সৌন্দর্য বর্ধনের নামে স্কুলের গাছ কেটে বিক্রি - বিবিধ - দৈনিকশিক্ষা

সৌন্দর্য বর্ধনের নামে স্কুলের গাছ কেটে বিক্রি

বাউফল (পটুয়াখালী) প্রতিনিধি |

সৌন্দর্য বর্ধনের নামে পটুয়াখালীর বাউফল উপজেলার বীরপাশা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের বিভিন্ন প্রজাতির ১৬ টি গাছ কেটে বিক্রি করে দেয়া হয়েছে। বনবিভাগের অনুমতি ছাড়াই ওই স্কুলের প্রধান শিক্ষক মো. নজরুল ইসলাম রাসেল গাছগুলো কেটে বিক্রি করেছেন বলে অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় এলাকার সাধারণ মানুষের মধ্যে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে।

বুধবার (৩০ সেপ্টেম্বর) দুপুরে সরেজমিনে দেখা যায়, গাছগুলো কাটার পরে টমটমে করে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে। ১৬টি গাছের মধ্যে মেহগনী গাছ ১৪ টি, শিশু গাছ ১ টি ও বকুল ফুল গাছ ১টি। এর আগে পাঁচ দিন আগ থেকে কয়েকজন শ্রমিক ওই গাছগুলো কাটা শুরু করেন। গতকাল কাটা শেষ হয়।

এ সময় উপস্থিত মো. গিয়াস উদ্দিন নামে এক ব্যক্তি দৈনিক শিক্ষাডটকমকে বলেন, গাছগুলো তিনি প্রধান শিক্ষকের কাছ থেকে ৪০ হাজার টাকায় ক্রয় করেছেন। 

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক গাছ ব্যবসায়ী দৈনিক শিক্ষাডটকমকে বলেন,‘গাছগুলো খুবই কম দামে বিক্রি করা হয়েছে। এর মূল্য হবে কমপক্ষে এক লাখ টাকা।’ নিয়মানুযায়ী কোনো প্রতিষ্ঠানের গাছ কাটতে হলে বন বিভাগের অনুমতি লাগে। কিন্তু ওই বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক সেই নিয়ম অমান্য করেছেন।

নিজাম উদ্দিন নামে এক স্থানীয় দৈনিক শিক্ষাডটকমকে বলেন,‘উল্টোপথে চলছে বিদ্যালয়টি। সৌন্দর্য় বর্ধনের জন্য সাবেক প্রধান শিক্ষক গাছ লাগিয়েছেন। আর বর্তমান প্রধান শিক্ষক সৌন্দর্য়বর্ধনের নামে গাছ কেটে বিক্রি করছেন।’

স্থানীয় বাসিন্দা ও ওই বিদ্যালয়ের পরিচালনা কমিটির সাবেক সদস্য বিজয় কৃষ্ণ দাস দৈনিক শিক্ষাডটকমকে বলেন,‘এর আগেও প্রধান শিক্ষক ওই বিদ্যালয়ের বিপুল পরিমান গাছ এক লাখ টাকায় বিক্রি করে আত্মসাৎ করেছেন।’

অভিযুক্ত বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. নজরুল ইসলাম রাসেল দৈনিক শিক্ষাডটকমকে বলেন,‘গাছগুলোর কারণে সৌন্দর্য বিনষ্ট হচ্ছে। আগামী বছর জানুয়ারি মাসে বিদ্যালয়টির শতবর্ষ অনুষ্ঠান আয়োজন করা হবে। এ কারণে গাছ কাটার জন্য এলাকাবাসীর চাপ ছিল। তাই অ্যাডহক কমিটির সিদ্ধান্ত মোতাবেক গাছগুলো বিক্রি করা হয়েছে।’

এ বিষয়ে স্কুলের অ্যাডহক কমিটির সভাপতি মো. ইউসুফ আলী হাওলাদার দৈনিক শিক্ষাডটকমকে বলেন, আমার জানা মতে গত বছর ধার-দেনা করে বিদ্যালয়ে বার্ষিক ক্রীড়া অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়েছে। ওই দেনা পরিশোধের জন্য প্রধান শিক্ষক ও সাধারণ শিক্ষকেরা সিদ্ধান্ত নিয়ে গাছ বিক্রি করেছে। আজকে (বুধবার) প্রধান শিক্ষকের সঙ্গে কথা বলে জানলাম এ বিষয়ে নাকি রেজুলেশনও হয়েছে।

১৪ নভেম্বর পর্যন্ত বাড়ল স্কুল কলেজের ছুটি, পরিস্থিতি বিবেচনায় কিছু প্রতিষ্ঠান খোলার চিন্তা - dainik shiksha ১৪ নভেম্বর পর্যন্ত বাড়ল স্কুল কলেজের ছুটি, পরিস্থিতি বিবেচনায় কিছু প্রতিষ্ঠান খোলার চিন্তা ১৬তম শিক্ষক নিবন্ধন পরীক্ষার ফল শিগগিরই : শিক্ষামন্ত্রী - dainik shiksha ১৬তম শিক্ষক নিবন্ধন পরীক্ষার ফল শিগগিরই : শিক্ষামন্ত্রী ‘আশা করছি এসএসসি পেছাতে হবে না’ - dainik shiksha ‘আশা করছি এসএসসি পেছাতে হবে না’ ভর্তিতে সরাসরি লিখিত পরীক্ষা নেয়ার পক্ষে বুয়েট উপাচার্য - dainik shiksha ভর্তিতে সরাসরি লিখিত পরীক্ষা নেয়ার পক্ষে বুয়েট উপাচার্য পরীক্ষা নেয়ার অনুমতি বাগিয়ে নিলো বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় মালিকরা - dainik shiksha পরীক্ষা নেয়ার অনুমতি বাগিয়ে নিলো বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় মালিকরা মূল্যায়ন করেই শিক্ষার্থীদের এসএসসির জন্য নির্বাচনের পরিকল্পনা - dainik shiksha মূল্যায়ন করেই শিক্ষার্থীদের এসএসসির জন্য নির্বাচনের পরিকল্পনা আলিমের বাংলা ১ম পত্রের পরিমার্জিত সিলেবাস - dainik shiksha আলিমের বাংলা ১ম পত্রের পরিমার্জিত সিলেবাস দশ হাজার শিক্ষা প্রতিষ্ঠান নতুন ভবন পাচ্ছে - dainik shiksha দশ হাজার শিক্ষা প্রতিষ্ঠান নতুন ভবন পাচ্ছে লক্ষাধিক শিক্ষকের অবৈধ সনদের বৈধতা দিলেন বিদায়ী প্রাথমিক সচিব - dainik shiksha লক্ষাধিক শিক্ষকের অবৈধ সনদের বৈধতা দিলেন বিদায়ী প্রাথমিক সচিব এমপিওবঞ্চিত প্রার্থীদের সুপারিশের আগে অ্যাটর্নি জেনারেল অফিসের মতামত নেবে এনটিআরসিএ - dainik shiksha এমপিওবঞ্চিত প্রার্থীদের সুপারিশের আগে অ্যাটর্নি জেনারেল অফিসের মতামত নেবে এনটিআরসিএ নতুন শিক্ষাবর্ষে স্কুলে ভর্তি : প্রধান শিক্ষকরা পরীক্ষার পক্ষে - dainik shiksha নতুন শিক্ষাবর্ষে স্কুলে ভর্তি : প্রধান শিক্ষকরা পরীক্ষার পক্ষে অনার্স ও পলিটেকনিক শিক্ষার্থীদের পরীক্ষার জোর প্রস্তুতি নেয়ার আহ্বান শিক্ষামন্ত্রীর - dainik shiksha অনার্স ও পলিটেকনিক শিক্ষার্থীদের পরীক্ষার জোর প্রস্তুতি নেয়ার আহ্বান শিক্ষামন্ত্রীর please click here to view dainikshiksha website