সরকারি স্কুল দখলের ব্যর্থ চেষ্টা - স্কুল - দৈনিকশিক্ষা

সরকারি স্কুল দখলের ব্যর্থ চেষ্টা

ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি |

ঠাকুরগাঁওয়ে মো. আজিজার রহমান ওরফে গামার বিরুদ্ধে রাতের আঁধারে রোড আদর্শ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়টি দখল করার অভিযোগ উঠেছে। বৃহস্পতিবার (৯ জুলাই) গভীর রাতে গোপনে টিনের বেড়া দিয়ে দখলের চেষ্টা করে সে। এসময় জমিটি পৈত্রিক ও ক্রয় সূত্রে নিজের বলে দাবি করে সাইনবোর্ড ঝুলিয়ে দেয় গামা।

দখলদার আজিজার রহমান গামা ঠাকুরগাঁও রোড ছিট চিলারং এলাকার মৃত ফজলুর রহমানের ছেলে।

জানা যায়, উক্ত বিদ্যালয়টি ১৯৮৭ খ্রিষ্টাব্দে বেসরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় হিসেবে প্রতিষ্ঠিত হয় এবং ২০১৩ খ্রিষ্টাব্দে সেটি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় হিসেবে তালিকাভুক্ত হয়। ওই বিদ্যালয়ের মোট জমিরি পরিমাণ ৩৩ শতক। তার মধ্যে ১৫ শতক জমি পৈত্রিক ও ক্রয় সূত্রে মালিকানা দাবি করেন আজিজার রহমান গামা।

স্থানীয়রা জানান, একটি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের মাঠ রাতের অন্ধকারে টিনের বেড়া দিয়ে দখল করাটা কোনো ভদ্র লোকের কাজ হতে পারে না। কেউ যদি সত্যিকার অর্থে মালিক হয়ে থাকেন তাহলে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণের মাধ্যমে এর সমাধান করাটা উত্তম। কিন্তু তা না করে এমন অসাধু উপায়ে বিদ্যালয়ের মাঠ দখল করাটা শুধু অন্যায় বা আইন পরিপন্থি।

এ বিষয়ে রোড আদর্শ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সভাপতি মাহমুদ হাসান রাজু জানান, করোনা পরিস্থিতির কারণে দীর্ঘদিন বিদ্যালয়টি বন্ধ থাকার সুযোগ নিয়ে ভূমিদস্যু আজিজার রহমান গামা রাতের আঁধারে বিদ্যালয়ের চারদিকে টিনের বেড়া দেন। বিদ্যালয় ক্লাস কক্ষের দরজার তালা ভেঙে চৌকি ও আসবাপত্রসহ কয়েকজন ভাড়া করা মহিলাকে রেখে দেন। পাশাপাশি টিনের বেড়ার উপর বিদ্যালয়ের জমি নিজের দাবি করে একটি সাইনবোর্ড ঝুলিয়ে দেন। এটা অন্যায়।

পৌরসভা ১২ নম্বর ওয়ার্ড কমিশনার একরামুল দৌল্লা জানান, জমি সংক্রান্ত জটিলতা থাকতে পারে এবং তার সমাধানও রয়েছে। দেশে আইন আদালত রয়েছে। আইনের মাধ্যমেও অনেক সমস্যা সমাধান হয়। কিন্তু রাতের আঁধারে সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় টিনের বেড়া দিয়ে দখল করা অবশ্যই অন্যায় ও বেআইনি।

সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আব্দুল্লাহ আল মামুন জানান, সরকারি বিদ্যালয় দখল নিঃসন্দেহে একটি অপরাধমূলক কাজ। এটি যে বা যারা করেছে তাদের বিরুদ্ধে তদন্ত সাপেক্ষে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

জানতে বিদ্যালয় দখলকারী ব্যক্তি আজিজার রহমান গামার ছিট চিলারং রোড এলাকার বাড়িতে গিয়েও তাকে ও তার পরিবারের কাউকে পাওয়া যায় নাই।

শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ছুটি ৩১ অক্টোবর পর্যন্ত - dainik shiksha শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ছুটি ৩১ অক্টোবর পর্যন্ত উচ্চতর গ্রেড পাচ্ছেন ৬ হাজার ৪১০ শিক্ষক - dainik shiksha উচ্চতর গ্রেড পাচ্ছেন ৬ হাজার ৪১০ শিক্ষক সরকারি স্কুলে ভর্তির নীতিমালা জারি - dainik shiksha সরকারি স্কুলে ভর্তির নীতিমালা জারি ‘সরকারিকরণের আদেশ জারির দিন থেকে শিক্ষকদের আর্থিক সুবিধা দেয়ার চেষ্টা চলছে’ - dainik shiksha ‘সরকারিকরণের আদেশ জারির দিন থেকে শিক্ষকদের আর্থিক সুবিধা দেয়ার চেষ্টা চলছে’ দুর্নীতিবাজ কর্মচারীরা ফিরে আসছে শিক্ষা ভবনে, মাদরাসা শাখার কাজ কি? - dainik shiksha দুর্নীতিবাজ কর্মচারীরা ফিরে আসছে শিক্ষা ভবনে, মাদরাসা শাখার কাজ কি? রিফাত হত্যা মামলা : মিন্নিসহ ৬ জনের ফাঁসি, খালাস ৪ - dainik shiksha রিফাত হত্যা মামলা : মিন্নিসহ ৬ জনের ফাঁসি, খালাস ৪ টাইমস্কেল পাওয়া অধিগ্রহণকৃত স্কুল শিক্ষকদের টাকা ফেরত নেয়ার কাজ শুরু - dainik shiksha টাইমস্কেল পাওয়া অধিগ্রহণকৃত স্কুল শিক্ষকদের টাকা ফেরত নেয়ার কাজ শুরু বিনা প্রয়োজনে কলেজ ক্যাম্পাসে জনসাধারণের প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা জারি - dainik shiksha বিনা প্রয়োজনে কলেজ ক্যাম্পাসে জনসাধারণের প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা জারি ক্যামব্রিয়ান কলেজের ভ্যাট ফাঁকি, গোয়েন্দাদের অভিযান - dainik shiksha ক্যামব্রিয়ান কলেজের ভ্যাট ফাঁকি, গোয়েন্দাদের অভিযান কোচিং ও পরীক্ষা নিয়ে সাংবাদিকদের যা জানাল মন্ত্রণালয় - dainik shiksha কোচিং ও পরীক্ষা নিয়ে সাংবাদিকদের যা জানাল মন্ত্রণালয় please click here to view dainikshiksha website