শাবিতে চা-শ্রমিকের সন্তানদের জন্য ভর্তি কোটার সিদ্ধান্ত - বিশ্ববিদ্যালয় - Dainikshiksha

শাবিতে চা-শ্রমিকের সন্তানদের জন্য ভর্তি কোটার সিদ্ধান্ত

নিজস্ব প্রতিবেদক |

পিছিয়ে পড়া ও অনগ্রসর চা-শ্রমিকের সন্তানদের জন্য ভর্তিতে কোটা ব্যবস্থা চালুর সিদ্ধান্ত নিয়েছে সিলেটের শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়।

বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য ফরিদ উদ্দিন আহমেদ জানান, গত ৪ আগস্ট সিন্ডিকেট সভায় এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। ২০১৮-১৯ শিক্ষাবর্ষ থেকে স্নাতকে ‘চা শ্রমিক কোটায় চার জন করে শিক্ষার্থীকে ভর্তি করা হবে।

কোটা বিরোধী আন্দোলনে আলোচনা-সমালোচনার মধ্যে শাহজালাল বিশ্ববিদ্যালয়ের এ সিদ্ধান্ত হলেও তা ইতিবাচক বলে মনে করছেন চা-শ্রমিক সংশ্লিষ্টরা।

মুক্তিযোদ্ধা কোটায় ২৮, ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠী/জাতিসত্ত্বা/হরিজন-দলিত কোটায় ২৮, প্রতিবন্ধী কোটায় ১৪, বিকেএসপি কোটায় ৬, পোষ্য কোটা ২০ এবং এবারের চা-শ্রমিকের ৪ জনসহ মোট ১০০ শিক্ষার্থীকে এবার কোটায় ভর্তি করা হবে।

উপাচার্য ফরিদ উদ্দিন আহমেদ বলেন, “চা-শ্রমিকেরা এখনও অনগ্রসর। তাদের কমিউনিটিকে তুলে আনতে, তাদের জীবনমান উন্নয়নের লক্ষ্যে আমরা দেশের সকল বিশ্ববিদ্যালয়ের মধ্যে প্রথম এ উদ্যোগ নিয়েছি।”

এই কোটা ব্যবস্থায় এ জনগোষ্ঠীর মধ্যে উচ্চশিক্ষা গ্রহণের আগ্রহ বেড়ে যাবে বলে মনে করছেন চা-শ্রমিকদের নিয়ে কাজ করা বিভিন্ন সংগঠন ও গবেষকরা।  

চা-শ্রমিকদের জীবন ও সংস্কৃতি নিয়ে 'সিলেটের ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠী চা-শ্রমিকদের কৃত্য-নাট্য ও সংস্কৃতি শিরোনামে পিএইচডি করেছেন এ বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা বিভাগের অধ্যাপক আশ্রাফুল করীম।

তিনি বলেন, "চা-শ্রমিকরা তাদের মৌলিক অধিকার থেকে বঞ্চিত হয়ে আসছে। ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠী ও দলিত শ্রেণি কোটার মধ্যে তারা পড়লেও এ কোটা থেকে কোনো সুযোগ-সুবিধা তারা পাচ্ছে না।এখন তাদের জন্য আলাদা কোটা চালু হয়েছে। তাদের মধ্যে উচ্চশিক্ষার আগ্রহ সৃষ্টিতে এ ধরনের কোটা ইতিবাচক ভূমিকা রাখবে। তাদের মধ্যে শিক্ষার আলো পৌঁছালে সামগ্রিকভাবে তাদের জীবনমান উন্নত হবে।"

ট্রান্সপেরেন্সি ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশ (টিআইবি) এর অধীনে চা-শ্রমিকদের নিয়ে কাজ ও গবেষণা চালিয়ে যাচ্ছেন রবিউল ইসলাম। তিনি সিলেট বিভাগসহ মোট ছয়টি জেলার চা-বাগান নিয়ে গঠিত সিলেট ক্লাস্টারের ডেপুটি পোলার ম্যানেজারের দায়িত্বে আছেন।

উচ্চশিক্ষায় ভর্তিতে শাহজালাল বিশ্ববিদ্যালয়ের কোটা ব্যবস্থা চালুর প্রশংসা করে তিনি বলেন, “আমরা যখন চা-শ্রমিকদের কাছে যাই; তখন তাদের দুঃখ-কষ্ট আমরা কাছ থেকে দেখতে পাই। তারা বিশ্বাসই করে না তারা উচ্চশিক্ষা গ্রহণে সক্ষম বা উচ্চশিক্ষা তাদের জন্য।কোটা চালু হওয়ায় এখন তাদের শিক্ষার প্রতি আগ্রহ বাড়বে, প্রলুব্ধ হবে। তাদের মধ্যে এক ধরনের নিশ্চয়তা কাজ করবে।”

সিলটে ১৯টি এবং মৌলভীবাজারে ৯১টি চা-বাগান রয়েছে।

তাদের মধ্যে একজন লাক্কাতুরা চা বাগানের শ্রমিক শান্তিলাল গোয়ালা বলেন, “নানা সমস্যার কারণে আমাদের সন্তানেরা ভালোভাবে পড়াশোনা চালিয়ে যেতে পারে না। আমরা বিভিন্ন সুযোগ-সুবিধা থেকেও বঞ্চিত। কোটার মাধ্যমে আমাদের সন্তানদের সুযোগ দিলে তারা ভালো কিছু করতে পারবে।”  

বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে অধ্যয়নরত চা শ্রমিক সন্তানদের সমন্বয়ে গঠিত সংগঠন বিশ্ববিদ্যালয় চা ছাত্র সংসদের সহ-সভাপতি দেবাশীষ যাদব বলেন, “একটি শিক্ষিত জাতি পারে দেশকে সমৃদ্ধির পথে নিয়ে যেতে। শিক্ষাক্ষেত্রে বিপ্লব ঘটলে পরিবর্তন আসবেই। বাংলাদেশে পিছিয়ে পড়া জনগোষ্ঠী হিসেবে চা জনগোষ্ঠীকে শিক্ষাক্ষেত্রে এগিয়ে নিয়ে যেতে তথা দেশের কল্যাণে চা শ্রমিক কোটা সুবিধা অগ্রণী ভূমিকা পালন করবে।”

ফরম পূরণে অতিরিক্ত টাকা আদায় ঠেকাতে ১০ কমিটি - dainik shiksha ফরম পূরণে অতিরিক্ত টাকা আদায় ঠেকাতে ১০ কমিটি এমপিওভুক্ত হচ্ছেন স্কুল-কলেজের ১১২৪ শিক্ষক - dainik shiksha এমপিওভুক্ত হচ্ছেন স্কুল-কলেজের ১১২৪ শিক্ষক নভেম্বরের এমপিওতেই ৫ শতাংশ প্রবৃদ্ধি - dainik shiksha নভেম্বরের এমপিওতেই ৫ শতাংশ প্রবৃদ্ধি ফরম পূরণে অতিরিক্ত টাকা আদায় বন্ধের নির্দেশ শিক্ষামন্ত্রীর - dainik shiksha ফরম পূরণে অতিরিক্ত টাকা আদায় বন্ধের নির্দেশ শিক্ষামন্ত্রীর শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ট্রাফিক সার্কুলেশন প্ল্যান তৈরির নির্দেশ - dainik shiksha শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ট্রাফিক সার্কুলেশন প্ল্যান তৈরির নির্দেশ এমপিওভুক্ত হচ্ছেন মাদরাসার ২০৭ শিক্ষক - dainik shiksha এমপিওভুক্ত হচ্ছেন মাদরাসার ২০৭ শিক্ষক ২৮৮ তৃতীয় শিক্ষককে এমপিওভুক্তির সিদ্ধান্ত - dainik shiksha ২৮৮ তৃতীয় শিক্ষককে এমপিওভুক্তির সিদ্ধান্ত জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া - dainik shiksha জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া please click here to view dainikshiksha website