রওশনের প্রশ্ন : শিক্ষামন্ত্রী বেশিরভাগ সময়ে বিদেশে থাকলে শিক্ষার উন্নয়ন হবে কীভাবে? - বিবিধ - দৈনিকশিক্ষা

রওশনের প্রশ্ন : শিক্ষামন্ত্রী বেশিরভাগ সময়ে বিদেশে থাকলে শিক্ষার উন্নয়ন হবে কীভাবে?

নিজস্ব প্রতিবেদক |

শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনির সমালোচনা করেছেন বিরোধী দলীয় নেতা রওশন এরশাদ। তিনি প্রশ্ন তুলেছেন, শিক্ষামন্ত্রী বেশির ভাগ সময় বিদেশে থাকেন, তাহলে  শিক্ষার উন্নয়ন হবে কীভাবে? আরও বলেন, সংসদে প্রধানমন্ত্রীর সমাপনী বক্তব্য রাখার দিনও দীপু মনি অনুপস্থিত।

মঙ্গলবার জাতীয় সংসদে রাষ্ট্রপতির ভাষণের ওপর আনা ধন্যবাদ প্রস্তাবের আলোচনা ও চলতি সংসদের ষষ্ঠ অধিবেশনের সমাপনী ভাষণে রওশন এরশাদ এসব কথা বলেন। সে সময় তিনি বলেন, জাতীয় পার্টি বিরোধী দল হিসেবে সরকারের ভুল ত্রুটি তুলে ধরছে। 

ভিডিও দেখুন: শিক্ষামন্ত্রী যদি বেশিরভাগ সময় বিদেশে থাকেন, তাহলে শিক্ষার উন্নয়ন হবে কীভাবে?

শিক্ষামন্ত্রী দীপু মনির সমালোচনা করে রওশন এরশাদ বলেন,‘ শিক্ষামন্ত্রী বেশির ভাগ সময় বিদেশে থাকেন, তাহলে কীভাবে শিক্ষার উন্নয়ন হবে। তাঁকে খুবই কম দেখেছি সংসদে। কোনো সময় তাকে পাওয়া যায় না। আজকেও নেই।’

নোট গাইড ইস্যু নিয়েও কথা বলেন বিরোধী দলীয় নেতা। তিনি বলেন, শিক্ষামন্ত্রী শিক্ষার্থীদের নোট গাইড বন্ধ করার কথা বলেছেন। কিন্তু ছেলে মেয়েরা লেখাপড়া করবে কি করে সেটা তিনি বলেন না।

আরো পড়ুন: ভুল আর নোট গাইডের হুবহু প্রশ্ন

              কিছু শিক্ষক নোট গাইড প্রকাশকের কাছ থেকে আর্থিক সুবিধা নেন : শিক্ষামন্ত্রী (ভিডিও)

উল্লেখ্য, গত বছর এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষায় ভুল প্রশ্ন বিতরণের পর এবার আবার একই ঘটনার পুনরাবৃত্তিকে কেন্দ্র করে বিব্রতকর অবস্থায় পড়েছে শিক্ষা মন্ত্রণালয় ও বোর্ড। প্রথম দিনই বাংলা প্রথম পত্র পরীক্ষায় অনেক জেলায় ভুল প্রশ্নপত্র বিতরণের ঘটনার মধ্যে গাইড বই থেকে হুবহু প্রশ্ন তুলে দেয়ার ঘটনা নিয়েও চলছে বিতর্ক। 

এ বিষয়ে শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি বলছেন, সরকার নোট গাইড ব্যবস্থা বন্ধ করতে চায়। বর্তমান সৃজনশীল শিক্ষাব্যবস্থায় নোট গাইডের প্রয়োজন নেই। মন্ত্রী আরও বলেছেন, অনেক প্রতিষ্ঠানের কিছু শিক্ষক নোট গাইড প্রকাশকের কাছ থেকে আর্থিক সুবিধা নেন, ছাত্র-ছাত্রীদের নোট গাইড কিনতে বাধ্য করেন বলেও অভিযোগ করেন মন্ত্রী। এসব বন্ধে জেলা প্রশাসকদের আরও তৎপর হতে হবে বলে জানান তিনি।

করোনায় আরও ৫৫ জনের মৃত্যু, নতুন শনাক্ত ২ হাজার ৭৩৮ - dainik shiksha করোনায় আরও ৫৫ জনের মৃত্যু, নতুন শনাক্ত ২ হাজার ৭৩৮ সৌদি আরবে থেকেও নিয়মিত হাজিরা, এমপিওভুক্তি! - dainik shiksha সৌদি আরবে থেকেও নিয়মিত হাজিরা, এমপিওভুক্তি! শিক্ষায় বঙ্গবন্ধুর অবদান নিয়ে লেখা আহ্বান - dainik shiksha শিক্ষায় বঙ্গবন্ধুর অবদান নিয়ে লেখা আহ্বান শিক্ষক প্রশিক্ষণের নামে টেসলের বিরুদ্ধে প্রতারণার অভিযোগ - dainik shiksha শিক্ষক প্রশিক্ষণের নামে টেসলের বিরুদ্ধে প্রতারণার অভিযোগ সরকারি স্কুল-কলেজের কর্মচারীদের অনলাইনে পিডিএস পূরণ শুরু ৭ জুলাই - dainik shiksha সরকারি স্কুল-কলেজের কর্মচারীদের অনলাইনে পিডিএস পূরণ শুরু ৭ জুলাই অটোপাস দিতে পারবে স্কুল-কলেজগুলো - dainik shiksha অটোপাস দিতে পারবে স্কুল-কলেজগুলো গতবছরের উপবৃত্তি : সেকায়েপভুক্ত ৩৬ উপজেলার শিক্ষার্থীদের তথ্য পাঠাতে হবে ১২ জুলাইয়ের মধ্যে - dainik shiksha গতবছরের উপবৃত্তি : সেকায়েপভুক্ত ৩৬ উপজেলার শিক্ষার্থীদের তথ্য পাঠাতে হবে ১২ জুলাইয়ের মধ্যে পলিটেকনিকে ভর্তিতে বয়সসীমা: মন্ত্রণালয়ের ঘোষণার তীব্র বিরোধীতায় আইডিইবি - dainik shiksha পলিটেকনিকে ভর্তিতে বয়সসীমা: মন্ত্রণালয়ের ঘোষণার তীব্র বিরোধীতায় আইডিইবি এমপিওভুক্ত হলেন আরও ৭৩ শিক্ষক - dainik shiksha এমপিওভুক্ত হলেন আরও ৭৩ শিক্ষক বিনামূল্যে আন্তর্জাতিক মানের ডিজিটাল কনটেন্ট দিচ্ছে টিউটর্সইঙ্ক - dainik shiksha বিনামূল্যে আন্তর্জাতিক মানের ডিজিটাল কনটেন্ট দিচ্ছে টিউটর্সইঙ্ক শিক্ষকদের ফ্রি অনলাইন প্রশিক্ষণ চলছে - dainik shiksha শিক্ষকদের ফ্রি অনলাইন প্রশিক্ষণ চলছে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া - dainik shiksha জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া please click here to view dainikshiksha website