মোবাইল ব্যাংকিং সেবা সার্বক্ষণিক চালু রাখার নির্দেশ - ব্যাংক ও বীমা - দৈনিকশিক্ষা

মোবাইল ব্যাংকিং সেবা সার্বক্ষণিক চালু রাখার নির্দেশ

নিজস্ব প্রতিবেদক |

রফতানিমুখী শিল্পপ্রতিষ্ঠানের শ্রমিক-কর্মচারীদের বেতন-ভাতা তাদের মোবাইল ব্যাংকিং হিসাবের মাধ্যমে বিতরণের লক্ষ্যে মোবাইল ব্যাংকিং সেবাদানকারী প্রতিষ্ঠানগুলো সার্বক্ষণিক চালু রাখার নির্দেশ দিয়েছে বাংলাদেশ ব্যাংক।

রোববার বাংলাদেশ ব্যাংক সার্কুলার জারি করে তা সংশ্লিষ্ট সেবাদানকারী প্রতিষ্ঠানগুলোর প্রধান নির্বাহীদের কাছে পাঠিয়েছে। এ বিষয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে বলা হয়েছে।

সার্কুলারে বলা হয়েছে, সচল রফতানিমুখী শিল্পপ্রতিষ্ঠানের শ্রমিক-কর্মচারীদের বেতন-ভাতা প্রদানের জন্য সরকার ৫ হাজার কোটি টাকার তহবিল গঠন করেছে।

এই তহবিল থেকে ওইসব প্রতিষ্ঠানের শ্রমিক-কর্মচারীর বেতন-ভাতা ব্যাংক বা মোবাইল ব্যাংকিং হিসাবের মাধ্যমে বিতরণ করা হবে।

তারা যাতে বেতন-ভাতার টাকা সঠিকভাবে গ্রহণ করতে পারে এবং টাকা পরিশোধে যাতে কোনো সমস্যা না-হয়, সে জন্য মোবাইল ব্যাংকিং সেবাদানকারী প্রতিষ্ঠানগুলো নিজস্ব নেটওয়ার্ক সার্বক্ষণিক চালু রাখতে হবে।

একই সঙ্গে সেবা দেয়ার সঙ্গে যুক্ত সরবরাহকারী ও এজেন্টদের কাছে পর্যাপ্ত নগদ টাকা সংরক্ষণ করতে হবে। যাতে চাহিদা মাফিক শ্রমিক-কর্মচারীরা বেতন-ভাতার টাকা তুলতে পারে।

এতে বলা হয়েছে, সরকার ঘোষিত সাধারণ ছুটির সময়ে মোবাইল ব্যাংকিং সেবাদানকারী প্রতিষ্ঠানগুলোর কার্যক্রম অত্যাবশ্যকীয় সেবা হিসেবে গণ্য হবে।

ওই সময়ে এসব প্রতিষ্ঠানের যানবাহন, কর্মকর্তা, কর্মচারীদের নির্বিঘ্ন চলাচল নিশ্চিত করতে প্রশাসন থেকে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়ার জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকেও চিঠি দিয়েছে বাংলাদেশ ব্যাংক।

বিষয়টি নিশ্চিত করতে অর্থ মন্ত্রণালয়, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় ও পুলিশ সদর দফতরে চিঠি দেয়া হয়েছে।

উল্লেখ্য, রফতানিমুখী শ্রমিক-কর্মচারীদের বেতন-ভাতা দিতে সরকার ৫ হাজার কোটি টাকার তহবিল গঠন করেছে। এই তহবিল থেকে প্রতিষ্ঠানগুলোকে ২ শতাংশ সার্ভিস চার্জের বিনিময়ে সহজ শর্তে ঋণ দেয়া হবে। ৬ মাসের গ্রেস পিরিয়ডসহ দু’বছরে ১৮টি কিস্তিতে এ ঋণ শোধ করতে হবে।

এ অর্থে শুধু রফতানিমুখী শিল্পের শ্রমিক-কর্র্মচারীদের বেতন-ভাতা দেয়া যাবে। যেসব শ্রমিক-কর্মচারীর মোবাইল ব্যাংকিং হিসাব নেই তাদেরকে আগামী ২০ এপ্রিলের মধ্যে যে কোনো মোবাইল ব্যাংকিং সেবাদানকারী প্রতিষ্ঠানগুলোয় হিসাব খোলার জন্য বলা হয়েছে।

প্যানেলে শিক্ষক নিয়োগে প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ দাবি - dainik shiksha প্যানেলে শিক্ষক নিয়োগে প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ দাবি ‘টেনশনে’ হৃদযন্ত্রের ক্রিয়া বন্ধ হয়ে আহমদ শফীর মৃত্যু, দাবি ছেলের - dainik shiksha ‘টেনশনে’ হৃদযন্ত্রের ক্রিয়া বন্ধ হয়ে আহমদ শফীর মৃত্যু, দাবি ছেলের শিক্ষা জাতীয়করণে কার বেশি লাভ? - dainik shiksha শিক্ষা জাতীয়করণে কার বেশি লাভ? ২৪ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত সংসদ টিভিতে ডিপ্লোমা-ভোকেশনাল ক্লাসের রুটিন - dainik shiksha ২৪ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত সংসদ টিভিতে ডিপ্লোমা-ভোকেশনাল ক্লাসের রুটিন চাকরি সরকারি অবসর বেসরকারি: সরকারিকৃত কলেজ শিক্ষকদের বোবাকান্না - dainik shiksha চাকরি সরকারি অবসর বেসরকারি: সরকারিকৃত কলেজ শিক্ষকদের বোবাকান্না হাটহাজারী মাদরাসা পরিচালনায় সিনিয়র ৩ শিক্ষক - dainik shiksha হাটহাজারী মাদরাসা পরিচালনায় সিনিয়র ৩ শিক্ষক শিক্ষার ক্ষতি পোষাতে বিশেষ প্রকল্প - dainik shiksha শিক্ষার ক্ষতি পোষাতে বিশেষ প্রকল্প please click here to view dainikshiksha website