সরকারিকৃত কলেজের ননএমপিও শিক্ষকরা সরকারের কাছে আর্থিক সহায়তা চান - কলেজ - দৈনিকশিক্ষা

সরকারিকৃত কলেজের ননএমপিও শিক্ষকরা সরকারের কাছে আর্থিক সহায়তা চান

নিজস্ব প্রতিবেদক |

দেশে ছড়িয়ে পড়ছে করোনা ভাইরাস। ভাইরাস সংক্রমণ ঠেকাতে সব সরকারি বেসরকারি অফিস-আদালত শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ রয়েছে। মানুষ ঘরবন্দি। এই অবস্থায় বিপাকে পড়েছেন সরকারিকৃত কলেজগুলোর নন-এমপিও শিক্ষকরা। কারণ, সরকারিকরণের প্রজ্ঞাপন জারি হওয়ার সাথে সাথে অধিকাংশ সরকারিকৃত কলেজের অধ্যক্ষ প্রতিষ্ঠানের ফান্ড থেকে নন-এমপিও শিক্ষকদের বেতন ভাতা বন্ধ করে দিয়েছেন। টিউশনিসহ নানা বিকল্প পন্থায় কিছু টাকা উপার্জনের ব্যবস্থা করলেও স্থবির জনজীবনে সে সুযোগ বন্ধ হয়ে গেছে ভুক্তভোগী এসব শিক্ষকের। আর শিক্ষক হিসেবে কারো কাছে হাত পাততে পারছেন না তারা। তাই, এই দুর্যোগকালে সরকারিকৃত কলেজের নন-এমপিও শিক্ষকরা সরকারের কাছে আর্থিক সহায়তা দাবি করেছেন। তিনশর বেশি সরকারিকৃত কলেজে চার হাজারের মতো ননএমপিও শিক্ষক রয়েছেন। 

বুধবার (৮ এপ্রিল) দৈনিক শিক্ষা ডটকমে পাঠানো এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ দাবি জানিয়েছেন সরকারি কলেজ শিক্ষক পরিষদের নেতারা

তারা বলেন, দেশের শিক্ষা ব্যবস্থার উন্নয়নের জন্য সরকারি কলেজবিহীন উপজেলা সদরে  একটি করে কলেজ সরকারি ঘোষণা করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তাঁর ঘোষণা অনুযায়ী প্রজ্ঞাপন জারি হলেও সরকারিকরণের সুবিধা পাচ্ছেন না কেউই। কলেজ সরকারি হলেও শিক্ষকরা বেসরকারি। পদসৃজন ও অ্যাডহক নিয়োগ আটকে রেখেছে শিক্ষা অধিদপ্তর ও মন্ত্রণালয়ে কর্মরত বিসিএস সাধারণ শিক্ষা ক্যাডারের কতিপয় কর্মকর্তা। তারা শেখ হাসিনার সিদ্ধান্তকে কৗশলে আটকে রেখেছেন বছরের পর বছর। ঠিকমতো কাজ হলে আজকে আমাদের এই সমস্যার সম্মূখীন হতে হতো না।  

সংগঠনের কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি কে এম দেলোয়ার হোসেন ও সাধারণ সম্পাদক মোঃ ফারুক হোসেন স্বাক্ষরিত বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, করোনা ভাইরাস সংক্রমণ রোধে চলমান পরিস্থিতিতে বিপাকে পড়েছেন সদ্য সরকারিকৃত কলেজের ননএমপিও শিক্ষকরা। তারা পাচ্ছে না কলেজ থেকে কোন বেতন-ভাতা। লোক লজ্জার ভয়ে যেতে পারছে না লাইনে দাঁড়িয়ে ত্রান গ্রহণ করতে। এসব শিক্ষকদের পদ সৃজনের ও অ্যাডহক নিয়োগের কার্যক্রম এখনো সম্পূর্ণ না হওয়ায় তাদের বেতন ভাতা প্রদানের চলছে ভীষণ রকমের অনিয়ম ও আজব পদ্ধতি। সরকারিকরণের প্রজ্ঞাপন জারির তারিখ থেকে সরকারিকৃত কলেজের এমপিওভুক্ত শিক্ষকরা এমপিও পাচ্ছেন। কিন্তু সরকারিকৃত কলেজের ননএমপিও শিক্ষকদের বেলায় রয়েছে ভীষণ অব্যবস্থাপনা। 

বিজ্ঞপ্তিতে শিক্ষক নেতারা আরও বলন, নিয়োগের শর্তানুসারে ননএমপিও শিক্ষকদের কলেজ ফান্ড থেকে শতভাগ বেতন ভাতা প্রদানের কথা। কলেজে পর্যাপ্ত ফান্ড থাকা সত্ত্বেও অনেক প্রতিষ্ঠান তা মানছে না। কোন কোন প্রতিষ্ঠান চালু রাখলেও অনেক প্রতিষ্ঠান ননএমপিও শিক্ষকদের বেতন ভাতা বন্ধ করে দিয়েছে।  করোনা ভাইরাস সংক্রমণ রোধে চলমান পরিস্থিতিতে তারা পরছে চরম বিপাকে। দিন কাটছে অনাহারে অর্ধাহারে। 

তাই, বিজ্ঞপ্তিতে সরকারিকৃত যেসব কলেজে ননএমপিও শিক্ষকদের বেতন ভাতা বন্ধ রেখেছে, সেসব কলেজের ননএমপিও শিক্ষকদের কলেজ অংশের বেতন ভাতা চালু করার দাবি জানিয়েছেন শিক্ষক নেতারা। অ্যাডহক নিয়োগের আগ পর্যন্ত সকল ননএমপিও শিক্ষকদের বেতন ভাতা পূর্বর ন্যায় চলমান রাখার দাবিও জানিয়েছেন তারা। এসব কলেজের নন-এমপিও শিক্ষকদের অবিলম্বে প্রধানমন্ত্রী ঘোষিত বিশেষ আর্থিক প্রণোদনা প্যাকেজের আওতায় এনে সরকারিকৃত কলেজের নন এমপিও শিক্ষকদের আর্থিক সাহায্য দেয়ার দাবি জানিয়েছেন শিক্ষক নেতারা। শিক্ষক নেতারা বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলেন, করোনা ভাইরাস সংক্রমণ রোধে চলমান অঘোষিত লকডাউন পরিস্থিতিতে অচল হয়ে যাওয়া অর্থনীতিকে সচল করে তুলতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ঘোষিত বিশেষ প্রণোদনা প্যাকেজ খুবই কার্যকর হবে।

এ ছাড়াও করোনা ভাইরাস সংক্রমণ মোকাবেলায় সরকারের গৃহীত সকল পদক্ষেপ বাস্তবায়নে সহয়তা এবং সরকারি নির্দেশনা মেনে চলার জন্য শিক্ষক ও ছাত্র-ছাত্রীসহ সর্ব সাধারণকে আহব্বান জানিয়েছেন শিক্ষক নেতারা।

পাবানা থেকে আমাদের প্রতিনিধি জানান, জেলার সদ্য সরকারিকৃত সাতটি কলেজের মধ্যে দু’টি কলেজের ১শ ৮ জন শিক্ষক এক বছর যাবত বেতন-ভাতা না পেয়ে মানবেতর জীবন যাপন করছেন। জানাগেছে, ২০১৮ সালের ১২ আগস্ট শিক্ষা মন্ত্রণালয় প্রজ্ঞাপনের মাধ্যমে পাবনার সুজানগর উপজেলার জহুরুল কামাল ডিগ্রী কলেজ,সাঁথিয়া ডিগ্রী কলেজ,বেড়া ডিগ্রী কলেজ,ফরিদপুর উপজেলার মোহাম্মদ ইয়াছিন ডিগ্রী কলেজ,ভাঙ্গুড়া উপজেলার হাজী জামাল উদ্দিন ডিগ্রী কলেজ,চাটমোহর ডিগ্রী কলেজ ও আটঘরিয়া ডিগ্রী কলেজ সরকারি ঘোষনা করে। তার পর থেকে অধ্যক্ষগণ কলেজের নন-এমপিও সম্মান শ্রেণির শিক্ষক ও ডিগ্রী পাস শ্রেণির তৃতীয় শিক্ষকদের বেতন বন্ধ করে দেন। এর আগে কলেজ হতে প্রতি মাসে তারা একটা থোক বরাদ্দ পেতেন তাই দিয়ে কোনো ভাবে শিক্ষকদের সংসার চলতো।

সরকারি হাজী জামাল উদ্দিন ডিগ্রী কলেজের ইসলামের ইতিহাস সম্মান শ্রেণির প্রভাষক নুর ইসলাম ও প্রাণি বিদ্যা বিভাগের প্রভাষক মিজানুর রহমান জানান আমরা নন-এমপিও ৩৩জন এবং সরকারি চাটমোহর ডিগ্রী কলেজের সমাজ কর্ম বিভাগের প্রভাষক সালাউদ্দিন ও রাষ্ট্রব্জ্ঞিান বিভাগের প্রভাষক হিরা পারভিন জানান, আমরা নন-এমপিও ৭৫জন শিক্ষক গত বছর এপ্রিল-মে থেকে কলেজের বেতন-ভাতা কিছুই পাই না। 

করোনায় গত ২৪ ঘণ্টায় ২১ জনের মৃত্যু, নতুন শনাক্ত ১ হাজার ১৬৬ - dainik shiksha করোনায় গত ২৪ ঘণ্টায় ২১ জনের মৃত্যু, নতুন শনাক্ত ১ হাজার ১৬৬ এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষার ফল প্রকাশ ৩১ মে - dainik shiksha এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষার ফল প্রকাশ ৩১ মে দাখিলের ফল পেতে প্রি-রেজিস্ট্রেশন যেভাবে - dainik shiksha দাখিলের ফল পেতে প্রি-রেজিস্ট্রেশন যেভাবে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া - dainik shiksha জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া please click here to view dainikshiksha website