শিক্ষা প্রতিষ্ঠানকে জড়িয়ে ফেসবুকে কটুক্তির প্রতিবাদে শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ - স্কুল - Dainikshiksha

শিক্ষা প্রতিষ্ঠানকে জড়িয়ে ফেসবুকে কটুক্তির প্রতিবাদে শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ

বালিয়াডাঙ্গী(ঠাকুরগাঁও) প্রতিনিধি |

ঠাকুরগাঁওয়ের বালিয়াডাঙ্গী উপজেলাধীন বালিয়াডাঙ্গী পাইলট মডেল উচ্চ বিদ্যালয়কে জড়িয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেইকবুকে কুরুচিপূর্ণ মন্তব্য করায় একই উপজেলা শহরে অবস্থিত ইজাব রাবেয়া ট্রাষ্ট কর্তৃক পরিচালিত বালিয়াডাঙ্গী ল্যাবরেটরী স্কুলের পরিচালক রমজান আলীর বিচারের দাবিতে বিক্ষোভ করেছে বালিয়াডাঙ্গী পাইলট মডেল উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রায়  দেড় হাজার শিক্ষার্থী। বুধবার (১৬ মে) দুপুর ২টায় উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা  আঃ মান্নানের কাছে স্মারকলিপি দিয়েছে শিক্ষার্থীরা।

 

স্মারকলিপি গ্রহণ করে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আঃ মান্নান বিষয়টি তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের আশ্বাস দিলে ওই শিক্ষার্থীরা ফিরে যায়। এ সময় উপজেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জুলফিকার আলী, উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা আব্দুর রহমান, উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষক সমিতির সভাপতি ও হলদিবাড়ী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক বাবুল হোসেন উপস্থিত ছিলেন। এ সময় শিক্ষার্থীদের পক্ষ থেকে তারাও এ বিষয়ে ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে অনুরোধ জানান। 

স্মারকলিপিতে বলা হয়েছে, রমজান আলী নামে একটি ফেসবুক একাউন্টের নিজস্ব টাইমলাইনে গত ৬ মে রাত ৯ টায় ওই প্রতিষ্ঠানকে জড়িয়ে ফেসবুকে 'স্ট্যাটাস' দিলে ওই স্ট্যাটাসের কমেন্ট করে জনৈক এক ব্যক্তি। সেই ব্যক্তির কমেন্টের জবাবে লেখেন “অনেক অভিভাবক তাদের মেয়েদের স্কুলে পাঠানো বন্ধ করে দিয়েছে। পরীক্ষার সময় পরীক্ষা দিচ্ছে। অভিভাবকরা তাদের মেয়ে নিয়ে মহা টেনশনে আছে।

কোন অভিভাবক অথবা শিক্ষার্থীদের অভিযোগ ছাড়াই এ মন্তব্যকে ষড়যন্ত্রমূলক এবং এতে বিদ্যালয়ের ভাবমুর্তি নষ্ট হয়েছে বলে স্মারক লিপিতে উল্লেখ করা। এছাড়াও রমজান আলী অথবা তার প্ররোচিত ব্যক্তি দ্বারা বিদ্যালয়ে যাতায়াতের সময় ছাত্রীরা যে কোন সময় উত্যক্ত, অপমানিত, সামাজিক ও শারীরিকভাবে নির্যাতিত হতে পারে এমন আশংকাও স্মারকলিপিতে উল্লেখ করা হয়েছে। 

এ বিষয়ে রমজান আলীর নিকট জানতে চাইলে ঘটনার কথা স্বীকার করে বলেন, একজন সচেতন নাগরিক হিসেবে একটি প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার মান উন্নয়নে একজন ধৈর্য্যশীল প্রধান শিক্ষক নিয়োগ দেওয়া দরকার মনে করে ফেসবুকে স্টাটাস দিয়েছিলাম। ওই বিষয়টাকে কেন্দ্র আজ আমাকে হেয়প্রতিপন্ন করার জন্য জোর পূর্বক ওই বিদ্যালয়ের শিক্ষকেরা শিক্ষার্থীদের ইউএনও’র নিকট স্মারকলিপি প্রদান করতে বাধ্য করেছে।

সদ্য সরকারিকৃত ২৭১ কলেজ শিক্ষকরা যা জানতে চান - dainik shiksha সদ্য সরকারিকৃত ২৭১ কলেজ শিক্ষকরা যা জানতে চান মেডিকেল ভর্তি কোচিং সেন্টার ১ সেপ্টেম্বর থেকে বন্ধের নির্দেশ - dainik shiksha মেডিকেল ভর্তি কোচিং সেন্টার ১ সেপ্টেম্বর থেকে বন্ধের নির্দেশ অবসর সুবিধার আবেদন শুধুই অনলাইনে, দালাল ধরবেন না(ভিডিও) - dainik shiksha অবসর সুবিধার আবেদন শুধুই অনলাইনে, দালাল ধরবেন না(ভিডিও) দৈনিক শিক্ষায় বিজ্ঞাপন পাঠান ইমেইলে - dainik shiksha দৈনিক শিক্ষায় বিজ্ঞাপন পাঠান ইমেইলে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া - dainik shiksha জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া please click here to view dainikshiksha website