please click here to view dainikshiksha website

শরীয়তপুরে এমপিওবিহীন কলেজ এইচএসসির ফলাফলে জেলায় প্রথম

শরীয়তপুর প্রতিনিধি | আগস্ট ৪, ২০১৭ - ৩:৫৮ অপরাহ্ণ
dainikshiksha print

চলতি বছরের এইচএসসি পরীক্ষার ফলাফলে শরীয়তপুর জেলার বি.এম. আইডিয়াল কলেজ জেলার সরকারি-বেসরকারি কলেজের মধ্যে প্রথম হয়েছে। বোর্ডের ঘোষিত ফলাফলে কলেজের ৮৯ দশমিক ৩৩ শতাংশ পরীক্ষার্থী পাস করে।

জেলার সদর উপজেলার প্রত্যন্ত চরাঞ্চলে ২০০৪ খ্রিস্টাব্দে প্রতিষ্ঠিত এই কলেজে বিনোদপুর, মাহমুদপুর, চন্দ্রপুর চিতলিয়া চিকন্দী ইউনিয়নের শিক্ষাথীরা পড়াশুনা করে। দীর্ঘ ১৪ বছর এমপিও বিহীন শিক্ষক-কর্মচারিরা শিক্ষার্থীদের বিনা বেতনে পড়া লেখা শিখিয়ে যাচ্ছেন। দীর্ঘদিন এমপিওহীন থাকার পরও জেলা শিক্ষার আলো ছড়িয়ে দিয়ে ২০১৭ খ্রিস্টাব্দের এইচএসসি পরীক্ষায় শরীয়তপুর জেলায় প্রথমস্থান অর্জন করে।

কলেজের প্রতিষ্ঠাতা এম.এ আলী বলেন, এই এলাকা শিক্ষায় অনেক পিছিয়ে থাকায় অন্ধকার কে আলোকিত করার জন্য কলেজটি ২০০৪ সালে সাবেক সংসদ সদস্য হেমায়েত উল্লাহ আওরঙ্গজের এর সহযোগিতায় প্রতিষ্ঠা করা হয়। ১৪বছর ধরে কলেজটি এমপিওবিহীন থাকায় শিক্ষক-কর্মচারিরা মানবেতর জীবন যাপন করছে। আমরা গর্ভণিং বডির সদস্যরা মাঝেমধ্যে কিছু টাকা দিয়ে থাকি। শিক্ষক-কর্মচারিরা তারপরও অন্তরিকতার সাথে তাদের দায়িত্ব পাল করে যাচ্ছে।

কলেজ গভর্নিং বডির সভাপতি ও বিনোদপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আব্দুল হামিদ সাকিদার বলেন, শরীযতপুর-১ আসনের এমপি বি.এম মোজাম্মেল হক এর সহযোগিতায় তথ্য ও প্রযুক্তির সহায়তায় শিক্ষার মান উন্নয়ন প্রকল্প থেকে একটি চারতলা ভবন নির্মান করা হয়েছে। এমপি মহোদয়ের সার্বিক তত্ত্বাবধানে কলেজেটি উন্নতির দিকে যাচ্ছে। আমি এ কলেজের সভাপতির পদ গ্রহনের পর থেকে ফলাফল ভাল হচ্ছে।

তিনি আরো বলেন, এ বছর এইচ.এস.সি ফলাফলে আমার  কলেজটি  শরীয়তপুর জেলার সরকারি-বেসরকারি কলেজের মধ্যে প্রথম হয়েছে। আমি ভাল ফলাফলের জন্য শিক্ষক ও পরীক্ষার্থীদের অভিনন্দন জানাই। শিক্ষক –কর্মচারিদের আর্থিক সমস্যা সমাধানে আমি নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছি।

কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ মোঃ  লোকমান হোসেন বলেন, সকল শিক্ষক নিবন্ধনধারী হয়েও অনেকের সরকারি চাকরির বয়স শেষ হয়ে গেছে। কলেজেটি  শিক্ষা মন্ত্রণালয় ও বোর্ডের সকল শর্ত পূরণ করার পর  ১৪ বছর যাবৎ এমপিওহীন। গভর্নিং বডি মাঝে মধ্যে কিছু টাকা দিলেও তা দিয়ে  জীবন যাপন করা সম্ভব নয়। আমরা শিক্ষার্থীদের কথা চিন্তা করে সেবা দিয়ে যাচ্ছি। ২০১৭ খ্রিস্টাব্দের এইচএসসি পরীক্ষায় ভাল করার পরও বর্তমানে শিক্ষক-কর্মচারিরা হতাশার মধ্যে রয়েছে। আমি প্রাধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নিকট অনুরোধ করছি আমার এ কলেজটি এমপিওভুক্ত করা প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণ করার জন্য।

সংবাদটি শেয়ার করুন:


পাঠকের মন্তব্যঃ ৯টি

  1. মিজানুর রহমান, বদরগন্জ ডিগ্রী কলেজ,চুয়াডাঙ্গা।। says:

    আর হয়ছে এমপিও।এদের জন্য কারো মন কাদে না। এরা যে একুশ শতকের শ্রমদাস।। মাঙনি সেবা পেলে আর কেবা টাকা দবতে চাই।। প্রধানমন্ত্রী র এই একুশ শতকের শ্রমদাসের দিকে ত্কানোর সময় নেই।

  2. মোঃ হবিবর রহমান, প্রভাষক, বীরগঞ্জ ডিগ্রী কলেজ, দিনাজপুর says:

    এমপিও ছাড়াও যে ভাল শেখানো যায়। এটা উদাহরন হিসাবে দেখিয়ে আগামীতে হয়ত অপেক্ষাকৃত খারাপ রেজাল্টের কলেজকে এমপিওবিহীন করা হতে পারে।

  3. Biddut Kumer Khan says:

    বর্তমান সরকারের সকল কর্ম-কান্ড বিশেষভাবে প্রশংসনীয়।আমার বিশেষ দাবি সকল বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান জাতীয়করণ করা হউক।

  4. ভূপাল প্রামানিক, প্র:শি: নামুজা উচ্চ বি: & সেক্রেটারি, বা: প্রধান শিক্ষক সমিতি, বগুড়া সদর। 01711 515468 says:

    Ok…

  5. jk raju says:

    Dear sir
    Govt.should, think for non mpo and mpo istitute.
    All nationalize.

  6. জহিরুল ইসলাম says:

    কেরানিগঞ্জে রাজাবাড়ি স্কুল অ্যান্ড কলেজ একমাত্র ১০০% পাস।

  7. M A YOUSUF LECTURER , CHARROSUNDI ,SHARIATPUR 01710-541839 says:

    আমি প্রাধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নিকট অনুরোধ করছি এ কলেজটি এমপিওভুক্ত করার প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণ করার জন্য।

  8. অরুন কুমার বর্ধন প্রভাষক, পূর্ব মাদারীপুর কলেজ, ডামুড্যা, শরীয়তপুর। says:

    দেশের সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান জাতীয়করণ করা একান্ত প্রয়োজন।

আপনার মন্তব্য দিন