স্কুলছাত্রকে অপহরণের পর হত্যার অভিযোগে আটক ২ - স্কুল - দৈনিকশিক্ষা

স্কুলছাত্রকে অপহরণের পর হত্যার অভিযোগে আটক ২

শরীয়তপুর প্রতিনিধি |

ক্রিকেট খেলার কথা বলে ডেকে নিয়ে শরীয়তপুরে জাজিরা উপজেলায় অপহরণের তিনদিন পর এক স্কুলছাত্রের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। নিহতের নাম সাকিল মাদবর (১৫)। শনিবার (২৭ জুন) সকালে উপজেলার নাউডোবা ইউনিয়নের হাজী কালাই মোড়ল কান্দি গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত মো. সাকিল মাদবর হাজী কালাই মোড়ল কান্দি গ্রামের ছালাম মাদবরের ছেলে। সে পূর্ব নাউডোবা এম ভিশন কিন্ডারগার্টেন অ্যান্ড হাইস্কুলের অষ্টম শ্রেণির ছাত্র।

এদিকে এ ঘটনা জড়িত থাকার অভিযোগে জাজিরা থানার পুলিশ ২ জনকে আটক করেছে।

নিহতের চাচা নাউডোবা এলাকার সাবেক মেম্বার সালাম মোড়ল জানান, গত ২৫ জুন সাকিল মাদবরকে ক্রিকেট খেলার কথা বলে বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে যায় একই উপজেলা একই গ্রামের সাকির ওরফে বাবু ও ইমরান।

এরপর সে আর রাতে বাড়ি ফেরেনি। পরদিন তার পরিবার বিভিন্ন জায়গায় খোঁজাখুজি করে তাকে পায়নি। পরে জাজিরা থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করা হয়।

২৬ জুন বিকালে সাকির ওরফে বাবুর মোবাইল ফোন থেকে এসএমএসের মাধ্যমে মুক্তিপন দাবি করা হয়। তবে মুক্তিপণে টাকার অঙ্ক বলা হয়নি।

বিষয়টি জাজিরা থানা পুলিশকে অবহিত করা হয়। পরে মোবাইল ফোনের সূত্র ধরে জাজিরা থানা পুলিশ মাঠে নামে। ওই দিনেই এলাকা থেকে সাকির ওরফে বাবুকে আটক করে।

বাবুর দেয়া তথ্য অনুযায়ী অপহরণের ৩ দিন পর শনিবার সকালে পদ্মাসেতুর রেলওয়ে প্রকল্পের নিকট থেকে বালি চাপা দেয়া অবস্থায় স্কুলছাত্র সাকিরের মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

নিহত ছাত্রের গলায়, নাকে হাতের কনুইতে জখমের চিহ্ন রয়েছে। ময়না তদন্তের জন্য শরীয়তপুর সদর হাসপাতালে তার মরদেহ পাঠানো হয়েছে।

এ ঘটনা জড়িত থাকার অভিযোগে জাজিরা থানার পুলিশ একই এলাকার ইমরান (২৫) ও সাকির ওরফে বাবুকে (২০) গ্রেফতার করেছে।

শিক্ষক শাহাজুল ইসলাম বলেন, সাকিল মাদবর খুব মেধাবী ছাত্র ছিল। ক্রিকেট খেলার কথা বলে ডেকে নিয়ে যায় বাবু। তার পর ওকে নির্মমভাবে হত্যা করে। আমরা এটা মেনে নিতে পারছি না। আমরা হত্যাকারীদের ফাঁসি চাই।

নিহত স্কুলছাত্রের মা নুরজাহান বেগম কান্না জড়িত কণ্ঠে বলেন, আমার নির্দোষ ছেলেকে যারা অন্যায়ভাবে ডেকে নিয়ে হত্যা করেছে। আমি তাদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি চাই।

জাজিরা থানার (ওসি তদন্ত) আবদুল মজিদ বকুল বলেন, প্রথমে মোবাইল ট্র্যাকিংয়ের মাধ্যমে সাকির ওরফে বাবুকে আটক করি। তার দেয়া তথ্য মতে স্কুলছাত্রের লাশ উদ্ধার করি। মরদেহের গায়ে একাধিক আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। আটককৃতরা প্রাথমিক জিঙ্গাসাবাদে হত্যাকাণ্ডে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করেছে।

একাদশে শিগগিরই ভর্তি কার্যক্রম শুরু হবে : শিক্ষামন্ত্রী - dainik shiksha একাদশে শিগগিরই ভর্তি কার্যক্রম শুরু হবে : শিক্ষামন্ত্রী প্রাথমিক সমাপনী পরীক্ষা বন্ধের পরিকল্পনা নেই : গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী - dainik shiksha প্রাথমিক সমাপনী পরীক্ষা বন্ধের পরিকল্পনা নেই : গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী করোনায় আরও ৪১ জনের মৃত্যু, নতুন শনাক্ত ৩ হাজার ৩৬০ - dainik shiksha করোনায় আরও ৪১ জনের মৃত্যু, নতুন শনাক্ত ৩ হাজার ৩৬০ অধ্যক্ষ-উপাধ্যক্ষ হতে পারছেন না প্রভাষকরা: রুলের জবাব দেয়নি সরকার - dainik shiksha অধ্যক্ষ-উপাধ্যক্ষ হতে পারছেন না প্রভাষকরা: রুলের জবাব দেয়নি সরকার ‘বঙ্গবন্ধুর স্মৃতিকথা’ নামে আরেকটি বই প্রকাশ হবে - dainik shiksha ‘বঙ্গবন্ধুর স্মৃতিকথা’ নামে আরেকটি বই প্রকাশ হবে শিক্ষায় বঙ্গবন্ধুর অবদান নিয়ে লেখা আহ্বান - dainik shiksha শিক্ষায় বঙ্গবন্ধুর অবদান নিয়ে লেখা আহ্বান শিক্ষক প্রশিক্ষণের নামে টেসলের বিরুদ্ধে প্রতারণার অভিযোগ - dainik shiksha শিক্ষক প্রশিক্ষণের নামে টেসলের বিরুদ্ধে প্রতারণার অভিযোগ বিনামূল্যে আন্তর্জাতিক মানের ডিজিটাল কনটেন্ট দিচ্ছে টিউটর্সইঙ্ক - dainik shiksha বিনামূল্যে আন্তর্জাতিক মানের ডিজিটাল কনটেন্ট দিচ্ছে টিউটর্সইঙ্ক শিক্ষকদের ফ্রি অনলাইন প্রশিক্ষণ চলছে - dainik shiksha শিক্ষকদের ফ্রি অনলাইন প্রশিক্ষণ চলছে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া - dainik shiksha জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া please click here to view dainikshiksha website