please click here to view dainikshiksha website

স্কুলছাত্র অপহরণ ও হত্যায় ৩ জনের যাবজ্জীবন

নিজস্ব প্রতিবেদক | আগস্ট ৯, ২০১৭ - ২:৫৭ অপরাহ্ণ
dainikshiksha print

নারায়ণগঞ্জে সিদ্ধিরগঞ্জের জালকুড়ি এলাকায় দ্বিতীয় শ্রেণির স্কুলছাত্র রমজান শিকদার অপহরণ ও হত্যা মামলার রায়ে এক নারীসহ ৩ জনকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত।

বুধবার সকালে নারায়ণগঞ্জ অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ প্রথম আদালতের বিচারক মিয়াজী শহিদুল আলম চৌধুরী আসামিদের উপস্থিতিতে রায় ঘোষণা করেন।

আদালত রায়ে ৩০২ ধারায় যাবজ্জীবনসহ ৫০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরও ৬ মাসের সশ্রম কারাদণ্ড দেন।

এছাড়া ২০১ ধারায় তিনজনকে ৭ বছরের কারাদণ্ড ও ৫ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরও ৩ মাসের সশ্রম কারাদণ্ড দিয়েছেন।

সাজাপ্রাপ্তরা হলো- শেরপুর জেলার নকলা থানার ধামনা গ্রামের মৃত নেয়ামত আলীর ছেলে হামিদুল (৩০) তার পাশের বারমাইসা গ্রামের মৃত লক্কু মিয়ার ছেলে রিপন (৩২) ও তার পাশের নিকুশা গ্রামের দুলাল মিয়ার মেয়ে আফরোজা আক্তার (২৫)।

আদালতের অতিরিক্ত পাবলিক প্রসিকিউটর আব্দুর রহিম রায় ঘোষণার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, সিদ্ধিরগঞ্জের জালকুড়ি মধ্যপাড়া এলাকার সিকদার বাড়ির ইসমাইল সিকদারের শিশু সন্তান রমজান শিকদারকে (৯) তার বাড়ির ভাড়াটিয়া ওই তিন আসামি ২০১৩ সালের ৭ সেপ্টেম্বর অপহরণ করে। পরে তাকে শেরপুর নিয়ে যাওয়া হয়।

এরপর মোবাইলে মুক্তিপন হিসেবে ১০ হাজার টাকা দাবি করে অপহরণকারীরা। দাবিকৃত টাকা ও অপহরণের বিষয় জানাজানি হলে আসামিরা ৮ সেপ্টেম্বর রাতে নকলা থানার ছত্রকোনা চেপাকুড়ি ব্রিজের পাশের ঝোপে নিয়ে শিশু রমজানকে শ্বাসরোধ করে হত্যা শেষে লাশটি গুম করে।

পরে পুলিশ হামিদুল ও রিপনকে গ্রেফতার করলে তারা লাশের সন্ধান দেয়।

এঘটনায় রমজানের মা মর্জিনা বেগম বাদী হয়ে সিদ্ধিরগঞ্জ থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। রমজান জালকুড়ি পূর্বপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ২য় শ্রেণির ছাত্র।

রায়ে অসন্তোষ প্রকাশ করে নিহত রমজানের মা মর্জিনা বেগম জানান, আমি আসামিদের সর্বোচ্চ সাজা মৃত্যুদণ্ড চেয়েছিলাম। আমি উচ্চ আদালতে বিচার চাইবো।

সংবাদটি শেয়ার করুন:


আপনার মন্তব্য দিন