শিক্ষার্থীদের থেকে অতিরিক্ত টাকা আদায়, ২ শিক্ষককে শোকজ - কলেজ - Dainikshiksha

শিক্ষার্থীদের থেকে অতিরিক্ত টাকা আদায়, ২ শিক্ষককে শোকজ

ফরিদপুর প্রতিনিধি |

ফরিদপুরের বোয়ালমারী উপজেলার কাজী সিরাজুল ইসলাম মহিলা কলেজে ২ শিক্ষককে শোকজ করা হয়েছে। স্নাতক ও এইচএসসি (বিএম) শাখার পরীক্ষার্থীদের কাছ থেকে অতিরিক্ত দেড় লাখ টাকা আদায়ের অভিযোগে গভর্নিং বডির নির্দেশে ওই দুই শিক্ষককে শোকজ করা হয়ে। তবে এ ঘটনায় ৫ জন শিক্ষক অভিযুক্ত হলেও রহস্যজনক কারণে শুধু দুই জনকেই শোকজ করা হয়েছে।

জানা গেছে, জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে ২০১৮ খ্রিষ্টাব্দের ৪র্থ বর্ষ স্নাতক (সম্মান) ফাইনাল পরীক্ষা গত ৭ এপ্রিল থেকে শুরু হয়। মৌখিক পরীক্ষা ১৬ জুলাই শেষ হয়েছে। পরীক্ষায় ৪টি বিভাগের ১৫৫ জন শিক্ষার্থী অংশ নেয়। পরীক্ষার্থীদের কাছ থেকে বিশ্ববিদ্যালয়ের ধার্যকৃত ফিসের বাইরে রসিদ ছাড়া ১ হাজার টাকা করে অতিরিক্ত অর্থ আদায় করেছেন শিক্ষকরা। এতে প্রায় দেড় লক্ষাধিক টাকা অতিরিক্ত আদায় হয়েছে।

সমাজকর্ম, বাংলা, হিসাববিজ্ঞান ও ব্যবস্থাপনা বিভাগের অনার্স ফাইনাল পরীক্ষার পরীক্ষার্থীদের নিকট হতে এই অতিরিক্ত অর্থ আদায় করা হয়। বাংলা বিভাগের ড. হোসনে আরা, ব্যবস্থাপনা বিভাগের রবীন কুমার লস্কর, হিসাব বিজ্ঞান বিভাগের তন্দ্রা রানী দাস এবং সমাজকর্ম বিভাগের মো. ফরহাদুল ইসলাম সিকদার এই অতিরিক্ত অর্থ আদায় করেন।

এ ছাড়া সহকারী অধ্যাপক মো. আলমগীর হোসেন বিএম শাখার ১৭৮ জন এইচএসসি পরীক্ষার্থীর নিকট থেকে ব্যবহারিক পরীক্ষার ফিসের অতিরিক্ত ১শ’ টাকা করে আদায় করেন। 

একই ঘটনায় ৫ জন অভিযুক্ত হলেও এদের মধ্যে সমাজকর্ম বিভাগের  মো. ফরহাদুল ইসলাম সিকদার এবং সহকারী অধ্যাপক মো. আলমগীর হোসেনকে পরিচালনা পর্ষদের সভাপতির নির্দেশে কারণ দর্শানোর নোটিশ দেয়া হয়েছে। নোটিশে ৭ দিনের মধ্যে এ ব্যাপারে জবাব চাওয়া হয়েছে। 

এ ব্যাপারে কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ খন্দকার আবু মোরসালিন দৈনিক শিক্ষাকে বলেন, সভাপতির নির্দেশে ২ জনকে শোকজ করা হয়েছে। বাকিরা গভর্নিং বডির মিটিংয়ের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী অতিরিক্ত টাকা নিয়েছিল, তাই তাদের শোকজ করা হয়নি।   

এক স্কুলের তিন শিক্ষকের ডাবল চাকরি! - dainik shiksha এক স্কুলের তিন শিক্ষকের ডাবল চাকরি! সনদ বিক্রিতে অভিযুক্ত বিদেশি বিশ্ববিদ্যালয়ের শাখার বৈধতা দেয়ার উদ্যোগ - dainik shiksha সনদ বিক্রিতে অভিযুক্ত বিদেশি বিশ্ববিদ্যালয়ের শাখার বৈধতা দেয়ার উদ্যোগ বঙ্গবন্ধু ও প্রধানমন্ত্রীর ছবি অবমাননার অভিযোগে প্রধান শিক্ষক বরখাস্ত - dainik shiksha বঙ্গবন্ধু ও প্রধানমন্ত্রীর ছবি অবমাননার অভিযোগে প্রধান শিক্ষক বরখাস্ত প্রাথমিকে ১৮ হাজার শিক্ষক নিয়োগের ফল ২৬ ডিসেম্বরের মধ্যে - dainik shiksha প্রাথমিকে ১৮ হাজার শিক্ষক নিয়োগের ফল ২৬ ডিসেম্বরের মধ্যে দৈনিক শিক্ষার ইউটিউব লাইভে শিক্ষার হাঁড়ির খবর জানুন রাত আটটায় - dainik shiksha দৈনিক শিক্ষার ইউটিউব লাইভে শিক্ষার হাঁড়ির খবর জানুন রাত আটটায় শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের দেয়াল ঘেঁষে তৈরি করা মার্কেট অপসারণের নির্দেশ - dainik shiksha শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের দেয়াল ঘেঁষে তৈরি করা মার্কেট অপসারণের নির্দেশ এমপিও পুনর্বিবেচনা কমিটির সভা ১৫ ডিসেম্বর - dainik shiksha এমপিও পুনর্বিবেচনা কমিটির সভা ১৫ ডিসেম্বর জেএসসি-জেডিসির ফল ৩১ ডিসেম্বর - dainik shiksha জেএসসি-জেডিসির ফল ৩১ ডিসেম্বর লিফলেট ছড়িয়ে সরকারি স্কুল শিক্ষকদের কোচিং বাণিজ্য, ভর্তির গ্যারান্টি! - dainik shiksha লিফলেট ছড়িয়ে সরকারি স্কুল শিক্ষকদের কোচিং বাণিজ্য, ভর্তির গ্যারান্টি! ২০২০ খ্রিষ্টাব্দের স্কুলের ছুটির তালিকা - dainik shiksha ২০২০ খ্রিষ্টাব্দের স্কুলের ছুটির তালিকা প্রাথমিক-ইবতেদায়ি সমাপনীর ফল বছরের শেষ দিনে - dainik shiksha প্রাথমিক-ইবতেদায়ি সমাপনীর ফল বছরের শেষ দিনে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া - dainik shiksha জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া দৈনিকশিক্ষার ফেসবুক লাইভ দেখতে আমাদের সাথে থাকুন প্রতিদিন রাত সাড়ে ৮ টায় - dainik shiksha দৈনিকশিক্ষার ফেসবুক লাইভ দেখতে আমাদের সাথে থাকুন প্রতিদিন রাত সাড়ে ৮ টায় শিক্ষার এক্সক্লুসিভ ভিডিও দেখতে দৈনিক শিক্ষার ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন - dainik shiksha শিক্ষার এক্সক্লুসিভ ভিডিও দেখতে দৈনিক শিক্ষার ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন দৈনিক শিক্ষার আসল ফেসবুক পেজে লাইক দিন - dainik shiksha দৈনিক শিক্ষার আসল ফেসবুক পেজে লাইক দিন please click here to view dainikshiksha website