সেই ইফতেকার বিএম কলেজে - বিবিধ - Dainikshiksha

সেই ইফতেকার বিএম কলেজে

নিজস্ব প্রতিবেদক |

অবৈধভাবে নিয়োগ বাগানো, প্রায় দুই লাখ টাকা মাসিক বেতন-ভাতা গ্রহণ, লুটপাট ও ছাত্রীদেরকে দিয়ে মানববন্ধন ও মিছিল করাতে বাধ্য করানো সহ নানা অভিযোগে ওএসডি হওয়া শিক্ষা ক্যাডার কর্মকর্তা ইফতেকার আলীকে বরিশালের সরকারি বিএম কলেজে বদলি করেছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়। রোববার (১০ মার্চ) মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগ থেকে ইফতেকারের বদলির আদেশ জারি হয়। 

আরও পড়ুন: দুর্নীতির বিরুদ্ধে শিক্ষামন্ত্রীর অ্যাকশন শুরু, সালমা ও ইফতেকার ওএসডি

এর আগে গত ২৪ ফেব্রুয়ারি দুর্নীতিসহ বিভিন্ন অভিযোগে সেন্ট্রাল উইমেন্স কলেজ অধ্যক্ষ ইফতেকার আলীর লিয়েন বাতিল করে তাকে ওএসডি করা হয়। বিসিএস সাধারণ শিক্ষা ক্যাডার কর্মকর্তা ইফতেকার আলী টাকার লোভে বেসরকারি এমপিওভুক্ত কলেজে লিয়েনে অধ্যক্ষ পদে যোগ দেন প্রায় তিন বছর আগে। অবৈধভাবে নিয়োগ বাগানো, প্রায় দুই লাখ টাকা মাসিক বেতন-ভাতা গ্রহণ, লুটপাট ও ছাত্রীদেরকে দিয়ে মানববন্ধন ও মিছিল করাতে বাধ্য করানো সহ নানা অভিযোগ ইফতেকারের বিরুদ্ধে।

আরও পড়ুন: শিক্ষামন্ত্রী ও উপাচার্যের সাথে ঔদ্ধত্যপূর্ণ আচরণ, শিক্ষা ক্যাডার কর্মকর্তাকে শোকজ

অভিযোগ উঠলে তা তদন্ত করে মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তর। মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তরের এক তদন্ত প্রতিবেদনে লিয়েনে অধ্যক্ষ পদে ইফতেকারকে নিয়োগ দিয়ে কলেজটি আর্থিকভাবে ক্ষতিগ্রস্থ হওয়ার অভিযোগ প্রমাণিত হয়েছে। সেন্ট্রাল উইমেন্স কলেজের অধ্যক্ষ পদে ইফতেকার আলীর নিয়োগ অবৈধ। তাকে প্রচলিত বিধান অনুযায়ী কলেজটিতে নিয়োগ দেয়া হয়নি। কলেজটিতে নিষিদ্ধ নোট-গাইড বই সিলেবাসে অন্তর্ভুক্তকরণের অভিযোগও রয়েছে। এছাড়া তার বিরুদ্ধে ওঠা ‘টাকার বিনিময়ে নিষিদ্ধ গাইড বই সিলেবাসে অন্তর্ভুক্তকরণের’ অভিযোগেটির সত্যতাও পেয়েছে মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তরের তদন্ত কর্মকর্তারা। 

আরও পড়ুন: সেন্ট্রাল উইমেন্স কলেজে শিক্ষা ক্যাডারের ইফতেকারের নিয়োগ অবৈধ

দৈনিকশিক্ষা ডটকমে গত ১৪ জানুয়ারি ‘সেন্ট্রাল উইমেন্স কলেজে শিক্ষা ক্যাডারের ইফতেকারের নিয়োগ অবৈধ’ শিরোনামে সংবাদ প্রকাশ করা হয়। ১৮ ফেব্রুয়ারি ইফতেকারের যত অপকর্ম শিরোনামে আরেকটি প্রতিবেদন প্রকাশ হলে তা শিক্ষামন্ত্রীর নজরে আসে। ১৯ ফেব্রুয়ারি কলেজের অনুষ্ঠানে গিয়ে মন্ত্রীর চোখের সামনে না আসতে অধ্যক্ষকে বলা হয়। কিন্তু তা মানেননি ইফতেকার। গত ১৯ ফেব্রুয়ারি শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনির নির্দেশ অমান্য করে কলেজের মঞ্চে ওঠেন। নির্দেশ অমান্য করায় তাকে শোকজ করেছিল জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়। 

১৫তম শিক্ষক নিবন্ধনের প্রিলিমিনারিতে পাস ২০ দশমিক ৫৩ শতাংশ - dainik shiksha ১৫তম শিক্ষক নিবন্ধনের প্রিলিমিনারিতে পাস ২০ দশমিক ৫৩ শতাংশ বেকারভাতা দেয়ার চিন্তা সরকারের - dainik shiksha বেকারভাতা দেয়ার চিন্তা সরকারের তদবিরে তকদির: চাকরির বাজারে এগিয়ে বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় গ্র্যাজুয়েটরা - dainik shiksha তদবিরে তকদির: চাকরির বাজারে এগিয়ে বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় গ্র্যাজুয়েটরা নতুন সূচিতে কোন জেলায় কবে প্রাথমিকের শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষা - dainik shiksha নতুন সূচিতে কোন জেলায় কবে প্রাথমিকের শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষা এমপিওভুক্ত হচ্ছেন ১০ হাজার ৮৫ শিক্ষক - dainik shiksha এমপিওভুক্ত হচ্ছেন ১০ হাজার ৮৫ শিক্ষক প্রাথমিকে শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষা ২৪ মে শুরু - dainik shiksha প্রাথমিকে শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষা ২৪ মে শুরু সেহরি ও ইফতারের সময়সূচি - dainik shiksha সেহরি ও ইফতারের সময়সূচি ২০১৯ খ্রিষ্টাব্দের স্কুলের ছুটির তালিকা - dainik shiksha ২০১৯ খ্রিষ্টাব্দের স্কুলের ছুটির তালিকা জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া - dainik shiksha জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া please click here to view dainikshiksha website