শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের পরিপত্র বাতিলের দাবি - বিবিধ - Dainikshiksha

শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের পরিপত্র বাতিলের দাবি

নিজস্ব প্রতিবেদক |

অধ্যক্ষ ও উপাধ্যক্ষ নিয়োগের বিষয়ে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের একটি পরিপত্রকে ‘শিক্ষক স্বার্থবিরোধী’ আখ্যা দিয়ে অবিলম্বে তা বাতিলের দাবি জানিয়েছেন রাজশাহীর শিক্ষকরা। সোমবার (৪মার্চ) সকালে সংবাদ সম্মেলন করে তারা এ দাবি জানান শিক্ষক নেতারা। সংবাদ সম্মেলনে গত ২৫ ফেব্রুয়ারি জারি করা এ পরিপত্রটিকে ‘শিক্ষক স্বার্থবিরোধী’ হিসেবে আখ্যায়িত করেন শিক্ষকরা।

জাতীয় শিক্ষক-কর্মচারী ফ্রন্টের রাজশাহী জেলা শাখার ব্যানারে এই সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়।

রাজশাহী মহানগরীর শাহমখদুম কলেজে অনুষ্ঠিত এ সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য দেন ফ্রন্টের জেলার আহ্বায়ক শফিকুর রহমান বাদশা। তিনি নতুন পরিপত্র বাতিলের পাশাপাশি ২০১০  খ্রিষ্টাব্দের শিক্ষানীতির আলোকে একটি পূর্ণাঙ্গ শিক্ষা আইন প্রণয়নের দাবি জানান।

শফিকুর রহমান বাদশা বলেন, বর্তমান পরিপত্রে অধ্যক্ষ পদে নিয়োগ পেতে শুধুমাত্র উচ্চ মাধ্যমিক কলেজের অধ্যক্ষ এবং ডিগ্রি কলেজের উপাধ্যক্ষ আবেদন করতে পারবেন। কোনো শিক্ষকেরই আবেদন করার যোগ্যতা নেই।

অথচ জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ে বিধান অনুযায়ী, কলেজে ১৫ বছর শিক্ষকতার অভিজ্ঞতা থাকলেই অধ্যক্ষ পদের জন্য আবেদন করা যায়। তারা পরিপত্র বাতিল করে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের এই বিধান চালু রাখার দাবি জানাচ্ছেন।

তিনি বলেন, বর্তমান পরিপত্রে প্রধান শিক্ষক নিয়োগের ক্ষেত্রে শুধুমাত্র সহকারী প্রধান শিক্ষক ও জুনিয়র প্রধান শিক্ষক আবেদন করতে পারবেন। আগের পরিপত্রে ১২ বছর শিক্ষকতার অভিজ্ঞতা থাকলেই প্রধান শিক্ষক পদে আবেদন করতে পারতেন। বর্তমান পরিপত্রের কারণে অনেক অভিজ্ঞ শিক্ষক প্রধান শিক্ষক পদে নিয়োগের আবেদন করতে পারবেন না।

এদিকে বর্তমান সংশোধনীতে উচ্চ মাধ্যমিক কলেজের অধ্যক্ষ ও ডিগ্রি কলেজের উপাধ্যক্ষ পদে সহকারী অধ্যাপক হওয়া বাধ্যতামূলক করায় অনেক যোগ্য শিক্ষক ২৫-৩০ বছর প্রভাষক পদে চাকরি করেও আবেদন করতে পারবেন না। অন্যদিকে নতুন প্রতিষ্ঠানে ৮ বছরে সহকারী অধ্যাপক হয়ে ১২ বছর চাকরি করে অধ্যক্ষ ও উপাধ্যক্ষ পদে আবেদন করা যাবে। এটা কখনই যুক্তি সংগত হতে পারে না।

তাই তারা নতুন পরিপত্র বাতিলের দাবি জানাচ্ছেন। এর পাশাপাশি তারা ২০১০ খ্রিষ্টাব্দের পরিপত্র অনুযায়ী সহযোগী অধ্যাপকের পদে পদোন্নতি এবং বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে পদোন্নতির ক্ষেত্রে অনুপাত প্রথা বাতিলের দাবি জানান।

সংবাদ সম্মেলনে অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন ফ্রন্টের জেলা শাখার যুগ্ম আহ্বায়ক আবদুল বারী, অধ্যক্ষ রাজকুমার সরকার, আবদুর রাজ্জাক, মজিবর রহমান, অধ্যক্ষ জুলফিকার জুলফিকার আহমেদ গোলাপ, অধ্যক্ষ আলমগীর মালেক, অধ্যক্ষ এসএম রেজাউল ইসলাম প্রমুখ।

১৬তম শিক্ষক নিবন্ধনের প্রিলিমিনারি ৩০ আগস্ট - dainik shiksha ১৬তম শিক্ষক নিবন্ধনের প্রিলিমিনারি ৩০ আগস্ট স্কুল-কলেজ শিক্ষকদের মে মাসের এমপিওর চেক ব্যাংকে - dainik shiksha স্কুল-কলেজ শিক্ষকদের মে মাসের এমপিওর চেক ব্যাংকে ম্যানেজিং কমিটির শিক্ষাগত যোগ্যতা নিয়ে সংসদীয় কমিটিতে বিতর্ক - dainik shiksha ম্যানেজিং কমিটির শিক্ষাগত যোগ্যতা নিয়ে সংসদীয় কমিটিতে বিতর্ক প্রাথমিকে শিক্ষক নিয়োগ: ৫ দিন আগে অ্যাডমিট না পেলে যা করবেন - dainik shiksha প্রাথমিকে শিক্ষক নিয়োগ: ৫ দিন আগে অ্যাডমিট না পেলে যা করবেন নতুন সূচিতে কোন জেলায় কবে প্রাথমিকের শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষা - dainik shiksha নতুন সূচিতে কোন জেলায় কবে প্রাথমিকের শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষা বিশ্ববিদ্যালয় র‍্যাংকিং নিয়ে যা বললেন ড. জাফর ইকবাল - dainik shiksha বিশ্ববিদ্যালয় র‍্যাংকিং নিয়ে যা বললেন ড. জাফর ইকবাল সেহরি ও ইফতারের সময়সূচি - dainik shiksha সেহরি ও ইফতারের সময়সূচি ২০১৯ খ্রিষ্টাব্দের স্কুলের ছুটির তালিকা - dainik shiksha ২০১৯ খ্রিষ্টাব্দের স্কুলের ছুটির তালিকা জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া - dainik shiksha জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া please click here to view dainikshiksha website