সিলেটের ইউনানী ও আয়ুর্বেদিক মেডিকেল কলেজ স্নাতক হবে কবে? - বিবিধ - Dainikshiksha

সিলেটের ইউনানী ও আয়ুর্বেদিক মেডিকেল কলেজ স্নাতক হবে কবে?

সিলেট প্রতিনিধি |

প্রয়োজনীয় শর্ত পূরণের পরেও স্নাতক পর্যায়ে উন্নীত হচ্ছে না সিলেটের সরকারি ইউনানী ও আয়ুর্বেদিক মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতাল। চার বছর আগে শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (শাবি) আওতায় নিয়ে প্রতিষ্ঠানটিকে স্নাতক পর্যায়ে উন্নতকরণের লক্ষ্যে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণের নির্দেশ দেয়া হয়েছিলো। অধিভুক্তির পর স্নাতক কোর্স চালুর জন্য প্রতিষ্ঠানের পক্ষ থেকে যোগাযোগ করা হলে কিছু শর্ত দেয় শাবি কর্তৃপক্ষ। কলেজ কর্তৃপক্ষ শাবির শর্তগুলো পূরণের বিষয়ে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরে প্রস্তাব পাঠানোর দু’বছর অতিবাহিত হলেও এখনও কোনো সাড়া মেলেনি। বিষয়টি নিয়ে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর ও মন্ত্রণালয়ের উপসচিব ও যুগ্ম সচিবরা চার দফা মিটিং করে কোনো সিদ্ধান্তে পৌঁছতে পারেননি।

সিলেট বিভাগের একমাত্র আয়ুর্বেদিক ও ইউনানী চিকিৎসা সেবা ও শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ‘সিলেট তিব্বিয়া কলেজ’ ১৯৪৫ খ্রিষ্টাব্দে প্রতিষ্ঠিত। সিলেট সরকারি আলিয়া মাদরাসার একটি কক্ষে কলেজ চালু করা হলে পরে ১৯৮০ খ্রিষ্টাব্দে স্থানান্তর হয় চালিবন্দর এলাকায় একটি ভাড়া ভবনে। ২০০৯-১০ অর্থবছরে স্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তরের তত্ত্বাবধানে প্রায় সাড়ে পাঁচ কোটি টাকা ব্যয়ে কলেজের নতুন ভবনের নির্মাণ কাজ শুরুর সময়ই তিব্বিয়া কলেজের ছাত্রসংসদ নেতারা কলেজের পুরনো নামের স্থলে নতুন নামকরণের তৎপরতা শুরু করেন। কলেজের প্রতিষ্ঠাতা প্রয়াত বশিরুল হক চৌধুরীর নামে তিব্বিয়া কলেজের নতুন নাম ‘বশিরুল হক ইউনানী মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতাল’ সাইনবোর্ড নির্মাণাধীন ওই ভবনের সামনে সাঁটানো হয়। এ নিয়ে পত্রপত্রিকায় সংবাদ প্রকাশ হলে ওই নাম বাতিল করে ২০১১ খ্রিষ্টাব্দের ২৪ ডিসেম্বর সিলেট সরকারি তিব্বিয়া কলেজ নামেই নতুন ভবনের উদ্বোধন করেন তৎকালীন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত ও স্বাস্থ্য প্রতিমন্ত্রী মুজিবুর রহমান ফকির।

এর ৫ বছর পর ২০১৬ খ্রিষ্টাব্দের ২৭ জুন সিলেট সরকারি তিব্বিয়া কলেজকে নাম পরির্বতন করে ‘সরকারি ইউনানী ও আয়ুর্বেদিক মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতাল, সিলেট’ নামে উন্নীতকরণ করা হয়। শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (শাবি) আওতায় স্নাতক পর্যায়ে উন্নীতকরণের যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণের নির্দেশ দেয়া হয়। ইউনানী ও আয়ুর্বেদিক মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পক্ষ থেকে শাবি কর্তৃপক্ষের সঙ্গে যোগাযোগ করলে তারা স্নাতক চালুকরণের জন্য লিখিত কিছু শর্ত দেন। শর্তগুলো হল ব্যাচেলর অব ইউনানী মেডিসিন অ্যান্ড সার্জারি (বিইউএমএস) এবং ব্যাচেলর অব আয়ুর্বেদিক মেডিসিন অ্যান্ড সার্জারি (বিএএমএস) কোর্চ পরিচালনার জন্য প্রয়োজনীয় অবকাঠামো, শিক্ষক, মিউজিয়াম, ব্যবহারিক ল্যাব, ক্লাস রুম, লেকচার গ্যালারি, লাইব্রেরি, ঔষধি গাছের বাগান, ছাত্রছাত্রীদের হল ইত্যাদি থাকা প্রয়োজন। ইউনানী ও আয়ুর্বেদিক মেডিকেল কলেজ চালুর নিমিত্তে প্রয়োজনীয় বিষয়সমূহ সংস্থান হওয়ার পর অধিভুক্তি ফিস এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের নির্ধারিত ফরম পূরণ করে বিইউএমএস ও বিএএমএস কোর্সের সিলেবাস ও কারিকুলামসহ আবেদন করলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে। ২০১৭ খ্রিষ্টাব্দের ৩ অক্টোবর এসব বিষয় অবগত করে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালককে চিঠি পাঠানো হয়। দু’বছর অতিবাহিত হলেও মৌখিক আশ্বাস ছাড়া আর কিছুই পাওয়া যাচ্ছে না। এমনকি এখনও সরকারি তিব্বিয়া (ডিপ্লোমা) কলেজের ৪৯ পদের মধ্যে ৩০টি পদই শূন্য রয়েছে। ইনডোর না থাকায় ডিপ্লোমা কোর্সের শিক্ষার্থীদের সঠিকভাবে ইন্টার্ন করানো হচ্ছে না বলে জানিয়েছেন ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ ডা. মো. মুহিবুর রহমান খান। তিনি বলেন, স্বাস্থ্য অধিদপ্তরে একাধিকবার চিঠি দিয়েছি আমরা। কোনো সাড়া পাইনি। শাবির অধিভুক্তির শর্ত পূরণের প্রয়োজনীয় অর্থ, অবকাঠামো ও জনবল পেলেই স্নাতক কোর্স চালু করা যাবে।

১৫তম শিক্ষক নিবন্ধনের প্রিলিমিনারিতে পাস ২০ দশমিক ৫৩ শতাংশ - dainik shiksha ১৫তম শিক্ষক নিবন্ধনের প্রিলিমিনারিতে পাস ২০ দশমিক ৫৩ শতাংশ সরকারিকৃত শতাধিক কলেজ অধ্যক্ষের যোগ্যতায় ঘাটতি নিয়োগে অনিয়ম - dainik shiksha সরকারিকৃত শতাধিক কলেজ অধ্যক্ষের যোগ্যতায় ঘাটতি নিয়োগে অনিয়ম সাধারণ শিক্ষায় যুক্ত হচ্ছে ভোকেশনাল কোর্স - dainik shiksha সাধারণ শিক্ষায় যুক্ত হচ্ছে ভোকেশনাল কোর্স জুলাই থেকে বেতন পাবেন নতুন এমপিওভুক্ত প্রতিষ্ঠানের শিক্ষকরা - dainik shiksha জুলাই থেকে বেতন পাবেন নতুন এমপিওভুক্ত প্রতিষ্ঠানের শিক্ষকরা বেকারভাতা দেয়ার চিন্তা সরকারের - dainik shiksha বেকারভাতা দেয়ার চিন্তা সরকারের তদবিরে তকদির: চাকরির বাজারে এগিয়ে বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় গ্র্যাজুয়েটরা - dainik shiksha তদবিরে তকদির: চাকরির বাজারে এগিয়ে বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় গ্র্যাজুয়েটরা নতুন সূচিতে কোন জেলায় কবে প্রাথমিকের শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষা - dainik shiksha নতুন সূচিতে কোন জেলায় কবে প্রাথমিকের শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষা এমপিওভুক্ত হচ্ছেন ১০ হাজার ৮৫ শিক্ষক - dainik shiksha এমপিওভুক্ত হচ্ছেন ১০ হাজার ৮৫ শিক্ষক প্রাথমিকে শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষা ২৪ মে শুরু - dainik shiksha প্রাথমিকে শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষা ২৪ মে শুরু সেহরি ও ইফতারের সময়সূচি - dainik shiksha সেহরি ও ইফতারের সময়সূচি ২০১৯ খ্রিষ্টাব্দের স্কুলের ছুটির তালিকা - dainik shiksha ২০১৯ খ্রিষ্টাব্দের স্কুলের ছুটির তালিকা জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া - dainik shiksha জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া please click here to view dainikshiksha website