সিনিয়র সচিবের সাথে আলোচনা শেষ, ননএমপিও শিক্ষকদের আন্দোলন চলবেই - এমপিও - Dainikshiksha

সিনিয়র সচিবের সাথে আলোচনা শেষ, ননএমপিও শিক্ষকদের আন্দোলন চলবেই

নিজস্ব প্রতিবেদক |

শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগের সিনিয়র সচিব মো. সোহরাব হোসাইনের সাথে সাক্ষাৎ করেও দ্রুত এমপিওভুক্তির আশ্বাস বা ভরসা পাননি। তাই তাদের অবস্থান কর্মসূচি চলবে বলে জানান ননএমপিও শিক্ষকরা। টানা দুইদিন তারা জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনের রাস্তার উপর অবস্থান করছেন। 

গত ২০ জানুয়ারি থেকে এই শিক্ষক-কর্মচারীরা ননএমপিও শিক্ষা প্রতিষ্ঠান শিক্ষক-কর্মচারী ফেডারেশনের ব্যানারে জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে অবস্থান কর্মসূচি পালন করে আসছেন। 

গতকাল অবস্থান চলাকালে একজন শিক্ষক অসুস্থ হয়ে পড়েন বলে জানা গেছে। তার নাম শৈলেনচন্দ্র মজুমদার। তিনি বরগুনার তালতলী উপজেলার এতিম মঞ্জিল মহিলা দাখিল মাদরাসার শিক্ষক। তাকে ন্যাশনাল হার্ট ফাউন্ডেশন হাসপাতালের সিসিইউতে রাখা হয়েছে।

ননএমপিও শিক্ষক-কর্মচারীরা গতকাল তৃতীয় দিনের মতো প্রেস ক্লাবের সামনের রাস্তায় অবস্থান কর্মসূচি পালন করেন। শিক্ষক নেতারা জানান, তারা প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে সাক্ষাৎ না করে যাবেন না। গতকাল জুমার দিন তারা প্রেস ক্লাবের সামনের রাস্তায় নামাজ আদায় করেন বলে জানান কয়েকজন আন্দোলনকারী। এর আগে গত বৃহস্পতিবার পুলিশি বাধায় ননএমপিও শিক্ষক-কর্মচারীরা প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের উদ্দেশে পদযাত্রা করতে পারেননি। এর আগে বুধবার ছাত্র-অবরোধের কারণে বের করতে পারেননি শিক্ষকরা। শিক্ষক নেতারা জানিয়েছেন, প্রধানমন্ত্রীর সাক্ষাৎ না পাওয়া পর্যন্ত তাদের অবস্থান কর্মসূচি চলবেই। ননএমপিও শিক্ষা প্রতিষ্ঠান শিক্ষক-কর্মচারী ফেডারেশনের সভাপতি অধ্যক্ষ গোলাম মাহমুদুন্নবী ডলার এই প্রতিবেদককে বলেন, ‘শিক্ষাসচিবের আহ্বানে আমরা ১৪ সদস্যের একটি প্রতিনিধি দল অফিসার্স ক্লাবে তার সঙ্গে দেখা করতে যাই। কিন্তু সচিব মহোদয় সুনির্দিষ্ট কোনো আশ্বাস দিতে পারেননি এমপিওভুক্তির।

তাই আমরা ফিরে এসে ফের অবস্থান শুরু করেছি।’ গতকাল প্রেস ক্লাবের সামনে গিয়ে দেখা যায়, প্রেস ক্লাবের কদম ফোয়ারা থেকে মূল গেট পর্যন্ত অবস্থান করছেন দেশের বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের ননএমপিও শিক্ষক-কর্মচারীরা। সড়কের ওপর পলিথিন ও কাগজ বিছিয়ে কেউ বসে, কেউ বা শুয়ে আছেন। তিনি আরও বলেন, ‘ননএমপিও শিক্ষা প্রতিষ্ঠান একযোগে এমপিওভুক্তির দাবিতে নিয়মতান্ত্রিক ভাবে সরকারের কাছে দাবি জানিয়ে আসছি। আন্দোলনের একপর্যায়ে গত বছরের ৫ জানুয়ারি প্রধানমন্ত্রীর একান্ত সচিব জানিয়েছিলেন, প্রধানমন্ত্রী আপনাদের দাবি মেনে নিয়েছেন। আমরা অনশন ভঙ্গ করে বাড়ি ফিরে যাই। পরে শিক্ষা মন্ত্রণালয় অনলাইনে এমপিওভুক্তির জন্য আবেদন গ্রহণ করে। কিন্তু অজানা কারণে এখনো এ বিষয়ে সুস্পষ্ট কোনো অগ্রগতি লক্ষ্য করা যাচ্ছে না।’

‘শিক্ষকদের অবসর-কল্যাণ সুবিধার তহবিল বন্ধ করে পেনশন চালু করতে হবে’ - dainik shiksha ‘শিক্ষকদের অবসর-কল্যাণ সুবিধার তহবিল বন্ধ করে পেনশন চালু করতে হবে’ প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগের প্রথম ধাপের পরীক্ষা ১০ মে - dainik shiksha প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগের প্রথম ধাপের পরীক্ষা ১০ মে কল্যাণ ট্রাস্টের প্রাথমিক তহবিলের এক কোটি টাকার হদিস নেই - dainik shiksha কল্যাণ ট্রাস্টের প্রাথমিক তহবিলের এক কোটি টাকার হদিস নেই এসএসসির ফল ৫ বা ৬ মে - dainik shiksha এসএসসির ফল ৫ বা ৬ মে সরকারিকৃত ২৯৯ কলেজে পদ সৃজনে সংশোধিত তথ্য ছক প্রকাশ - dainik shiksha সরকারিকৃত ২৯৯ কলেজে পদ সৃজনে সংশোধিত তথ্য ছক প্রকাশ কল্যাণ ট্রাস্টের ৪০ কোটি টাকা এফডিআর করা হয়নি - dainik shiksha কল্যাণ ট্রাস্টের ৪০ কোটি টাকা এফডিআর করা হয়নি আদর্শ না শেখালে সন্তানদের হাতে বাবা-মাও নিরাপদ নন: গণপূর্তমন্ত্রী - dainik shiksha আদর্শ না শেখালে সন্তানদের হাতে বাবা-মাও নিরাপদ নন: গণপূর্তমন্ত্রী চাঁদা বৃদ্ধির পরও ২১৬ কোটি টাকা বার্ষিক ঘাটতি : শরীফ সাদী - dainik shiksha চাঁদা বৃদ্ধির পরও ২১৬ কোটি টাকা বার্ষিক ঘাটতি : শরীফ সাদী কারিগরি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ভর্তি নীতিমালা জারি - dainik shiksha কারিগরি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ভর্তি নীতিমালা জারি একাদশে ভর্তির নীতিমালা জারি, আবেদন শুরু ১২ মে - dainik shiksha একাদশে ভর্তির নীতিমালা জারি, আবেদন শুরু ১২ মে প্রাথমিকের ৪২৭ শিক্ষকের বদলি - dainik shiksha প্রাথমিকের ৪২৭ শিক্ষকের বদলি সেহরি ও ইফতারের সময়সূচি - dainik shiksha সেহরি ও ইফতারের সময়সূচি ২০১৯ খ্র্রিস্টাব্দের স্কুলের ছুটির তালিকা - dainik shiksha ২০১৯ খ্র্রিস্টাব্দের স্কুলের ছুটির তালিকা জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া - dainik shiksha জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া please click here to view dainikshiksha website