রাজশাহী মেডিকেলের ছাত্রীনিবাসে বহিরাগত, নিরাপত্তাকর্মী বরখাস্ত - মেডিকেল ও কারিগরি - Dainikshiksha

রাজশাহী মেডিকেলের ছাত্রীনিবাসে বহিরাগত, নিরাপত্তাকর্মী বরখাস্ত

রাজশাহী প্রতিনিধি |

ভোররাতে  রাজশাহী মেডিকেল কলেজের পলিন ছাত্রীনিবাসে একজন বহিরাগত ঢুকে পড়েন। এতে শিক্ষার্থীদের মধ্যে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। শনিবার (২৫ মে)  আবদুল হামিদ (৬০) নামের ওই ব্যক্তিকে  পুলিশে সোপর্দ করা হয়েছে। তাঁর বাড়ি রাজশাহী নগরের কাশিয়াডাঙ্গা মিঞাপাড়া এলাকায়। তবে পুলিশ বলছে, ওই ব্যক্তি মানসিক ভারসাম্যহীন। দায়িত্বে অবহেলার কারণে নিরাপত্তাকর্মী হাসিবুল হাসানকে বরখাস্ত  করেছে কলেজ কর্তৃপক্ষ।

ছাত্রীনিবাসের একাধিক শিক্ষার্থী জানিয়েছেন, সাহ্‌রি খাওয়ার পর তাঁরা ঘুমিয়ে পড়েন। এমন সময় নিরাপত্তাকর্মীর দায়িত্বে অবহেলার সুযোগে এক লোক ছাত্রীনিবাসের দ্বিতীয় তলার একটি কক্ষে ঢুকে পড়েন। টের পেয়ে মেয়েরা চিৎকার শুরু করেন। তাঁরা তাদের কক্ষ থেকে বেরিয়ে লোকটিকে কক্ষের ভেতরে আটকে দেন। পরে ব্লকের অন্য মেয়েরা গিয়ে লোকটিকে ধরে ফেলেন। তাঁরা নিচের কলাপসিবল গেটও বন্ধ করে দেন। পরে ছাত্রীনিবাসের তত্ত্বাবধায়ককে খবর দেওয়া হলে তিনি বিষয়টি পুলিশকে জানান।

এ ব্যাপারে রাজশাহী মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ নওশাদ আলী বলেন, এ ঘটনার পর মেয়েরা তাঁর কাছে এসেছিলেন। তিনি ছাত্রীনিবাস পরিচালনা কমিটির সঙ্গে বৈঠক করে দায়িত্বে থাকা নিরাপত্তাকর্মীকে বরখাস্ত করেছেন।

রাজপাড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) হাফিজুর রহমান বলেন, যে লোকটি ওখানে ঢুকেছিলেন, তিনি আসলে মানসিকভাবে ভারসাম্যহীন। তাঁর পরিবারের লোকজন তাঁকে তিন দিন ধরে খুঁজছিলেন। তাঁরা মানসিক হাসপাতালে ভর্তির কাগজপত্র নিয়ে এসেছিলেন। তাঁকে তিনবার সেখানে ভর্তি করা হয়েছিল। কোনো মামলা দেয়া হবে কি না, জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘পাগলের নামে তো কোনো মামলা হয় না। তিনি ইতোমধ্যেই হাজতখানা ভেঙে ফেলার চেষ্টা করেছেন।’

থানায় আটক আবদুল হামিদ বলছেন, তাঁর জামা হারিয়ে গেছে, সেই জামা খুঁজতে তিনি সেখানে গিয়েছিলেন। ১০০ মেয়ে তাঁকে ঘিরে ধরেছিলেন। মেয়েরা তাঁকে মেরেছেন।

প্রাথমিক সমাপনী পরীক্ষায়ও থাকছে না জিপিএ ৫ - dainik shiksha প্রাথমিক সমাপনী পরীক্ষায়ও থাকছে না জিপিএ ৫ প্রাথমিকের প্রতিটি শিশুই হবে ডিকশনারি: গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী - dainik shiksha প্রাথমিকের প্রতিটি শিশুই হবে ডিকশনারি: গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী সাধারণ শিক্ষায় কারিগরি ট্রেড ও শিক্ষামন্ত্রীর ব্যাখ্যা (ভিডিও) - dainik shiksha সাধারণ শিক্ষায় কারিগরি ট্রেড ও শিক্ষামন্ত্রীর ব্যাখ্যা (ভিডিও) জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ে অনার্স ভর্তির যোগ্যতা নির্ধারণ - dainik shiksha জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ে অনার্স ভর্তির যোগ্যতা নির্ধারণ নবজাগরণের অগ্রদূত আহমদ ছফা অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশের স্বপ্ন দেখতেন - dainik shiksha নবজাগরণের অগ্রদূত আহমদ ছফা অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশের স্বপ্ন দেখতেন মাদরাসায় নবসৃষ্ট পদ পূরণে টাকার হিসেব চেয়েছে মন্ত্রণালয় - dainik shiksha মাদরাসায় নবসৃষ্ট পদ পূরণে টাকার হিসেব চেয়েছে মন্ত্রণালয় এমপিওভুক্তিতে মহিলা কোটার পদ নির্ধারণে শাখাভিত্তিক আলাদা হিসাব নয় - dainik shiksha এমপিওভুক্তিতে মহিলা কোটার পদ নির্ধারণে শাখাভিত্তিক আলাদা হিসাব নয় ১৬তম শিক্ষক নিবন্ধনে আবেদন ১০ লাখ ৩৫ হাজার - dainik shiksha ১৬তম শিক্ষক নিবন্ধনে আবেদন ১০ লাখ ৩৫ হাজার ঢাকা বোর্ডে এসএসসির ট্রান্সক্রিপ্ট বিতরণ শুরু ২৫ জুন - dainik shiksha ঢাকা বোর্ডে এসএসসির ট্রান্সক্রিপ্ট বিতরণ শুরু ২৫ জুন জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া - dainik shiksha জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া please click here to view dainikshiksha website