শিক্ষার্থীদের জন্য শিক্ষকের চমক - বিবিধ - Dainikshiksha

শিক্ষার্থীদের জন্য শিক্ষকের চমক

দৈনিকশিক্ষা ডেস্ক |

বড়দিনের ছুটি শেষে অন্যদিনের মতো স্কুলে এসেছিল নবম শ্রেণির শিক্ষার্থীরা। কিন্তু ক্লাসে ঢুকেই তাদের চোখ কপালে। এ কি! প্রত্যেকের নির্ধারিত আসনে একেক জনের চেহারার স্কেচ। আর এগুলো এঁকেছে তাদেরই শিক্ষক রোজলিন বারকোমা। শিক্ষার্থীদের চমকে দিতে তিনি গত ডিসেম্বরে মাস জুড়ে গোপনে প্রতিটি শিক্ষার্থীর ছবি আঁকেন। মোট শিক্ষার্থীর সংখ্যা ২৭জন।

ফিলিপাইনে হলি রেডিমার স্কুল অব কাবুয়ায়োতে ৩৫ বছরের বারকোমা ষষ্ঠ ও নবম শ্রেণিতে ইংরেজি পড়ান।

বারকোমা বিবিসিকে বলেন, শিক্ষার্থীরা ক্লাসে ঢুকে নিজেদের ডেস্কে নিজেদের পোর্ট্রেট দেখে খুব অভিভূত হয়ে পড়ে। তারা প্রথমে বাকরুদ্ধ হয়ে পড়ে। এরপর তারা আমাকে ধন্যবাদ জানায়।

বারকোমা বলেন, ‘ছোট্টবেলা থেকেই আমার ছবি আঁকার শখ। আমার ছোট্টবেলার স্বপ্ন ছিল কমিক চরিত্র আঁকা। কারণ আমার মনে হয়েছে এর মধ্য দিয়ে মানুষকে আনন্দ দেওয়া যাবে।’ এখন তিনি কমিক চরিত্রের আঁকিয়ে না হলেও শিক্ষকতা করতে গিয়েও শিক্ষার্থীদের খুব মজা করেই পড়ান।

গত সোমবার বারকোমা তাঁর শিক্ষার্থীদের জন্য আঁকা স্কেচগুলোর ছবি ফেসবুকে শেয়ার করেন। খুব অল্প সময়ের মধ্যেই ফিলিপাইনের নিউজ ওয়েবসাইট রাপলার এই ছবির পেছনের গল্পটি নিয়ে খবর প্রচার করে। রাপলারের ফেসবুক পেজে পোস্ট হওয়া এই খবর ১০ হাজারের বেশিবার শেয়ার হয়েছে।

এই প্রথম বারকোমা পুরো ক্লাসের শিক্ষার্থীদের ছবি আঁকলেন। তিনি বলেন, তিনি শিক্ষার্থীদের বিশেষ, অনন্য ও ব্যক্তিগতভাবে কিছু দিতে চেয়েছেন; যা তাদের পড়াশোনায় অনুপ্রেরণা দেবে। ‘আমি যখন তাদের মুখে হাসি দেখি, আমার পরিশ্রম সার্থক।’

১৫ বছরের ছাত্র মিচেল রেই আরগো বলেন, ‘এটি অনন্য এক উপহার। এ জন্য না যে বারকোমা আমাদের জন্য নিজে এটি বানিয়েছেন, বরং তিনি কতটা কষ্ট করে আমাদের জন্য এটি করেছেন তা স্মরণীয় হয়ে থাকবে।’ বারকোমার দুটি দিক রয়েছে উল্লেখ করে মিচেল বলে, ক্লাসে তিনি খুবই কড়া আবার আরেকটি দিক হলো তিনি খুব মজার মানুষ। কারণ শিক্ষার্থীদের পড়াশোনায় উৎসাহী করে তুলতে তিনি খুবই মজা করে পড়ান।

অভিভূত শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে বারকোমা অনেক অনেক শুভ বার্তা পেয়েছেন। শুধু শিক্ষার্থীরাই নয়, শিক্ষক ও বিভিন্ন চিত্রশিল্পীর কাছ থেকে তিনি অনেক অভিনন্দন বার্তা পেয়েছেন। বারকোমা বলেন, ‘আমি শুধু আমার শিক্ষার্থীদের আনন্দ দিতে চেয়েছিলাম, কিন্তু এসব পোর্ট্রেট দেখে এখন অনেকেই অনুপ্রাণিত হচ্ছেন।’

১৪ উপজেলার শিক্ষা প্রতিষ্ঠান মাদকমুক্ত করার নির্দেশ - dainik shiksha ১৪ উপজেলার শিক্ষা প্রতিষ্ঠান মাদকমুক্ত করার নির্দেশ টাইমস্কেল পাচ্ছেন ৩২ শিক্ষক - dainik shiksha টাইমস্কেল পাচ্ছেন ৩২ শিক্ষক এনটিআরসিএ চেয়ারম্যান বললেন, ৫টি আবেদনই যথেষ্ট - dainik shiksha এনটিআরসিএ চেয়ারম্যান বললেন, ৫টি আবেদনই যথেষ্ট প্রেমের ফাঁদে ছাত্রীর ভিডিও ধারণ, ২ শিক্ষক গ্রেফতার - dainik shiksha প্রেমের ফাঁদে ছাত্রীর ভিডিও ধারণ, ২ শিক্ষক গ্রেফতার প্রধানমন্ত্রীকে ডাকসুর আজীবন সদস্য প্রস্তাবে দ্বিমত ভিপি নুরের - dainik shiksha প্রধানমন্ত্রীকে ডাকসুর আজীবন সদস্য প্রস্তাবে দ্বিমত ভিপি নুরের ১৫তম শিক্ষক নিবন্ধন পরীক্ষা ২৬-২৭ জুলাই - dainik shiksha ১৫তম শিক্ষক নিবন্ধন পরীক্ষা ২৬-২৭ জুলাই আলিম পরীক্ষার সূচি প্রকাশ - dainik shiksha আলিম পরীক্ষার সূচি প্রকাশ এইচএসসি পরীক্ষার সূচি প্রকাশ, শুরু ১ এপ্রিল - dainik shiksha এইচএসসি পরীক্ষার সূচি প্রকাশ, শুরু ১ এপ্রিল ২০১৯ খ্র্রিস্টাব্দের স্কুলের ছুটির তালিকা - dainik shiksha ২০১৯ খ্র্রিস্টাব্দের স্কুলের ছুটির তালিকা জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া - dainik shiksha জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া please click here to view dainikshiksha website