শিক্ষার্থী ভর্তি না হলে আসন কমবে কলেজের - কলেজ - দৈনিকশিক্ষা

শিক্ষার্থী ভর্তি না হলে আসন কমবে কলেজের

নিজস্ব প্রতিবেদক |

শিক্ষার্থী ভর্তি না হওয়া কলেজগুলোর আসন সংখ্যা কমানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে ঢাকা মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ড। যেসব কলেজে অনুমোদিত আসনে ৫০ শতাংশ ফাঁকা থাকছে সেসব কলেজের আসন সংখ্যা কমানো হবে। তবে এ ক্ষেত্রে কলেজের তিন বছরের শিক্ষার্থী সংখ্যা বিবেচনায় রাখা হবে। যৌক্তিক সংখ্যক আসনে শিক্ষার্থী ভর্তির অনুমতি দেয়া হবে কলেজগুলোকে। বুধবার (৪ মার্চ) রাতে ঢাকা মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ডের কলেজ পরিদর্শক অধ্যাপক ড. মো. হারুন অর রশিদ দৈনিক শিক্ষাডটকমকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। 

ঢাকা শিক্ষা বোর্ড সূত্রে জানা গেছে, অনেক কলেজে আসন সংখ্যা বেশি থাকলেও সেই সংখ্যক শিক্ষার্থী ভর্তি হয় না। ১ম, ২য় এমনি কি ৩য় দফায় আবেদন নেয়া হলেও শিক্ষার্থী পায় না কিছু কলেজ। অনেক প্রতিষ্ঠানে শিক্ষার্থী ভর্তি হতে না চাইলেও নানাভাবে প্রতারণার মাধ্যমে ছাত্র-ছাত্রী ভর্তি করানোর অভিযোগও রয়েছে। এসব কলেজের আসন সংখ্যা কমানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে ঢাকা বোর্ড।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে কলেজ পরিদর্শক অধ্যাপক ড. মো. হারুন অর রশিদ দৈনিক শিক্ষাডটকমকে বলেন, যেসব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে আসনের অনুমোদন নেয়া হয়েছে অথচ সেখানে শিক্ষার্থী ভর্তি হয় না সেখানে আসন কমিয়ে দেয়া হবে। যেখানে শিক্ষার্থী ভর্তি হতে চায় না সেসব কলেজে আসন কমিয়ে দেয়া হবে। তবে, আসন সংখ্যা কমানোর আগে বিগত তিন বছরে সেই কলেজের শিক্ষার্থী সংখ্যা ও আসন সংখ্যা বিবেচনা করা হবে। 
 
তিনি আরও বলেন, অনেক কলেজে আসন আছে ৩০০টি। কিন্তু গত তিন বছরে শিক্ষার্থী সংখ্যা গড়ে ১০০ জন। কলেজগুলোতে ১০০ জন শিক্ষার্থীই ভর্তি হচ্ছে। সেসব কলেজের আসন কমানো হবে। সার্বিক বিবেচনায় যৌক্তিক হারে আসন সংখ্যা কমবে। 

কলেজ পরিদর্শক আরও বলেন, অনেক কলেজে শিক্ষার্থী ভর্তি হতে চায়না। আসন ২০০ বা ৩০০ যাই হোক ভর্তি হচ্ছে ১০০ জন। ২য় এমনকি ৩য় দফায় আবেদনেও কোন শিক্ষার্থী আবেদন করে না। এসব কলেজের আসন সংখ্যা কমানো হবে।  

চলতি বছর একাদশে ভর্তির আবেদন নেয়া হবে শুধুই অনলাইনে। এসএমএসের মাধ্যমে আবেদন নেয়া হবে না। অনলাইনে একাদশ শ্রেণির প্রথম ধাপের ভর্তি আবেদন আগামী ১০ থেকে ২০ মে পর্যন্ত গ্রহণ করা হবে। ২৭ থেকে ৩১ জুন যাচাই-বাছাই, আপত্তি ও নিষ্পত্তি কার্যক্রম চলবে। ৮ জুন প্রথম ধাপের ফল প্রকাশ করা হবে। তবে পুনঃনিরীক্ষায় এসএসসি পরীক্ষার ফল পরিবর্তনকারীরা ১ থেকে ৩ জুন পর্যন্ত আবেদন করার সুযোগ পাবেন। তবে পুনঃনিরীক্ষায় এসএসসি পরীক্ষার ফল পরিবর্তনকারীরা ১ থেকে ৩ জুন পর্যন্ত আবেদন করার সুযোগ পাবেন।

দ্বিতীয় ধাপে আবেদন শুরু হবে ১৭ জুন, ২০ জুন শেষ হবে। একই দিন রাত ৮টার পর এ ধাপের ফল প্রকাশ করা হবে। তৃতীয় ধাপে ২৩ জুন আবেদন শুরু হয়ে ২৫ জুন পর্যন্ত চলবে। ২৫ জুন রাত ৮টার পর এ ধাপের ফল প্রকাশ করা হবে। এছাড়া একাদশ শ্রেণির ভর্তির নতুন নীতিমালা প্রণয়ন করা হয়েছে। বর্তমানে এ নীতিমালা শিক্ষা মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হয়েছে। চলতি সপ্তাহে এ নীতিমালার অনুমোদন দেয়া হতে পারে বলে সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয় থেকে জানা গেছে।

নতুন নীতিমালায় কোটা বাতিল, রেজিস্ট্রেশন ফি বৃদ্ধি, এসএমএস আবেদন বাতিলসহ গুরুত্বপূর্ণ চারটি পরিবর্তন আনা হয়েছে।

মাদরাসা শিক্ষকদের জুলাই মাসের এমপিওর চেক ছাড় - dainik shiksha মাদরাসা শিক্ষকদের জুলাই মাসের এমপিওর চেক ছাড় সব ধরনের কোচিং সেন্টার বন্ধ থাকবে ৩১ আগস্ট পর্যন্ত - dainik shiksha সব ধরনের কোচিং সেন্টার বন্ধ থাকবে ৩১ আগস্ট পর্যন্ত করোনায় আরও ৩০ জনের মৃত্যু, নতুন শনাক্ত ১ হাজার ৩৫৬ - dainik shiksha করোনায় আরও ৩০ জনের মৃত্যু, নতুন শনাক্ত ১ হাজার ৩৫৬ মাস্টার্স প্রফেশনাল কোর্সে ভর্তির আবেদন শুরু - dainik shiksha মাস্টার্স প্রফেশনাল কোর্সে ভর্তির আবেদন শুরু করোনা : জনসাধারণের চলাচলে নিয়ন্ত্রণ ৩১ আগস্ট পর্যন্ত বাড়লো - dainik shiksha করোনা : জনসাধারণের চলাচলে নিয়ন্ত্রণ ৩১ আগস্ট পর্যন্ত বাড়লো দোকানপাট খোলা রাখার সময় বাড়ল আরও ১ ঘন্টা - dainik shiksha দোকানপাট খোলা রাখার সময় বাড়ল আরও ১ ঘন্টা ‘আমার মুজিব’ শিরোনামে শিক্ষার্থীদের থেকে লেখা ও ছবি আহ্বান - dainik shiksha ‘আমার মুজিব’ শিরোনামে শিক্ষার্থীদের থেকে লেখা ও ছবি আহ্বান স্কুল-কলেজ শিক্ষকদের জুলাই মাসের এমপিওর চেক ছাড় - dainik shiksha স্কুল-কলেজ শিক্ষকদের জুলাই মাসের এমপিওর চেক ছাড় এমপিও শিক্ষকদের বেতন দ্রুত দেয়ার প্রক্রিয়া শুরু, আবেদনের নতুন সূচি - dainik shiksha এমপিও শিক্ষকদের বেতন দ্রুত দেয়ার প্রক্রিয়া শুরু, আবেদনের নতুন সূচি ঈদের পর করোনা সংক্রমণ বাড়তে পারে - dainik shiksha ঈদের পর করোনা সংক্রমণ বাড়তে পারে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া - dainik shiksha জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া please click here to view dainikshiksha website