শিক্ষকের পা কর্তন মামলায় ৪জন কারাগারে - বিবিধ - Dainikshiksha

শিক্ষকের পা কর্তন মামলায় ৪জন কারাগারে

কলাপাড়া(পটুয়াখালী) প্রতিনিধি |

পটুয়াখালীর কলাপাড়ায় বরিশাল শেরে বাংলা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক শাহ আলম হাওলাদারকে (শাহ আলম মাষ্টার) কুপিয়ে পা কর্তনের মামলায় গ্রেফতারকৃত চার আসামীকে কারাগারে পাঠিয়েছে আদালত। রোববার (২৬ আগস্ট) সকালে গ্রেফতারকৃত সাঈদ, রহিম খোকন, তাইফুর ও জাহাঙ্গীরকে আদালতে হাজির করে মামলার তদন্ত কর্মকর্তা এস আই বিপ্লব জিজ্ঞাসাবাদের জন্য পাঁচ দিনের রিমান্ড আবেদন করেন। আদালত আগামী  ২৯ আগষ্ট রিমান্ড শুনানীর দিন ধার্য্য করে তাদের জেল হাজতে পাঠানোর নির্দেশ। 

শিক্ষকের ওপর হামলার ঘটনায় শনিবার রাতে আহত শিক্ষকের ভাই জাহাঙ্গীর হোসেন বাদি হয়ে ২১ জনের নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাত ৩০ জনের বিরুদ্ধে কলাপাড়া থানায় মামলা করেন।  এ মামলায় ওই চারজনকে গ্রেফতার দেখায় পুলিশ।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা এস আই বিপ্লব জানান, শনিবার ঘটনাস্থল থেকে পাঁচজনকে আটক করলেও একজনের সম্পৃক্ততা না থাকায় তাকে ছেড়ে দেয়া হয়েছে। 

কলাপাড়া থানার ওসি মো. জাহাঙ্গীর হোসেন জানান, পূর্ব বিরোধকে কেন্দ্র করে এ সহিংসতার ঘটনা ঘটলেও পুলিশ গুরুত্ব দিয়ে ঘটনা পর্যবেক্ষণ করছে। ঘটনার সাথে জড়িতদের গ্রেফতারের জন্য অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

উল্লেখ্য, গত শনিবার (২৫ আগষ্ট) সকালে কলাপাড়ার নীলগঞ্জ ইউনিয়নের মোস্তফাপুর গ্রামে ভগ্নিপতির বাসা থেকে দাওয়াত খেয়ে ফেরার পথে একদল সন্ত্রাসী অতর্কিত হামলা চালায় শাহ আলমের উপর। পূর্ব বিরোধকে কেন্দ্র করে এ হামলার ঘটনা ঘটেছে বলে আহতের স্বজনরা জানান। সন্ত্রাসীরা তার শিশু পুত্রের সামনে ধারালো অস্ত্র দিয়ে শরীরের বিভিন্ন অংশ কুপিয়ে জখম করে বাম পায়ের গোড়ালীর ৯০ ভাগ কেটে ফেলে। প্রথমে তাকে স্থানীয়রা উদ্ধার করে কলাপাড়া হাসপাতালে ভর্তি করে। কিন্তু অবস্থার অবনতি ঘটলে বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়। সেখান থেকে উন্নত চিকিৎসার জন্য রোববার ঢাকা পঙ্গু হাসপাতালে নেয়া হয়েছে।

পাঁচ শতাংশ প্রবৃদ্ধি ও বৈশাখী ভাতার আদেশ জারি - dainik shiksha পাঁচ শতাংশ প্রবৃদ্ধি ও বৈশাখী ভাতার আদেশ জারি প্রাথমিক সমাপনী পরীক্ষায় এমসিকিউ  বাতিল - dainik shiksha প্রাথমিক সমাপনী পরীক্ষায় এমসিকিউ বাতিল এইচএসসির টেস্ট পরীক্ষার ফল ১০ ডিসেম্বরের মধ্যে প্রকাশের নির্দেশ - dainik shiksha এইচএসসির টেস্ট পরীক্ষার ফল ১০ ডিসেম্বরের মধ্যে প্রকাশের নির্দেশ স্ত্রীর মৃত্যুতে আজীবন পেনশন পাবেন স্বামী - dainik shiksha স্ত্রীর মৃত্যুতে আজীবন পেনশন পাবেন স্বামী ২০ হাজার টাকায় শিক্ষক নিবন্ধন সনদ বিক্রি করতেন তারা - dainik shiksha ২০ হাজার টাকায় শিক্ষক নিবন্ধন সনদ বিক্রি করতেন তারা অকৃতকার্য ছাত্রীকে ফের পরীক্ষায় বসতে দেয়ার নির্দেশ - dainik shiksha অকৃতকার্য ছাত্রীকে ফের পরীক্ষায় বসতে দেয়ার নির্দেশ আইডিয়াল স্কুলে ভর্তি ফরম বিতরণ শুরু - dainik shiksha আইডিয়াল স্কুলে ভর্তি ফরম বিতরণ শুরু নির্বাচনের সঙ্গে পেছাল সরকারি স্কুলের ভর্তি - dainik shiksha নির্বাচনের সঙ্গে পেছাল সরকারি স্কুলের ভর্তি দৈনিক শিক্ষায় বিজ্ঞাপন পাঠান ইমেইলে - dainik shiksha দৈনিক শিক্ষায় বিজ্ঞাপন পাঠান ইমেইলে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া - dainik shiksha জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া please click here to view dainikshiksha website