স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগে প্রধান শিক্ষক গ্রেফতার - বিবিধ - Dainikshiksha

স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগে প্রধান শিক্ষক গ্রেফতার

নরসিংদী প্রতিনিধি |

নরসিংদীর বেলাবতে প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে অষ্টম শ্রেণির এক ছাত্রীকে ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় ছাত্রীর মা নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে বেলাব থানায় মামলা দায়ের করেন। মঙ্গলবার (১২ মার্চ) অভিযুক্ত প্রধান শিক্ষক হারুণ অর রশিদকে গ্রেফতার করে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়।

অভিযুক্ত প্রধান শিক্ষক হারুন অর রশিদ গাজিপুর জেলার কাপাসিয়া উপজেলার কামারগাঁও গ্রামের মৃত আবদুস ছাত্তারের ছেলে।

মামলার এজাহার সূত্রে জানা যায়, সোমবার বিকালে উপজেলার চর উজিলাব ইউনিয়নের চর আমলাব মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে স্পেশাল ভাবে স্কাউট চলাকালে প্রধান শিক্ষক ছাত্রীটিকে তার কক্ষে ডেকে নিয়ে যায়। পরে তাকে জোরপূর্বক ধর্ষণের চেষ্টা করে। এ সময় ছাত্রীটি কৌশলে সেখান থেকে পালিয়ে যায়। পরে বাড়িতে গিয়ে অভিভাবকদের ঘটনা খুলে বলেন। খবর পেয়ে গ্রামবাসী প্রধান শিক্ষক হারুন অর রশিদকে গণধোলাই দিয়ে তার কক্ষে তালাবদ্ধ করে রাখেন।


  
চর উজিলাব ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মো. আখতারুজ্জামান দৈনিক শিক্ষাকে বলেন, খবর পেয়ে আমি ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি শমসের জামান ভূঁইয়া রিটন বিদ্যালয়ে যাই। গিয়ে দেখি শত শত গ্রামবাসী প্রধান শিক্ষককে তার কক্ষে তালাবদ্ধ করে রেখেছে। উত্তেজিত জনতার গণপিটুনি থেকে অভিযুক্ত শিক্ষককে বাঁচাতে গিয়ে আমরা আহত হই। পরে পুলিশকে খবর দিলে ঘটনাস্থলে পৌঁছে শিক্ষককে উদ্ধার করে বেলাব থানায় নিয়ে যায়।

বেলাব থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. ফখরুদ্দীন ভূঁইয়া ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, উত্তেজিত জনতার হাত থেকে অভিযুক্ত শিক্ষককে উদ্ধার করে থানায় আনা হয়েছিল। ধর্ষণ চেষ্টার মামলায় আজ তাকে কারাগারে প্রেরণ করা হয়েছে। 

এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষার ফল প্রকাশ ৩১ মে - dainik shiksha এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষার ফল প্রকাশ ৩১ মে দাখিলের ফল পেতে প্রি-রেজিস্ট্রেশন যেভাবে - dainik shiksha দাখিলের ফল পেতে প্রি-রেজিস্ট্রেশন যেভাবে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া - dainik shiksha জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া please click here to view dainikshiksha website