স্বতন্ত্র মাধ্যমিক শিক্ষা অধিদপ্তর প্রতিষ্ঠার দাবি শিক্ষক সমিতির - সমিতি সংবাদ - Dainikshiksha

স্বতন্ত্র মাধ্যমিক শিক্ষা অধিদপ্তর প্রতিষ্ঠার দাবি শিক্ষক সমিতির

কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি |

মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের জন্য আলাদা অধিদপ্তর প্রতিষ্ঠার দাবি জানিয়েছে বাংলাদেশ সরকারি মাধ্যমিক শিক্ষক সমিতি (বাসমাশিস)।

বৃহস্পতিবার (১৭ই আগস্ট) দুপুরে কুড়িগ্রাম সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের হলরুমে বাসমাশিস কুড়িগ্রাম জেলা শাখার আয়োজনে শিক্ষক সমিতির ত্রি-বার্ষিক জেলা সম্মেলনে এ দাবি জানানো হয়।

এছাড়া টাইম স্কেল জটিলতা নিরসন, প্রথম শ্রেণির গেজেটেড মর্যাদা দাবি ও পদোন্নতি ব্যবস্থাসহ কয়েক দফা দাবি জানানো হয় সংগঠনের পক্ষ থেকে।

কুড়িগ্রাম জেলার ৪ উপজেলার সরকারি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ও সহকারি শিক্ষকবৃন্দ এ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন। এছাড়া জেলা সদরের কুড়িগ্রাম সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়, কুড়িগ্রাম সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়, উলিপুর সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যলয়, রাজারহাট সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় ও নাগেশ্বরী সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের শতাধিক শিক্ষক এ সম্মেলনে যোগ দেন।

সম্মেলনে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য দেন বাংলাদেশ সরকারি মাধ্যমিক শিক্ষক সমিতি(বাসমাশিস) রংপুর অঞ্চলের সভাপতি মো.আব্দুর রাজ্জাক। আরও বক্তব্য রাখেন বাসমাশিস রংপুর অঞ্চলের সাধারণ সম্পাদক মো.শফিয়ার রহমান ও কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য মো.গোলাম মোস্তফা।

কুড়িগ্রাম সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারি শিক্ষক(ইংরেজি) ইমরুল কায়েস মিরন ও কুড়িগ্রাম সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষক (বাংলা) নারায়ন চন্দ্র রায়ের সঞ্চালনে এসময় অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন কুড়িগ্রাম সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোহাম্মদ খালেদ সিদ্দিকী, কুড়িগ্রাম সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক রুখসানা পারভীন, উলিপুর সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক রীতা সরকার, কুড়িগ্রাম সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের সিনিয়র শিক্ষক মো.আব্দুল ওয়াজেদ,সিনিয়র শিক্ষক শাহজাহান আলী, শেখ মো.আব্দুল মান্নান, মো.আশরাফুল, খন্দকার মো.মোয়াজ্জেম হোসেন প্রমুখ।

এসময় সকল শিক্ষকের মতামত ও দাবিসমুহ শীঘ্রই বাস্তবায়নে সরকারের প্রতি আহবান জানানো হয়। সম্মেলন কুড়িগ্রাম জেলা শাখার নবগঠিত কমিটি ঘোষণা করা হয়।

সদ্য সরকারিকৃত ২৭১ কলেজ শিক্ষকরা যা জানতে চান - dainik shiksha সদ্য সরকারিকৃত ২৭১ কলেজ শিক্ষকরা যা জানতে চান ব্যবসায় ব্যবস্থাপনার জনবল কাঠামো ও এমপিও নীতিমালা প্রকাশ - dainik shiksha ব্যবসায় ব্যবস্থাপনার জনবল কাঠামো ও এমপিও নীতিমালা প্রকাশ ঢাবিতে ভর্তি আবেদনের সময় বাড়ল - dainik shiksha ঢাবিতে ভর্তি আবেদনের সময় বাড়ল ৫ শতাংশ ইনক্রিমেন্ট দাবিতে শিক্ষকদের মানববন্ধন ৫ সেপ্টেম্বর (ভিডিও) - dainik shiksha ৫ শতাংশ ইনক্রিমেন্ট দাবিতে শিক্ষকদের মানববন্ধন ৫ সেপ্টেম্বর (ভিডিও) মেডিকেল ভর্তি কোচিং সেন্টার ১ সেপ্টেম্বর থেকে বন্ধের নির্দেশ - dainik shiksha মেডিকেল ভর্তি কোচিং সেন্টার ১ সেপ্টেম্বর থেকে বন্ধের নির্দেশ টিটিসির সেই ৯২ শিক্ষকের চাকরি স্থায়ীকরণ অবৈধ ঘোষণা করেছে হাইকোর্ট - dainik shiksha টিটিসির সেই ৯২ শিক্ষকের চাকরি স্থায়ীকরণ অবৈধ ঘোষণা করেছে হাইকোর্ট কওমি সনদের স্বীকৃতিতে আইনের খসড়া অনুমোদন - dainik shiksha কওমি সনদের স্বীকৃতিতে আইনের খসড়া অনুমোদন প্রাথমিক সমাপনী পরীক্ষা আর থাকছে না - dainik shiksha প্রাথমিক সমাপনী পরীক্ষা আর থাকছে না উপসচিব হতে চান সরকারি কলেজের দুই শতাধিক শিক্ষক - dainik shiksha উপসচিব হতে চান সরকারি কলেজের দুই শতাধিক শিক্ষক জেএসসি পরীক্ষার সূচি - dainik shiksha জেএসসি পরীক্ষার সূচি জেএসসি-জেডিসি পরীক্ষা শুরু ১ নভেম্বর - dainik shiksha জেএসসি-জেডিসি পরীক্ষা শুরু ১ নভেম্বর জেডিসি পরীক্ষার সূচি প্রকাশ - dainik shiksha জেডিসি পরীক্ষার সূচি প্রকাশ অবসর সুবিধার আবেদন শুধুই অনলাইনে, দালাল ধরবেন না(ভিডিও) - dainik shiksha অবসর সুবিধার আবেদন শুধুই অনলাইনে, দালাল ধরবেন না(ভিডিও) দৈনিক শিক্ষায় বিজ্ঞাপন পাঠান ইমেইলে - dainik shiksha দৈনিক শিক্ষায় বিজ্ঞাপন পাঠান ইমেইলে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া - dainik shiksha জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া please click here to view dainikshiksha website