শিক্ষকের বিরুদ্ধে কলেজছাত্রীকে হত্যার অভিযোগ - বিবিধ - Dainikshiksha

শিক্ষকের বিরুদ্ধে কলেজছাত্রীকে হত্যার অভিযোগ

বরিশাল প্রতিনিধি |

কলেজছাত্রী মিলি ইসলামকে বরিশাল মডেল স্কুল অ্যান্ড কলেজের গণিত বিভাগের শিক্ষক পুলিন চন্দ্র সরকার পরিকল্পিতভাবে হত্যা করেছে বলে অভিযোগ করেছেন ছাত্রীর মা পারভীন খানম। বুধবার (১২ জুন) দুপুর সাড়ে ১২টায় বরিশাল রিপোর্টার্স ইউনিটির কার্যালয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে শিক্ষকের বিরুদ্ধে এই অভিযোগ করেন তিনি। 

জানা গেছে, গত ৩ মে বরিশাল নগরীর ২৮নং ওয়ার্ডের ফিসারি রোডের আলী আজিমের ভাড়া বাসা থেকে বিএম কলেজের ছাত্রী মিলি ইসলামের ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। মিলি ইসলাম বিএম কলেজের হিসাব বিজ্ঞান বিভাগের মাস্টার্স পরীক্ষার্থী ছিল।

সংবাদ সম্মেলনে পারভীন খানম জানান, আমার মেয়ে মিলি বিএম কলেজের একজন মেধাবী শিক্ষার্থী। সে নিজে থেকে কোনোদিনও আত্মহত্যা করতে পারে না। তাকে পরিকল্পিতভাবে হত্যা করা হয়েছে।
 
তিনি আরও বলেন, মডেল স্কুল অ্যান্ড কলেজের গণিত বিভাগের শিক্ষক পুলিন চন্দ্র সরকারের সাথে আমার মেয়ের দীর্ঘ দিনের প্রেমের সম্পর্ক ছিল। পুলিন হিন্দু সম্প্রদায়ের হয়েও সে নিজেকে আমার মেয়ের কাছে মুসলমান হিসেবে পরিচয় দেয়। এমনকি আমার মেয়ে মিলি ইসলামকে বিয়ে করবে বলে আশ্বস্ত করে। এ ঘটনার ২ মাস আগে আমরা বিষয়টি জানতে পারি।

পারভীন খানম অভিযোগ করেন, পুলিন একদিন আমাদের নথুল্লাবাদের বাসায় এসে মিলিসহ আমাদের হুমকি দেয়। সে মিলিকে বিয়ে করতে পারবে না বলে জানায়। পুলিন বিবাহিত এবং তার সন্তানও রয়েছে বলে এখন বিয়ে করা সম্ভব নয়। বিষয়টি মিলি তার স্কুলের অধ্যক্ষ ও বাসায় জানিয়ে দেবে বলে হুঁশিয়ারি দিলে পুলিন তাতে বাধা দেয়। অভিযোগ করার জন্য মিলি দু’দিন স্কুলে গিয়ে আবার ফিরে আসে। পরে আবার পুনিল মিলিকে কারো কাছে এ বিষয়ে কিছু না বলার জন্য পরামর্শ দেয় এবং সে তাকে খুব শিগগিরই বিয়ে করবে বলে জানায়।
 
তিনি আরও জানান, ঘটনার আগের দিন মিলি ইসলাম ফিসারি রোডের ওই বাসায় সে ও তার স্বামী থাকবে বলে ভাড়া নেয়। রাতে পুলিন বাসায়ও আসে বলে জানায় বাড়ীর মালিকের স্ত্রী শিউলী আজিম। আত্মহত্যার খবর পেয়ে বরিশাল এয়ারপোর্ট থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে ঘরের দরজা খোলা পায়। এ সময় মিলির ফোন একটি পানি ভর্তি পাতিলের মধ্যে ডুবানো ছিল। আর মিলি গলায় ওড়না দিয়ে ফ্যানের সাথে ঝোলানো ছিল। তবে এসময় মিলির পা মাটিতেই ছিল বলে দাবি করেন তার মা।

এই ঘটনায় পুলিশ বরগুনা জেলার সদর থানাধীন ২নং গৌরীচন্ন এলাকা থেকে পুলিনকে গেফতার করে। সেই মামলায় পুলিন চন্দ্র সরকার গত ৯ জুন আদালত থেকে জামিনে মুক্তি পায়।
 
সংবাদ সম্মেলনের লিখিত বক্তব্যে পারভীন খানম বলেন, আমার মেয়েকে পুলিন ব্যবহার করেছে। আমরা প্রধানমন্ত্রীর কাছে এই হত্যার ঘটনার সুষ্ঠু বিচার ও অভিযুক্ত পুলিন এর গ্রেফতার দাবি করছি। তাকে গ্রেফতার করে জিজ্ঞাসাবাদ করলে প্রকৃত ঘটনা বেরিয়ে আসবে। ইতোমধ্যে পুলিন সরকার জামিনে মুক্তি পেয়ে সন্ত্রাসীদের মাধ্যমে আমাদের হুমকি প্রদান করে আসছে। বিষয়টি নিয়ে বেশি বাড়াবাড়ি করলে আরও একটি হত্যাকাণ্ড ঘটাবে বলেও হুমকি দিয়েছেন বলে অভিযোগ করেন তিনি।
 
এদিকে বিএম কলেজের ছাত্রী মিলি হত্যার ঘটনায় তার মা পারভীন খানম বাদী হয়ে পুলিন চন্দ্র সরকারসহ অজ্ঞাতনামা আরও কয়েকজনকে আসামি করে বরিশাল মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে একটি মামলা দায়ের করেছেন। মামলাটি তদন্ত করে প্রতিবেদন দাখিল করার জন্য পিআইবিকে নির্দেশ দিয়েছেন আদালত। 

একাদশে ভর্তি: ২য় দফার আবেদন শুরু - dainik shiksha একাদশে ভর্তি: ২য় দফার আবেদন শুরু বিসিএসেও তৃতীয় পরীক্ষক চালু - dainik shiksha বিসিএসেও তৃতীয় পরীক্ষক চালু ডিগ্রি ২য় বর্ষ পরীক্ষার ফরম পূরণের সময় বাড়লো - dainik shiksha ডিগ্রি ২য় বর্ষ পরীক্ষার ফরম পূরণের সময় বাড়লো জিপিএ-৫ বিলুপ্তির পর যেভাবে হবে নতুন গ্রেড বিন্যাস - dainik shiksha জিপিএ-৫ বিলুপ্তির পর যেভাবে হবে নতুন গ্রেড বিন্যাস পাবলিক পরীক্ষার গ্রেড: যা আছে আর যা হবে - dainik shiksha পাবলিক পরীক্ষার গ্রেড: যা আছে আর যা হবে প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষায় কঠোর নজরদারির নির্দেশ গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রীর - dainik shiksha প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষায় কঠোর নজরদারির নির্দেশ গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রীর শিক্ষক নিবন্ধন: ইন্টারন্যাশনাল বিজনেস বিষয়ের নতুন সিলেবাস দেখুন - dainik shiksha শিক্ষক নিবন্ধন: ইন্টারন্যাশনাল বিজনেস বিষয়ের নতুন সিলেবাস দেখুন সার্টিফিকেট ছাপার আগেই ২ কোটি টাকা তুলে নিলেন ছায়েফ উল্যাহ - dainik shiksha সার্টিফিকেট ছাপার আগেই ২ কোটি টাকা তুলে নিলেন ছায়েফ উল্যাহ রাজধানীর সকল ফার্মেসি থেকে মেয়াদোত্তীর্ণ ওষুধ এক মাসের মধ্যে সরিয়ে নিতে হবে: হাইকোর্ট - dainik shiksha রাজধানীর সকল ফার্মেসি থেকে মেয়াদোত্তীর্ণ ওষুধ এক মাসের মধ্যে সরিয়ে নিতে হবে: হাইকোর্ট জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া - dainik shiksha জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া  - dainik shiksha please click here to view dainikshiksha website