শিক্ষকতা থেকে সিএনজি ছিনতাইকারী চক্রের নেতা! - স্কুল - দৈনিকশিক্ষা

শিক্ষকতা থেকে সিএনজি ছিনতাইকারী চক্রের নেতা!

মুন্সীগঞ্জ প্রতিনিধি |

মুন্সীগঞ্জের শ্রীনগর উপজেলার বিবন্দী বাগবাড়ি গ্রামের মারফত আলী শেখের ছেলে হাবীবুর রহমান শামীম। পড়ালেখা শেষ করে নিজ গ্রামের বর্ণমুখর কিন্ডার গার্টেনে শিক্ষকতা শুরু করেন। পাশাপাশি কোচিং সেন্টারে পড়াতেন। কয়েক বছর আগে কিন্ডার গার্টেনের শিক্ষকতা বাদ দিয়ে চলে যান ঢাকার কেরাণীগঞ্জে। সেখানে কখনো শামীম কখনো শাকিলসহ বিভিন্ন ছদ্মনাম ধারণ করে জড়িয়ে পড়েন নানা অপকর্মে। এক সময় নিজেই গড়ে তোলেন সিএনজি ছিনতাইকারী চক্র।

হাবীবুর রহমান শামীম মাঝে মাঝে এলাকায় আসতেন। এলাকার লোকজন তাকে শিক্ষিত ভদ্রলোক হিসাবেই চেনেন। কিন্তু হাবীব এই কাজের হোতা এটা জানার পর এলাকার লোকজনের কাছে তা অবিশ্বাস্য মনে হয়।

হাবীবের সংগঠিত করা চক্রটি ঢাকা-কেরাণীগঞ্জ ও পার্শ্ববর্তী এলাকা থেকে যাত্রী সেজে সিএনজি ভাড়া করে নির্জন এলাকায় নিয়ে তা ছিনতাই করত। ছিনতাইয়ের আগে কখনো কখনো চালককে কোমল পানীয়ের সাথে খাওয়ানো হতো ঘুমের ঔষধ। সিএসজি চালক যাতে সন্দেহ করতে না পারে এজন্য হাবীব তার ৪র্থ স্ত্রী মায়ানুর সুমীকে ছিনতাইকারী চক্রের সদস্য করে নেয়।

বুধবার (৮ জুলাই) দুপুরে শ্রীনগর থানার ওসি হেদায়াতুল ইসলাম ভূঞা সংবাদ সম্মেলনে এই তথ্য দেন। তিনি জানান, হাবীব ও তার স্ত্রীসহ এই চক্রের ৪ সদস্যকে মঙ্গলবার দুপুরে শ্রীনগর উপজেলার কেসি রোডের তন্তর ইউনিয়নের সুফিগঞ্জ এলাকায় সিএনজি চালককে অস্ত্রের মুখে ছিনতাইয়ের সময় স্থানীয় লোকজনের সহায়তায় পুলিশ আটক করে।

পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদে হাবীব জানান, তারা কয়েকদিন আগে প্ল্যান করে সিএনজি ভাড়া করে শ্রীনগর উপজেলার আলমপুর-বাড়ৈখালী সড়কের নির্জনস্থানে এনে তা ছিনতাই করবে। পরিকল্পনা মতো মঙ্গলবার সকাল ১০টার দিকে চালক রানা হাওলাদারের সিএনজিটি কেরাণীগঞ্জের খোলামোড়া থেকে ৫ জন মিলে ভাড়া করেন। বেলা ১১টার দিকে আলমপুর-বাড়ৈখালী সড়কের মাঝা মাঝি এসে তারা সিএনজি থেকে নামে। এ সময় হাবীবের স্ত্রী সুমী চালক রানা হাওলাদারকে ঘুমের ঔষধ মেশানো পানীয় খেতে বললে তিনি প্রত্যাখ্যান করেন। পরে তারা পরিকল্পনা পরিবর্তন করেন। হাঁসাড়া বাজারে এসে চালক রানার হাত-পা বাধার জন্য নাইলনের রশি কেনেন। সেখানে কিছুক্ষণ অবস্থানের পর তারা সিএনজিতে উঠে কি সে রোডের নির্জন স্থানে নিয়ে আসেন। এ সময় হাবীব চালক রানার গলায় ছুরি ধরে রাখে। বাকীরা তার হাত-পা বাঁধা শুরু করলে তিনি সিএনজি থেকে লাফিয়ে পড়ে চিৎকার শুরু করেন।

তার চিৎকারে আশপাশের লোকজন এসে পাভেল, ফজলুল করিম ও সুমীকে আটক করে। হাবীব ও শান্ত ওরফে জি এম পুকুরে ঝাপ দিয়ে কচুরি পানার নিচে লুকিয়ে থাকে। বিকাল ৪টার দিকে হাবীব কচুরি পানা থেকে উঠে আসার সময় স্থানীয়রা তাকে আটক করে পাশেই অবস্থান নেওয়া পুলিশের হাতে তুলে দেয়।

ওসি হেদায়াতুল ইসলাম আরো বলেন, হাবীব ও তার স্ত্রী সুমির বিরুদ্ধে কেরাণীগঞ্জ থানায় দ্রুত বিচার আইনে মামলা রয়েছে। হাবীব শুভাঢ্যা পশ্চিম পাড়ার সুমন মিয়ার বাড়ির ভাড়াটিয়া। স্ত্রী সুমীর বাবার বাড়িও ওই এলাকায়। তার বাবার নাম আলী হোসেন। ছিনতাইকারী চক্রের বাকী ৩ জনের মধ্যে পাভেলের বাড়ি ময়মনসিংহের ওয়ারলেছ গেট এলাকায়। ফজলুল করিমের বাড়ি শরিয়তপুরের নড়িয়া উপজেলার গৌড়িসার বাজার গ্রামে। পলাতক শান্ত কামরাঙ্গীন চরের বাদশা মিয়ার গলির ভাড়াটিয়া। অনেকদিন ধরে হাবীবের নেতৃত্বে চক্রটি একই কায়দায় সিএনজি ছিনতাই করে আসছে। তাদের বিরুদ্ধে শ্রীনগর থানায় মামলা হয়েছে।

Admission going on at Navy Anchorage School and College Chattogram - dainik shiksha Admission going on at Navy Anchorage School and College Chattogram একাদশ শ্রেণিতে ভর্তির আবেদন করবেন যেভাবে - dainik shiksha একাদশ শ্রেণিতে ভর্তির আবেদন করবেন যেভাবে please click here to view dainikshiksha website