সন্দেহজনক পরিচয় নিশ্চিতে ফটো আইডি নেবে ইনস্টাগ্রাম - আইসিটি - দৈনিকশিক্ষা

সন্দেহজনক পরিচয় নিশ্চিতে ফটো আইডি নেবে ইনস্টাগ্রাম

দৈনিকশিক্ষা ডেস্ক |

এখন থেকে সন্দেহজনক কোনো অ্যাকাউন্টের ক্ষেত্রে পরিচয় নিশ্চিত করতে ফটো আইডি চাইবে ফেসবুকের মালিকানাধীন ছবি শেয়ারের অ্যাপ ইনস্টাগ্রাম। সম্প্রতি প্রতিষ্ঠানটির পক্ষ থেকে এ ঘোষণা দেওয়া হয়েছে। 

ইনস্টাগ্রামের এক ব্লগ পোস্টে বলা হয়েছে, অ্যাকাউন্ট কে চালাচ্ছে, তা নিশ্চিত হওয়ার জন্য পরিচয় শনাক্ত করতে বলা হবে। সম্ভাব্য সন্দেহজনক আচরণ দেখাতে শুরু করলেই ফটো আইডি চাওয়া হবে।

ইনস্টাগ্রামের পক্ষ থেকে বলা হচ্ছে, ফটো আইডি চাওয়ার উদ্দেশ্য হচ্ছে রোবট বা বট অ্যাকাউন্ট থেকে মুক্তি পাওয়া। এতে ইনস্টাগ্রাম ব্যবহারকারী ভুয়া অ্যাকাউন্ট ব্যবহারকারী থেকে মুক্তি পাবেন। এ ছাড়া কীভাবে নির্দিষ্ট কিছু অ্যাকাউন্ট থেকে অনুসারীদের ভুল পথে নেওয়ার বিষয়টিও ঠেকাতে পারবে তারা। ভুয়া অ্যাকাউন্টগুলো শনাক্তও করা যাবে এতে।

ইনস্টাগ্রাম কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, নতুন স্ক্রিনিং প্রক্রিয়াটি অল্প কিছু ব্যবহারকারীর ওপর প্রভাব ফেলবে। ঠিক কাদের ওপর বা কোন অঞ্চলে আইডি চাওয়ার বিষয়টি শুরু করবে, তা এখনো জানানো হয়নি। 

ইনস্টাগ্রাম অ্যাকাউন্ট থেকে যেসব আচরণকে সন্দেহজনক হিসেবে বিবেচনা করা হবে, এর মধ্যে রয়েছে—এক অঞ্চলের অ্যাকাউন্টধারীর ভিন্ন অঞ্চল বা ভিন্ন দেশের অনুসারী বেশি, অটোমেশন বা স্বয়ংক্রিয় পদ্ধতিতে অ্যাকাউন্ট চালানোর লক্ষণ ও সম্ভাব্য সন্দেহভাজন কার্যক্রম।

ইনস্টাগ্রামে বিভিন্ন ধরনের আইডি দিয়ে পরিচয় শনাক্ত করা যাবে। যেসব আইডিতে বয়স, পরিচয় শনাক্তকরণ নম্বর ও অ্যাকাউন্ট সম্পর্কিত তথ্য থাকবে, তা গ্রহণযোগ্য হবে। বেশির ভাগ ক্ষেত্রে পূর্ণ নাম ও ছবিযুক্ত কার্ড হিসেবে সরকার–স্বীকৃত জাতীয় পরিচয়পত্র ও বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের আইডিও গ্রহণযোগ্য হবে। যিনি পরিচয়পত্র আপলোড করবেন, তখন তাকে একটি সেলফিও তুলে পরিচয় নিশ্চিত করতে হবে। পরিচয় নিশ্চিত হলে স্বাভাবিকভাবেই ইনস্টাগ্রাম ব্যবহার করা যাবে। তবে সন্দেহ দূর না হলে ইনস্টাগ্রাম কর্তৃপক্ষ আরও তদন্ত করে প্রমাণ চাইতে পারে।

ইনস্টাগ্রাম কর্তৃপক্ষ বলছে, অ্যাপটিতে প্রদত্ত ফটো আইডি নিরাপদভাবে সংরক্ষণ করা হবে এবং তাদের ডেটাবেইস থেকে ৩০ দিনের মধ্যে সরিয়ে ফেলা হবে। এ সময়ের মধ্যে তাদের পর্যালোচনা সম্পন্ন হবে। এ তথ্য আর ব্যক্তিগত প্রোফাইলে শেয়ার করা হবে না।
ইনস্টাগ্রাম কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, যারা ফটো আইডি দেবে না, তাদের কনটেন্ট বেশি মানুষকে দেখানো হবে না। এ ছাড়া অ্যাকাউন্ট বন্ধ করে দেওয়া হতে পারে। যারা ফটো আইডি পর্যালোচনায় ভুয়া হিসেবে প্রমাণিত হবে, তাদের অ্যাকাউন্ট বন্ধ করে তথ্য মুছে ফেলা হবে।

শিক্ষক নিয়োগ কমিশন আইনের খসড়া প্রস্তুত - dainik shiksha শিক্ষক নিয়োগ কমিশন আইনের খসড়া প্রস্তুত আটকে যাচ্ছে তৃতীয় চক্রে শিক্ষক নিয়োগ প্রক্রিয়া (ভিডিও) - dainik shiksha আটকে যাচ্ছে তৃতীয় চক্রে শিক্ষক নিয়োগ প্রক্রিয়া (ভিডিও) এইচএসসি পরীক্ষা নিয়ে শিক্ষাবোর্ড চেয়ারম্যানদের তিন প্রস্তাব - dainik shiksha এইচএসসি পরীক্ষা নিয়ে শিক্ষাবোর্ড চেয়ারম্যানদের তিন প্রস্তাব মাদরাসার স্বীকৃতি ও বিভাগ খোলার প্রস্তাব মূল্যায়নে মন্ত্রণালয়ের কমিটি - dainik shiksha মাদরাসার স্বীকৃতি ও বিভাগ খোলার প্রস্তাব মূল্যায়নে মন্ত্রণালয়ের কমিটি ঋণের কিস্তি পরিশোধ স্থগিত ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত - dainik shiksha ঋণের কিস্তি পরিশোধ স্থগিত ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত জালসনদেই ৭ বছর এমপিওভোগ! - dainik shiksha জালসনদেই ৭ বছর এমপিওভোগ! কবে কোন দিবস, কীভাবে পালন, নতুন নির্দেশনা জারি - dainik shiksha কবে কোন দিবস, কীভাবে পালন, নতুন নির্দেশনা জারি শিক্ষাব্যবস্থা জাতীয়করণের দাবিতে শিক্ষক সমাবেশ ৫ অক্টোবর - dainik shiksha শিক্ষাব্যবস্থা জাতীয়করণের দাবিতে শিক্ষক সমাবেশ ৫ অক্টোবর please click here to view dainikshiksha website