শিক্ষকদের কর্মসূচিতে পুলিশের বাধা, আটক ৫ - স্কুল - দৈনিকশিক্ষা

শিক্ষকদের কর্মসূচিতে পুলিশের বাধা, আটক ৫

নিজস্ব প্রতিবেদক |
সরকারিকরণের দাবিতে বেসরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকদের কর্মসূচিতে বাধা দিয়েছে পুলিশ। এ সময় ৫ শিক্ষককে আটক করা হয়। আটককৃত শিক্ষকরা হলেন আনোয়ার, বদরুল আমিন, নিগার সুলতানা, লিলা রানী দাস, শেখ শিখা। নতুন করে আর কোনো প্রাথমিক বিদ্যালয় সরকারিকরণ করা হবে না জানার পরও বৃহস্পতিবার (৬ সেপ্টেম্বর) সকাল ১০টায় জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে ফের অবস্থান নিয়ে বাংলাদেশ বেসরকারি প্রাথমিক শিক্ষক সমিতির ব্যানারে কর্মসূচি পালন করার সময় এ আটকের ঘটনা ঘটে। আটককৃত শিক্ষকদের শাহবাগ থানায় নিয়ে যাওয়া হয়েছে।
 

সমিতির সভাপতি মামুনুর রশিদ খোকন দৈনিকশিক্ষা ডটকমকে বলেন, আমাদের পূর্বঘোষিত শান্তিপূর্ণ অবস্থান কর্মসূচি পালন করতে দেয়নি পুলিশ। এমনকি  আমাদের ৫ শিক্ষককে আটক করে নিয়ে গেছে পুলিশ। এখন আন্দোলন  ছাড়া দাবি আদায়ে আমাদের সামনে আর কোনো পথ খোলা নেই ।  সরকারিকরণের দাবি বাস্তবায়নে আমরা ফের জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে অবস্থান নেয়ার চেষ্টা করবো।  সারাদেশ থেকে প্রায় ১০ হাজার শিক্ষক অবস্থান কর্মসূচিতে অংশ নিতে ঢাকায় এসেছে।তারা পুলিশের বাধায় প্রেস ক্লাবের সামনে দাঁড়াতে না পেরে বিভিন্ন অলিগলিতে অবস্থান নিয়েছে। আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটি মিলনায়তনে সংবাদ সম্মেলনে পরবর্তী কর্মসূচি ঘোষণা করা হবে বলে তিনি জানান। 

বর্তমান সরকারের আমলে ২০১৩ খ্রিস্টাব্দের ৯ জানুয়ারি সারাদেশের ২৬ হাজার ১৯৩টি বেসরকারি রেজিস্টার্ড প্রাথমিক বিদ্যালয়কে সরকারিকরণ করা হয়। তবে সে সময়ে বেসরকারি বিদ্যালয়ের সংখ্যা যথাযথভাবে পরিসংখ্যান করা হয়নি। ফলে সারাদেশের ৪ হাজার ১৫৯টি বেসরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় সরকারিকরণের সুযোগ থেকে বঞ্চিত হয়।

সরকারিকরণের দাবিতে তৃতীয় ধাপেও বাদ পড়া এই বিদ্যালয়গুলোর শিক্ষকরা গত ২১ জানুয়ারি জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে প্রথমে অবস্থান ধর্মঘট পালন করেন। পরে ২৬ জানুয়ারি থেকে আমরণ অনশন কর্মসূচিও শুরু করেছিলেন তারা। পরে তিনজন সচিবের আশ্বাসে ৭ ফেব্রুয়ারি অনশনের ১৮ দিন পর কর্মসূচি স্থগিত করে বাড়ি ফিরে যান। কিন্তু এখন পর্যন্ত সরকার বাদপড়া ৪ হাজার ১৫৯টি বেসরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় সরকারিকরণের দাবির বিষয়ে দৃশ্যমান কোনো পদক্ষেপ না নেয়ায় শিক্ষকদের মধ্যে হতাশা নেমে আসে।

গত ৮ জুলাই সচিবালয়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রী মোস্তাফিজুর রহমান প্রাথমিক পর্যায়ে নতুন করে আর কোনো বিদ্যালয় সরকারিকরণ করা হবে না বলে  ইঙ্গিত দেন। মন্ত্রী বলেন, সারাদেশে ৬৫ হাজারের বেশি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় রয়েছে। এমন কোনো স্থান নেই যেখানে দুই কিলোমিটারের মধ্যে সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় নেই। তাই নতুন করে আর কোনো প্রাথমিক বিদ্যালয় সরকারিকরণ করার পরিকল্পনা নেই সরকারের।

তিনি বলেন, সম্প্রতি প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনায় ২৬ হাজারের বেশি প্রাথমিক বিদ্যালয় সরকারিকরণ করা হয়েছে। তবে প্রক্রিয়াধীন ৩২টি প্রতিষ্ঠান সেপ্টেম্বরের মধ্যে সরকারিকরণ হবে। এগুলো প্রধানমন্ত্রী ঘোষিত ২৬ হাজারের মধ্যে রয়েছে।

সরকারিকরণের দাবিতে বিভিন্ন সময়ে বেসরকারি প্রাথমিক শিক্ষক সমিতির অনশন এবং তাদের হিসাব মতে বাদপড়া চার হাজার ১৫৯টি প্রতিষ্ঠানের ভাগ্য সম্পর্কে জানতে চাইলে মন্ত্রী স্পষ্ট করে বলেন, ‘আর কোনও বিদ্যালয় সরকারিকরণ হবে না।’

মাদরাসা শিক্ষকদের জুনের এমপিওর জিও জারি - dainik shiksha মাদরাসা শিক্ষকদের জুনের এমপিওর জিও জারি করোনায় ৪৭ জনের মৃত্যু, নতুন শনাক্ত ২ হাজার ৬৬৬ - dainik shiksha করোনায় ৪৭ জনের মৃত্যু, নতুন শনাক্ত ২ হাজার ৬৬৬ শিক্ষার্থীর সংখ্যার ভিত্তিতে স্কুলের তথ্য চেয়েছে অধিদপ্তর - dainik shiksha শিক্ষার্থীর সংখ্যার ভিত্তিতে স্কুলের তথ্য চেয়েছে অধিদপ্তর আশ্রয়কেন্দ্র হিসাবে বন্যা দুর্গত এলাকায় স্কুল-কলেজ খুলে দেয়ার নির্দেশ - dainik shiksha আশ্রয়কেন্দ্র হিসাবে বন্যা দুর্গত এলাকায় স্কুল-কলেজ খুলে দেয়ার নির্দেশ তিন শিক্ষকের ডাবল এমপিও : দৈনিক শিক্ষায় প্রতিবেদন প্রকাশের পর অধ্যক্ষকে শোকজ - dainik shiksha তিন শিক্ষকের ডাবল এমপিও : দৈনিক শিক্ষায় প্রতিবেদন প্রকাশের পর অধ্যক্ষকে শোকজ দৈনিক শিক্ষায় প্রতিবেদন প্রকাশের পর : তথ্য গোপন করে নেয়া অনুদানের টাকা ফেরত - dainik shiksha দৈনিক শিক্ষায় প্রতিবেদন প্রকাশের পর : তথ্য গোপন করে নেয়া অনুদানের টাকা ফেরত জটিলতার দ্রুত সমাধান চান এমপিওবঞ্চিত শিক্ষকরা - dainik shiksha জটিলতার দ্রুত সমাধান চান এমপিওবঞ্চিত শিক্ষকরা প্রভাষকের বিরুদ্ধে ভুয়া সনদে চাকরির অভিযোগ - dainik shiksha প্রভাষকের বিরুদ্ধে ভুয়া সনদে চাকরির অভিযোগ শিক্ষায় বঙ্গবন্ধুর অবদান নিয়ে লেখা আহ্বান - dainik shiksha শিক্ষায় বঙ্গবন্ধুর অবদান নিয়ে লেখা আহ্বান বিনামূল্যে আন্তর্জাতিক মানের ডিজিটাল কনটেন্ট দিচ্ছে টিউটর্সইঙ্ক - dainik shiksha বিনামূল্যে আন্তর্জাতিক মানের ডিজিটাল কনটেন্ট দিচ্ছে টিউটর্সইঙ্ক শিক্ষকদের ফ্রি অনলাইন প্রশিক্ষণ চলছে - dainik shiksha শিক্ষকদের ফ্রি অনলাইন প্রশিক্ষণ চলছে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া - dainik shiksha জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া please click here to view dainikshiksha website