সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ক্যান্টিনে মিল্কভিটা ক্রয়ে মন্ত্রণালয়ের পরামর্শ - কলেজ - Dainikshiksha

সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ক্যান্টিনে মিল্কভিটা ক্রয়ে মন্ত্রণালয়ের পরামর্শ

নিজস্ব প্রতিবেদক |

দেশের সকল বিভাগীয় শহরের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোর মিল্কভিটা উৎপাদিত দুগ্ধজাত সামগ্রী ক্রয়ের বিষয়টি বিবেচনা করতে বলেছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়। শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগ থেকে এ সংক্রান্ত একটি চিঠি মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালকের কাছে পাঠানো হয়েছে। 

চিঠিতে বলা হয়, বাংলাদেশ দুগ্ধ উৎপাদনকারী সমবায় ইউনিয়ন লিমিটেড (মিল্কভিটা) বাংলাদেশ সরকারে স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়ের অধীনের একটি জাতীয় প্রতিষ্ঠান। মিল্কভিটা উৎপাদিত পাস্তুরিত তরল দুধ, ফ্লেভারড মিল্ক, দই, আইসক্রিম. লাবং, মাঠা, চকলেটসহ অন্যান্য দুগ্ধজাত সামগ্রী বিভিন্ন সরকারি-বেসরকারি স্কুল-কলেজের ক্যান্টিনে ক্রয় বিক্রয়ের আওতায় আনতে ভ্যাটমুক্ত কারখানা-মূল্যে ক্রয়ের বিষয়টি বিবেচনা করার জন্য প্রয়োজনীয় নির্দেশনা প্রদানের জন্য বলা হয়েছে।

     

বাংলাদেশ দুগ্ধ উৎপাদনকারী সমবায় ইউনিয়ন লিমিটেডের উৎপাদিত পণ্য ‘মিল্কভিটা’ নামে পরিচিত। ১৯৭৩ থেকে ১৯৭৫ খ্রিস্টাব্দ পর্যন্ত জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান দারিদ্র্য বিমোচন এবং দেশে দুধ উৎপাদন বাড়ানোর জন্য বিশেষ পদক্ষেপ গ্রহণ করেন। ১৯৭৩ খ্রিস্টাব্দে গ্রামীণ বাংলাদেশের দরিদ্র, ভূমিহীন ও ক্ষুদ্র দুগ্ধ উৎপাদনকারী কৃষকদের ন্যায্য মূল্য নিশ্চিত করার লক্ষ্যে এটি ‘সমবায় ডেইরি কমপ্লেক্স’ শীর্ষক সরকারের একটি উন্নয়ন প্রকল্প হিসেবে শুরু হয় মিল্কভিটা।

অন্যদিকে নগরবাসীদের স্বাস্থ্যকর দুধ এবং দুগ্ধপণ্য নিয়মিত সরবরাহ করা ছিল প্রতিষ্ঠানটির অন্যতম লক্ষ্য। প্রকল্পটি পাবনা, টাঙ্গাইল, মানিকগঞ্জ ও ফরিদপুরে দুগ্ধ প্রক্রিয়াজাত করার প্ল্যান্ট তৈরি করে। পরবর্তীতে প্রতিষ্ঠানটির নাম পরিবর্তন করে বাংলাদেশ দুগ্ধ উৎপাদনকারী সমবায় ইউনিয়ন লিমিটেড (মিল্কভিটা) করা হয়। 

পেন্সিলে লেখা যাবে না স্কুল ভর্তি পরীক্ষায় - dainik shiksha পেন্সিলে লেখা যাবে না স্কুল ভর্তি পরীক্ষায় আগামী বছর সব স্কুলে একযোগে প্রাক প্রাথমিকে শিক্ষক নিয়োগ - dainik shiksha আগামী বছর সব স্কুলে একযোগে প্রাক প্রাথমিকে শিক্ষক নিয়োগ এক নজরে শিক্ষক নিবন্ধন পরীক্ষার নম্বর বিভাজন - dainik shiksha এক নজরে শিক্ষক নিবন্ধন পরীক্ষার নম্বর বিভাজন ভিকারুননিসার অডিট রিপোর্ট, শাখা খোলার কাগজপত্র চেয়েছে ঢাকা বোর্ড - dainik shiksha ভিকারুননিসার অডিট রিপোর্ট, শাখা খোলার কাগজপত্র চেয়েছে ঢাকা বোর্ড কে এই নাজনীন ফেরদৌস? - dainik shiksha কে এই নাজনীন ফেরদৌস? জাল সনদ বিক্রেতার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার নির্দেশ - dainik shiksha জাল সনদ বিক্রেতার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার নির্দেশ প্রাথমিক সমাপনী ও জেএসসি পরীক্ষার ফল ২৪ ডিসেম্বর - dainik shiksha প্রাথমিক সমাপনী ও জেএসসি পরীক্ষার ফল ২৪ ডিসেম্বর নবসৃষ্ট পদে নিয়োগে ও ব্যয়ের তথ্য চেয়েছে মন্ত্রণালয় - dainik shiksha নবসৃষ্ট পদে নিয়োগে ও ব্যয়ের তথ্য চেয়েছে মন্ত্রণালয় বিজয় দিবসে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে কর্মসূচি পালনে নির্দেশনা - dainik shiksha বিজয় দিবসে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে কর্মসূচি পালনে নির্দেশনা স্টুডেন্টস কেবিনেট নির্বাচনের ব্যবস্থা নিতে নির্দেশ - dainik shiksha স্টুডেন্টস কেবিনেট নির্বাচনের ব্যবস্থা নিতে নির্দেশ জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া - dainik shiksha জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া please click here to view dainikshiksha website