শিক্ষকদের উচ্চতর গ্রেড: কে পাবেন, কে পাবেন না - এমপিও - দৈনিকশিক্ষা

শিক্ষকদের উচ্চতর গ্রেড: কে পাবেন, কে পাবেন না

খন্দকার মো. মাকসুদুর রহমান |

২০১৫ খ্রিষ্টাব্দের ১৫ ডিসেম্বর জারি করা জাতীয় বেতন স্কেলের অনুচ্ছেদ (৬) অনুযায়ী সিলেকশন গ্রেড, টাইম স্কেল চাকরির বেতন-ভাতাদি বিলুপ্ত করা হয়েছে। ইতোপূর্বে ২০১৩ খ্রিষ্টাব্দের জনবল কাঠামো নির্দেশিকার অনুচ্ছেদ ১১.৭ ও ১১.৮ অনুযায়ী বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক-কর্মচারীরা চাকরির ৮ বছর পূরণ হওয়ার পর পুরো চাকরিজীবনের একমাত্র সিলেকশন গ্রেড বা টাইম স্কেলটি পেতেন।

২০১৫ খ্রিষ্টাব্দের ১ জুলাই থেকে কার্যকর হওয়া অর্থ মন্ত্রণালয়ের অর্থ বিভাগের চাকরি আদেশের অনুচ্ছেদ ৭ অনুযায়ী, উচ্চতর গ্রেড প্রাপ্যতার যোগ্যতাগুলো হলো- ৭(১) অনুযায়ী কোনো স্থায়ী কর্মচারী পদোন্নতি ব্যতিরেকে একই পদে ১০ বছর পূর্তিতে এবং চাকরি সন্তোষজনক হওয়া সাপেক্ষে স্বয়ংক্রিয়ভাবে ১১তম বছরে পরবর্তী উচ্চতর গ্রেডে বেতন প্রাপ্য হবেন। ৭(২) অনুযায়ী কোনো স্থায়ী কর্মচারী ১০ বছর পূতিতে উচ্চতর গ্রেডে বেতন প্রাপ্তির পরবর্তী ৬ বছর পদোন্নতি প্রাপ্ত না হলে ৭ম বছরে চাকরি সন্তোষজনক হওয়া সাপেক্ষে স্বয়ংক্রিয়ভাবে পরবর্তী গ্রেডে বেতন প্রাপ্ত হবেন।

২০১৬ খ্রিষ্টাব্দের ৯ সেপ্টেম্বর অর্থ বিভাগের অনুবিভাগ বাস্তবায়ন শাখা-১ থেকে ২০১৫ খ্রিষ্টাব্দের জাতীয় বেতন স্কেল অনুযায়ী উচ্চতর গ্রেড প্রাপ্যতা নিয়ে স্পষ্টীকরণ সংক্রান্ত একটি পরিপত্র জারি করা হয়, যা মহামান্য হাইকোর্ট অকার্যকর ঘোষণা করে রায় প্রকাশ করেন এবং এ রায়ের বিপরীতে উচ্চ আদালতে আপিল মামলা চলমান আছে। হিসাব মহানিয়ন্ত্রকের কার্যালয় থেকে গত ২০১৮ খ্রিষ্টাব্দের ১৬ সেপ্টেম্বর চিঠি পাঠিয়ে অনুচ্ছেদ ৭ এর ব্যাপারে জানতে চাইলে এ বিষয়ে মামলা বিচারাধীন থাকায় মতামত বা নির্দেশনা প্রদান করার কোনো সুযোগ নেই বলে জানায় অর্থ মন্ত্রণালয়।

গত ৩১ মে অর্থ বিভাগের অনুবিভাগ বাস্তবায়ন-২ অধিশাখার এক চিঠিতে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগের সচিবকে এমপিওভুক্ত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষক-কর্মচারীদের উচ্চতর স্কেল প্রদানের বিষয়ে মতামত দেয়া হয়। তাতে বলা হয়- (ক) বেসরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের (স্কুল ও কলেজ) জনবল কাঠামো এবং এমপিও নীতিমালা, ২০১৮ এর ১১(৫) অনুচ্ছেদ অনযায়ী এমপিও ভুক্ত শিক্ষক-কর্মচারীরা এমপিওভুক্তির তারিখ থেকে পদোন্নতি বা টাইম স্কেল বা অন্য কোনোভাবে উচ্চতর স্কেল না পেয়ে থাকলে জাতীয় বেতন স্কেল ২০১৫, ৭(১) নং অনুচ্ছেদ অনুযায়ী ১০ বছর সন্তোষজনক চাকরি পূর্তিতে পরবর্তী গ্রেডে একটি উচ্চতর স্কেল প্রাপ্য হবেন। (খ) অর্থ বিভাগ কর্তৃক জারিকৃত ২০১৬ খ্রিষ্টাব্দের ২১ সেপ্টেম্বর ২৩২নং পরিপত্রটি মহামান্য হাইকোর্ট বিভাগ কর্তৃক অকার্যকর ঘোষণা করা হয়েছে এবং এ রায়ের বিপরীতে উচ্চ আদালতে আপিল মামলা চলমান আছে বিধায় আপিল নিষ্পত্তি না হওয়া পর্যন্ত জাতীয় বেতন স্কেল ২০১৫ এর ৭(২) নং অনুচ্ছেদের বিষয়ে করণীয় কিছু নেই।

গত ৭ জুন মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগ এক চিঠিতে অর্থ বিভাগের নির্দেশনা মোতাবেক মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালককে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়ার নির্দেশনা প্রদান করেন। সেই লক্ষ্যে ১০ জুন এক চিঠিতে মাঠ পর্যায়ের কর্মকর্তাদের প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়ার নির্দেশনা দেন অধিদপ্তরের মহাপরিচালক।

গত ৩১ মে অর্থ মন্ত্রণালয়ের বাস্তবায়ন অনুবিভাগ-২ অধিশাখার প্রকাশিত চিঠির অনুচ্ছেদ ‘ক’ বিশ্লেষণ করলে উচ্চতর স্কেল কারা পাবেন, কারা পাবেন না ব্যাপারটি পরিষ্কার হবে। ‘ক’ অনুচ্ছেদে দুটি বিধিমালার কথা বলা হয়েছে। প্রথমত: বেসরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের জনবল কাঠামো এবং এমপিও নীতিমালা ২০১৮ এর ১১( ৫) অনুচ্ছেদ এবং অর্থ মন্ত্রণালয়ের জাতীয় বেতন স্কেল ২০১৫ এর ৭(১) অনুচ্ছেদের সাথে সংযোজন হয়েছে এমপিওভুক্ত শিক্ষক-কর্মচারীরা এমপিওভুক্তির তারিখ থেকে পদোন্নতি বা টাইমস্কেল বা অন্য কোনোভাবে উচ্চতর স্কেলের কথা।

পদোন্নতির বিধান বেসরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে এমপিও নীতিমালায় নেই। জনবল কাঠামো ২০১৩ এর অনুচ্ছেদ ১০ এ বলা হয়েছিল শিক্ষক নিয়োগ, বদলি ও পদোন্নতি ব্যবস্থাপনার জন্য একটি নির্দেশিকা প্রণয়ন করা হবে।

টাইম স্কেল সংক্রান্ত বিধিমালা জাতীয় বেতন স্কেল ২০১৫ এর ৬ অনুচ্ছেদ অনুযায়ী বিলোপ করা হয়েছে। যে সকল শিক্ষক ইতোমধ্যে টাইম স্কেল পেয়েছেন তারা এ নিয়মের আওতায় পড়বেন না।

অন্য কোনোভাবে উচ্চতর স্কেল বলতে, যে শিক্ষক যোগদানের পর এমপিওভুক্ত হয়ে সহকারী প্রধান শিক্ষক বা প্রধান শিক্ষক হিসেবে যোগদান করেছেন তিনি এ উচ্চতর গ্রেড পাবেন না। অভিজ্ঞতার আলোকেই সহকারী প্রধান শিক্ষক ও প্রধান শিক্ষক নিয়োগ প্রদান করা হয়।

সবচেয়ে প্রাসঙ্গিকভাবে যে কথাটি এখন আলোচিত হচ্ছে তা হলো বিএডধারীদের নিয়ে। বিএড স্কেল প্রাপ্তরা কি উচ্চতর স্কেল পাবেন? যদি উচ্চতর স্কেল পান, কখন থেকে? বিএড স্কেল প্রাপ্তি থেকে! না এমপিওভুক্তির তারিখ থেকে?

জনবল কাঠামো ২০১৮ এর ১১ (৩) ‘ক’ এবং ‘খ’ অনুচ্ছেদে বলা হয়েছে, শিক্ষায় ডিগ্রি (বিএড/ ডিপ-ইন-এড/বিএম এড/সমমান-যাদের ক্ষেত্রে সকল ডিগ্রি প্রযোজ্য) না থাকলে ৫ বছরের মধ্যে এ ডিগ্রি অর্জন করতে হবে। এ ডিগ্রি শুধু ১০ম গ্রেড প্রাপ্তির জন্য, অন্য কোনো উচ্চতর গ্রেডের জন্য নয়। শিক্ষায় ডিগ্রি অর্জিত হয় সনদপত্রের ভিত্তিতে আর টাইম স্কেলে বা উচ্চতর স্কেল অর্জিত হয় অভিজ্ঞতার আলোকে।

জাতীয় বেতন স্কেল ২০১৫ এর ৭(১) অনুচ্ছেদ একই পদে ১০ বছরের চাকরির কথা বলা হয়েছে, একই স্কেলে ১০ বছরের চাকরির কথা বলা হয়নি। বিএড-এর কারণে পদ পরিবর্তন হয় না, শুধু স্কেল পরিবর্তন হয়। কৃষি, ধর্ম, আইসিটি ১০ম গ্রেডে বেতন পায় বিএড ডিগ্রি ছাড়া। শিক্ষায় এ সকল ডিগ্রিকে অন্যান্য ডিগ্রির মতো বিশেষায়িত ডিগ্রি হিসেবে বিবেচিত করতে হবে।

উচ্চতর গ্রেড প্রাপ্তির প্রকৃত বিষয়গুলো নিম্নরূপ (যা একান্তই আমার নিজস্ব মতামত):

১. কোনো এমপিওভুক্ত শিক্ষক-কর্মচারী একই পদে সন্তোষজনকভাবে ১০ বছর পূর্তিতে পরবর্তী গ্রেডে একটি উচ্চতর স্কেল প্রাপ্য হবেন।
২. যে সকল শিক্ষকদের জন্য শিক্ষায় ডিগ্রি অর্জন করা বাধ্যতামূলক তাদেরকে উচ্চতর গ্রেড পেতে হলে এ ডিগ্রি অর্জন করতে হবে।
৩. যেসব শিক্ষক নির্ধারিত সময়ের মধ্যে শিক্ষায় ডিগ্রি অর্জন করেছেন, সেসব শিক্ষক বিএড ডিগ্রি অর্জনের তারিখ থেকে নয়, এমপিওভুক্তির তারিখ থেকে সন্তোষজনকভাবে ১০ বছর পূর্তিতে উচ্চতর স্কেল প্রাপ্য হবেন।
৪. চাকরির ধারাবাহিকতা থাকতে হবে।
৫. উক্ত চাকরিকাল সন্তোষজনক হতে হবে।  

লেখক : খন্দকার মো. মাকসুদুর রহমান, উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার, মাদারীপুর সদর।

স্কুল-কলেজের অনলাইন ক্লাস নিয়ে অধিদপ্তরের যেসব নির্দেশনা - dainik shiksha স্কুল-কলেজের অনলাইন ক্লাস নিয়ে অধিদপ্তরের যেসব নির্দেশনা শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের নির্দেশ অমান্য করে হাটহাজারী মাদরাসায় পরীক্ষা - dainik shiksha শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের নির্দেশ অমান্য করে হাটহাজারী মাদরাসায় পরীক্ষা জটিলতায় সাড়ে তিন লাখ প্রাথমিক শিক্ষকের বেতন - dainik shiksha জটিলতায় সাড়ে তিন লাখ প্রাথমিক শিক্ষকের বেতন শীতে করোনা পরিস্থিতি আরো খারাপ হতে পারে: প্রধানমন্ত্রী - dainik shiksha শীতে করোনা পরিস্থিতি আরো খারাপ হতে পারে: প্রধানমন্ত্রী উচ্চতর গ্রেড নিয়ে এখনও যত জটিলতা - dainik shiksha উচ্চতর গ্রেড নিয়ে এখনও যত জটিলতা শিক্ষক নিয়োগ-সনদ যাচাইয়ের নামে প্রতারণা, এনটিআরসিএর সতর্কীকরণ - dainik shiksha শিক্ষক নিয়োগ-সনদ যাচাইয়ের নামে প্রতারণা, এনটিআরসিএর সতর্কীকরণ অনৈতিক কাজের ভিডিও ফাঁস: প্রধান শিক্ষককে অব্যাহতি - dainik shiksha অনৈতিক কাজের ভিডিও ফাঁস: প্রধান শিক্ষককে অব্যাহতি ‘টেনশনে’ হৃদযন্ত্রের ক্রিয়া বন্ধ হয়ে আহমদ শফীর মৃত্যু, দাবি ছেলের - dainik shiksha ‘টেনশনে’ হৃদযন্ত্রের ক্রিয়া বন্ধ হয়ে আহমদ শফীর মৃত্যু, দাবি ছেলের নতুন নিয়োগ সুপারিশ পাবেন যোগদান ও এমপিওবঞ্চিত প্রার্থীরা (ভিডিও) - dainik shiksha নতুন নিয়োগ সুপারিশ পাবেন যোগদান ও এমপিওবঞ্চিত প্রার্থীরা (ভিডিও) please click here to view dainikshiksha website