ষষ্ঠ শ্রেণির ছাত্রীর গর্ভে শিশুর জন্ম - বিবিধ - দৈনিকশিক্ষা

ষষ্ঠ শ্রেণির ছাত্রীর গর্ভে শিশুর জন্ম

ঝালকাঠি প্রতিনিধি: |

১৩ বছরের এক ছাত্রী জন্ম দিয়েছে শিশু সন্তান। ষষ্ঠ শ্রেণির ছাত্রী হাসপাতালে এক পুত্র সন্তানের জন্ম দিয়েছে। ঘটনাটি ঝালকিাঠি সদরের। অবশ্য নবজাতকের পিতার পরিচয় এখনও জানা যায়নি।

পিতার পরিচয় জানতে ভিকটিমের সৎ বাবা ও নবজাতকের শরীর থেকে ডিএনএ নমুনা সংগ্রহ করে   পরীক্ষার জন্য ঢাকায় পাঠানো হচ্ছে। 

ঝালকাঠি সদর থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মো. আবু তাহের বলেন, শহরের একটি স্কুলের ষষ্ঠ শ্রেণির  ছাত্রীটি অন্তসত্বা হয়েছে খবরে গত ১০ সেপ্টেম্বর আমারা তাকে থানা হেফাজতে আনি। মেয়েটি অভিযোগ করে, তার মা সাহেরা আক্তার কাজল ও সৎ বাবা কাজী আলম তাকে দীর্ঘদিন ধরে জোরপূর্বক অনৈতিক কাজে বাধ্য করে অর্থ উপার্জন করে আসছিলো। বিভিন্ন সময় অপরিচিত পুরুষদের তার ঘরে ঢুকিয়ে দিয়ে মা ও সৎ বাবা বাইরে পাহারা দিত। মাঝেমধ্যে সৎ বাবা কাজী আলমও তাকে যৌন নিপিড়ন করতেন।

ওই দিন রাতেই পুলিশ মেয়েটির অভিযোগের প্রেক্ষিতে সদর থানায় একাটি মামলা দায়ের করে মা সাহেরা ও সৎ বাবা আলমকে গ্রেপ্তার করে।

এদিকে ষষ্ঠ শ্রেণির ওই ছাত্রীকে ভর্তি করা হয় ঝালকাঠি সদর হাসপাতালে। বুধবার (১৮ সেপ্টেম্বর)সদর হাসপাতালের গাইনি বিভাগে চিকিৎসাধীন অবস্থায় সে একটি পুত্র সন্তান জন্ম দেয়। ঝালকাঠি সদর হাসপাতালের সিনিয়র স্টাফ নার্স নাজনিন বেগম জানান, মা অপ্রাপ্তবয়স্ক হওয়ায় কিছুটা অসুস্থ। তবে নবজাতক স্বভাবিক ও সুস্থ রয়েছে।

এলাকারবাসী জানায়,  ঝালকাঠি সদর উপজেলার মহদীপুর গ্রামের ইউনুস হাওলাদারের সঙ্গে ১৫ বছর আগে বিয়ে হয় একই এলাকার সাহেরা আক্তার কাজলের। তাদের ঘরে জন্ম নেয় এ কন্যা সন্তান (ভিকটিম)। তবে  সাহেরা ও ইউনুসের সংসার ভেঙে যায়।  বিবাহ বিচ্ছেদ হয়। একমাত্র কন্যা সন্তান নিয়ে সাহেরা শহরের কাঠপট্টি এলাকায় একটি ভাড়া বাসায় চলে আসেন। ২০১৪ সালে সাহেরা শহরের কালীবাড়ি সড়কের টেলিভিশন মেকার কাজী আলমকে দ্বিতীয় বিয়ে করেন। আর সেখানেই মা ও সৎ বাবার সাথে মেয়েটি নতুন সংসারে থাকে।

বর্তমানে হাসপাতালে ভর্তি ভিকটিম সাংবাদিকদের জানায়, সে যখন পঞ্চম শ্রেণিতে পড়ে, তখন থেকেই তাকে জোর করে মা ও সৎ বাবা অন্য পুরুষের সঙ্গে অনৈতিক কাজে বাধ্য করতেন। এমনকি সৎ বাবাও তাকে ধর্ষণ করতো। বর্তমানে শহরের একটি স্কুলের ষষ্ঠ শ্রেণির ছাত্রী সে।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা ঝালকাঠি সদর থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মো. সরোয়ার হোসেন বলেন, জন্ম নেয়া সন্তানের পিতৃ পরিচয় নিশ্চিত হওয়ার জন্য নবজাতক এবং ভিকটিমের সৎ বাবা কাজী আলমের শরীর থেকে নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে।  ডিএনএ পরীক্ষার জন্য তা ঢাকা সিআইডিতে পাঠানোর প্রক্রিয়া চলছে। একই সাথে অন্যান্য আইনী পদক্ষেপও নেয়া হচ্ছে।

করোনায় আরো ৩৫ জনের মৃত্যু, নতুন শনাক্ত ২ হাজার ৪২৩ - dainik shiksha করোনায় আরো ৩৫ জনের মৃত্যু, নতুন শনাক্ত ২ হাজার ৪২৩ চাষ না করে কৃষি জমি ফেলে রাখলে নিয়ে নেবে সরকার - dainik shiksha চাষ না করে কৃষি জমি ফেলে রাখলে নিয়ে নেবে সরকার পছন্দের শিক্ষকের পাঠদান পাওয়া যাবে মোবাইল ফোনে - dainik shiksha পছন্দের শিক্ষকের পাঠদান পাওয়া যাবে মোবাইল ফোনে লকডাউন উঠানো, না উঠানো নিয়ে যা বললেন এন আই খান (ভিডিও) - dainik shiksha লকডাউন উঠানো, না উঠানো নিয়ে যা বললেন এন আই খান (ভিডিও) শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের তথ্য চেয়েছে মন্ত্রণালয় - dainik shiksha শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের তথ্য চেয়েছে মন্ত্রণালয় নটরডেম কলেজে ভর্তি কার্যক্রম স্থগিত - dainik shiksha নটরডেম কলেজে ভর্তি কার্যক্রম স্থগিত জেডিসির রেজিস্ট্রেশনের সময় ফের বাড়ল - dainik shiksha জেডিসির রেজিস্ট্রেশনের সময় ফের বাড়ল কলেজে ভর্তি : দৈনিক শিক্ষায় বিজ্ঞাপন পাঠান ইমেইলে - dainik shiksha কলেজে ভর্তি : দৈনিক শিক্ষায় বিজ্ঞাপন পাঠান ইমেইলে ঘরে বসে পাঠদান: শিক্ষকদের জন্য ফ্রি অনলাইন কোর্স - dainik shiksha ঘরে বসে পাঠদান: শিক্ষকদের জন্য ফ্রি অনলাইন কোর্স ৮ জুনের মধ্যে শিক্ষক-কর্মচারীদের তালিকা চেয়েছে কারিগরি শিক্ষা বোর্ড - dainik shiksha ৮ জুনের মধ্যে শিক্ষক-কর্মচারীদের তালিকা চেয়েছে কারিগরি শিক্ষা বোর্ড দাখিলের ফল পুনঃনিরীক্ষার আবেদন যেভাবে - dainik shiksha দাখিলের ফল পুনঃনিরীক্ষার আবেদন যেভাবে এসএসসির ফল পুনঃনিরীক্ষার আবেদন ৭ জুনের মধ্যে - dainik shiksha এসএসসির ফল পুনঃনিরীক্ষার আবেদন ৭ জুনের মধ্যে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া - dainik shiksha জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া উপবৃত্তির টাকা মেরে দেয়ার অভিযোগে মাদরাসার অফিস সহকারীর গলায় জুতার মালা - dainik shiksha উপবৃত্তির টাকা মেরে দেয়ার অভিযোগে মাদরাসার অফিস সহকারীর গলায় জুতার মালা please click here to view dainikshiksha website