please click here to view dainikshiksha website

শিক্ষকের বেধড়ক পিটুনিতে ছাত্রী হাসপাতালে

নড়াইল প্রতিনিধি | আগস্ট ১৫, ২০১৭ - ৯:০৮ পূর্বাহ্ণ
dainikshiksha print

নড়াইল টেকনিক্যাল স্কুল এন্ড কলেজের ফার্ম ম্যাশিনারী (ড্রইং) বিভাগের খন্ডকালিন শিক্ষক মো: হাসানুর রহমানের বিরুদ্ধে নবম শ্রেণির ছাত্রী ইশরাত জাহান উর্মিকে স্টিলের স্কেল দিয়ে পিটিয়ে গুরুতর আহত করার অভিযোগ উঠেছে। মেয়েটি বর্তমানে খুলনা মেডিক্যাল কলেজের ৩য় তলার কোরিডোরে চিকিৎসাধীন রয়েছে। এ ঘটনায় অভিযুক্ত শিক্ষকের বিরুদ্ধে ভুক্তভোগীর পরিবার মামলার প্রস্তুতি নিচ্ছে বলে জানা গেছে।

নড়াইল পৌর এলাকার দক্ষিণ নড়াইল গ্রামের ছাত্রী ইসরাত জাহান উর্মির বাবা আহাদ দাহার ফোনে জানান, শনিবার (৫ আগস্ট) স্কুলের শিক্ষক হাসানুর রহমান ক্লাসে প্রশ্ন করেন, ড্রইং মানে কি? এর উত্তর ঠিকমতো দিতে না পারায় উর্মিকে স্টিলের স্কেল দিয়ে মাথায় আঘাত করে। এ সময় সে বেঞ্চের নিচে পড়ে জ্ঞান হারায়। এ ঘটনার পর উর্মিকে আঘাতজনিত অবস্থায় নড়াইল সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

পরে হাসপাতালের চিকিৎসক তাকে নিউরো বিশেষজ্ঞ চিকিৎসককে দেখানোর পরামর্শ দিলে গত শুক্রবার খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তিনি বলেন, উর্মির অবস্থার কোনো উন্নতি হয়নি। মাঝে মাঝে সে জ্ঞান হারাচ্ছে। কিছু মনে রাখতে এবং ঠিকমতো কথা বলতে পারছে না। গত রবিবার (১৩ আগস্ট) উর্মির এক শিক্ষক ৫ হাজার টাকা দিতে খুলনায় এসেছিলেন। এ অর্থ গ্রহণ করেননি বলে জানান। তিনি বলেন, এ ঘটনায় ওই শিক্ষকের বিরুদ্ধে থানায় জিডি করবেন।

সংবাদটি শেয়ার করুন:


পাঠকের মন্তব্যঃ ২টি

  1. কল্যাণ says:

    আসল সত্য ঊদঘাটন করে পদক্ষেপ নেওয়া দরকার।

  2. মণি রহমান says:

    এগুলো শিক্ষক নয়- নরপাষন্ড! সরকারিভাবে আইন পাশ করে যেখানে শারীরিক-মানসিক নির্যাতন নিষিদ্ধ করা হয়েছে সেখানে এমন নিষ্ঠুর-নির্মম-নির্দয় অত্যাচার! সারা দেশে যেভাবে এ রকম শিক্ষার্থী নিপীড়ণ মহামারী আকারে ছড়িয়ে পড়েছে তখন এমন মানব-পশুকে তাৎক্ষণিক সরাসরি প্রকাশ্যে গুলী করে হত্যার আর কোনোই বিকল্পই নেই!

আপনার মন্তব্য দিন