সর্বোচ্চ সংখ্যক যোগ্য শিক্ষা প্রতিষ্ঠান এমপিওভুক্ত করা হবে : শিক্ষামন্ত্রী - বিবিধ - Dainikshiksha

সর্বোচ্চ সংখ্যক যোগ্য শিক্ষা প্রতিষ্ঠান এমপিওভুক্ত করা হবে : শিক্ষামন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক |

এবার সর্বোচ্চ সংখ্যক যোগ্য শিক্ষা প্রতিষ্ঠান এমপিওভুক্ত করা হবে বলে সংসদকে জানিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী ড. দীপু মনি। মঙ্গলবার (১১ জুন) জাতীয় সংসদের প্রশ্নোত্তরে মন্ত্রী বলেন, দেশ এখন অর্থনৈতিকভাবে ব্যাপকভাবে এগিয়ে গেছে। কাজেই আমাদের আর্থিক সামর্থ্যও আগের তুলনায় অনেক বেশি। এ কারণে এবার আগের তুলনায় অনেক বেশি সংখ্যক শিক্ষা প্রতিষ্ঠানকে আমরা এমপিওভুক্ত করতে পারবো বলে আশা করছি। প্রত্যেক সংসদ সদস্যদের এলাকার মধ্যে যেসব শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ভালো ফল করছে তারা অবশ্যই এমপিওভুক্তির সুযোগ পাবে।

আওয়ামী লীগ দলের সংসদ সদস্য গোলাম খন্দকার প্রিন্সের করা এমপিও বিষয়ে একটি সম্পূরক প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী এ কথা বলেন। এর আগে সম্পূরক প্রশ্নে প্রিন্স সরকারের নীতিমালার পরিবর্তে স্থানীয় সংসদ সদস্যের সুপারিশের আলোকে এমপিভুক্তির দাবি জানালে মন্ত্রী তা নাকচ করে দেন।

ওই প্রশ্নের জবাব দিতে গিয়ে শিক্ষা মন্ত্রী বলেন, আমরা অতীতে দেখেছি দলীয় বিবেচনাকে কীভাবে অপব্যবহার করে যোগ্যতাকে ছুড়ে ফেলে দেয়া হয়েছে। মান ও গুণের প্রতি কোনো গুরুত্ব দেয়া হয়নি। ন্যাক্কারজনকভাবে সকল ক্ষেত্রে দলীয়করণকে গুরুত্ব দেয়া হয়েছে। কিন্তু শেখ হাসিনার সরকার জনগণের অধিকারের বিষয়ে সচেতন। আমরা যোগ্যতাকেই মাপকাঠি হিসেবে ধরছি।

নতুন এমপিওভুক্তির প্রসঙ্গ টেনে তিনি বলেন, দুর্গম অঞ্চল, ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠী, প্রতিবন্ধীদের শিক্ষা ও নারী শিক্ষাসহ কিছু বিশেষ ক্ষেত্র ছাড়া অন্য কোনো ক্ষেত্রে শৈথিল্য দেখানোর সুযোগ ২০১৮ খ্রিষ্টাব্দের এমপিও নীতিমালায় নেই।  আর নীতিমালার বাইরে গিয়ে কিছু করার সুযোগ মনে হয় না সরকারের মন্ত্রী হিসেবে আমার আছে। নীতিমালার মধ্য থেকে আমরা সর্বোচ্চ সংখ্যক প্রতিষ্ঠানকে এমপিওভুক্ত করতে পারবো বলে আশা করছি।

এমপিও শর্ত পূরণে ব্যর্থ হলে যেসব প্রতিষ্ঠানকে যোগ্যতা অর্জন সাপেক্ষে পরবর্তীকালে এমপিওভুক্তির আশ্বাস দিয়ে মন্ত্রী ওই সব প্রতিষ্ঠানগুলোতে স্থানীয় সংসদ সদস্যদের সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দেয়ার আহ্বান জানান। তিনি বলেন, যারা যোগ্যতা অর্জন করতে এখনো পারেনি, আপনারা সহযোগিতা করলে বাকি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলো যোগ্যতা অর্জন করে পরের বার নিশ্চায়ন হবে। আর নতুন এমপিওভুক্তির জন্য অতীতের মতো আর ১০ বছর অপেক্ষা করার দরকার হবে না।

একাদশে ভর্তি: ২য় দফার আবেদন শুরু - dainik shiksha একাদশে ভর্তি: ২য় দফার আবেদন শুরু বিসিএসেও তৃতীয় পরীক্ষক চালু - dainik shiksha বিসিএসেও তৃতীয় পরীক্ষক চালু ডিগ্রি ২য় বর্ষ পরীক্ষার ফরম পূরণের সময় বাড়লো - dainik shiksha ডিগ্রি ২য় বর্ষ পরীক্ষার ফরম পূরণের সময় বাড়লো জিপিএ-৫ বিলুপ্তির পর যেভাবে হবে নতুন গ্রেড বিন্যাস - dainik shiksha জিপিএ-৫ বিলুপ্তির পর যেভাবে হবে নতুন গ্রেড বিন্যাস পাবলিক পরীক্ষার গ্রেড: যা আছে আর যা হবে - dainik shiksha পাবলিক পরীক্ষার গ্রেড: যা আছে আর যা হবে প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষায় কঠোর নজরদারির নির্দেশ গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রীর - dainik shiksha প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষায় কঠোর নজরদারির নির্দেশ গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রীর শিক্ষক নিবন্ধন: ইন্টারন্যাশনাল বিজনেস বিষয়ের নতুন সিলেবাস দেখুন - dainik shiksha শিক্ষক নিবন্ধন: ইন্টারন্যাশনাল বিজনেস বিষয়ের নতুন সিলেবাস দেখুন সার্টিফিকেট ছাপার আগেই ২ কোটি টাকা তুলে নিলেন ছায়েফ উল্যাহ - dainik shiksha সার্টিফিকেট ছাপার আগেই ২ কোটি টাকা তুলে নিলেন ছায়েফ উল্যাহ রাজধানীর সকল ফার্মেসি থেকে মেয়াদোত্তীর্ণ ওষুধ এক মাসের মধ্যে সরিয়ে নিতে হবে: হাইকোর্ট - dainik shiksha রাজধানীর সকল ফার্মেসি থেকে মেয়াদোত্তীর্ণ ওষুধ এক মাসের মধ্যে সরিয়ে নিতে হবে: হাইকোর্ট জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া - dainik shiksha জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া  - dainik shiksha please click here to view dainikshiksha website