২০১৯ খ্র্রিস্টাব্দের স্কুলের ছুটির তালিকা - dainik shiksha ২০১৯ খ্র্রিস্টাব্দের স্কুলের ছুটির তালিকা জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া - dainik shiksha জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া please click here to view dainikshiksha website