যুবলীগ নেতার বিরুদ্ধে শিক্ষক লাঞ্ছনার অভিযোগ - বিবিধ - Dainikshiksha

যুবলীগ নেতার বিরুদ্ধে শিক্ষক লাঞ্ছনার অভিযোগ

রাঙ্গামাটি প্রতিনিধি |

রাঙ্গামাটির লংগদু উপজেলায় স্থানীয় এক যুবলীগ নেতার বিরুদ্ধে শিক্ষককে লাঞ্ছিত করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। অভিযুক্ত শাহ নজরুল ইসলাম রাঙ্গামাটি জেলা যুবলীগের সদস্য। বৃহস্পতিবার (৮ নভেম্বর) দুপুরে এই ঘটনা ঘটে বলে জানিয়েছেন ভুক্তভোগী শিক্ষক।

লাঞ্ছনার শিকার উপজেলার মাইনীমুখ মডেল বিদ্যালয়ের ইংরেজি বিষয়ের শিক্ষক এম এ জামান বলেন, ‘অষ্টম শ্রেণির সীমা আক্তার একজন অনিয়মিত ছাত্রী। সীমার জেএসসি ইংরেজি বিভাগের পুনঃপরীক্ষা দেয়ার কথা ছিল। পরীক্ষার আগে সব শিক্ষার্থীদের রুটিনও জানানো হয়েছে। রুটিন অনুসারে পরীক্ষা শুরু হয়। কিন্তু শিক্ষার্থী সীমা আক্তার পরীক্ষা দিতে আসেনি। তাই তার ভাই নজরুল ক্ষিপ্ত হয়ে আমার বাড়িতে এসে আমার স্ত্রীর সামনে আমাকে শারীরিকভাবে লাঞ্ছিত করে।’

লাঞ্ছিত শিক্ষক বলেন, ‘তাদের অভিযোগ ছিল তার বোন সীমা আক্তার পরীক্ষার রুটিন আগে থেকে জানত না। তাই সে পরীক্ষা দিতে পারেনি।’

তিনি বলেন, এতে আমার কী অপরাধ? কেন তার বোন পরীক্ষা দিতে পারেনি, সেটা আমাকে জানতে হবে নাকি?’ 
তবে অভিযোগের বিষয়ে যুবলীগ নেতা নজরুলের মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, ‘এমন কিছুই হয়নি।’

ঘটনার বিষয়ে মাইনীমুখ মডেল বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক রফিকুন নেছা রোজী বলেন, ‘কোনো অভিভাবক অন্যায়ভাবে একজন শিক্ষককের বাসায় গিয়ে মারধর করতে পারেন না। এটার উপযুক্ত বিচার হওয়া উচিত। আমি বিষয়টি ইউএনও স্যারকে অবগত করেছি।’

লংগদু উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) প্রবীর কুমার রায় বলেন, ‘শিক্ষকরা বিষয়টি আমাকে জানিয়েছেন। আমি তাদেরকে থানায় পাঠিয়েছি। এ বিষয়ে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।’

লংগদু থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) রঞ্জন কুমার সামন্ত বলেন, ‘এ ঘটনায় লিখিত অভিযোগ করেছেন ভুক্তভোগী শিক্ষক। বিষয়টি খুবই দুঃখজনক। এ বিষয়ে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।’

‘শিক্ষকদের অবসর-কল্যাণ সুবিধার তহবিল বন্ধ করে পেনশন চালু করতে হবে’ - dainik shiksha ‘শিক্ষকদের অবসর-কল্যাণ সুবিধার তহবিল বন্ধ করে পেনশন চালু করতে হবে’ প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগের প্রথম ধাপের পরীক্ষা ১০ মে - dainik shiksha প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগের প্রথম ধাপের পরীক্ষা ১০ মে এসএসসির ফল ৫ বা ৬ মে - dainik shiksha এসএসসির ফল ৫ বা ৬ মে চাঁদা বৃদ্ধির পরও ২১৬ কোটি টাকা বার্ষিক ঘাটতি : শরীফ সাদী - dainik shiksha চাঁদা বৃদ্ধির পরও ২১৬ কোটি টাকা বার্ষিক ঘাটতি : শরীফ সাদী একাদশে ভর্তির নীতিমালা জারি, আবেদন শুরু ১২ মে - dainik shiksha একাদশে ভর্তির নীতিমালা জারি, আবেদন শুরু ১২ মে সেহরি ও ইফতারের সময়সূচি - dainik shiksha সেহরি ও ইফতারের সময়সূচি ২০১৯ খ্র্রিস্টাব্দের স্কুলের ছুটির তালিকা - dainik shiksha ২০১৯ খ্র্রিস্টাব্দের স্কুলের ছুটির তালিকা জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া - dainik shiksha জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া please click here to view dainikshiksha website