স্বাধীনতা দিবসে অবসরপ্রাপ্ত বিসিএস শিক্ষকদের মিলনমেলা(ভিডিও) - ভিডিও এ্যালবাম - Dainikshiksha

স্বাধীনতা দিবসে অবসরপ্রাপ্ত বিসিএস শিক্ষকদের মিলনমেলা(ভিডিও)

শফিকুল ইসলাম : |
মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস উপলক্ষে আজ সোমবার (২৬ মার্চ)মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তরে অবসরপ্রাপ্ত বিসিএস শিক্ষকদের মিলনমেলা বসেছিল। নবগঠিত অবসরপ্রাপ্ত বিসিএস শিক্ষক এসোসিয়েশনের উদ্যোগে আয়োজিত জাতীয় দিবসের আলোচনায় অংশ নেন অধিদপ্তরের সাবেক মহাপরিচালক, পরিচালক এবং বিসিএস সাধারণ শিক্ষা ক্যাডারভুক্ত শিক্ষকগণ। অবসরপ্রাপ্ত বিসিএস শিক্ষক এসোসিয়েশনের ব্যানারে আয়োজিত সভায় সভাপতিত্ব করেন অধিদপ্তরের সাবেক মহাপরিচালক ও জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের কোষাধ্যক্ষ প্রফেসর মোঃ নোমান উর রশীদ। শিক্ষা অধিদপ্তরের সভা কক্ষে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন অধিদপ্তরের মহাপরিচালক প্রফেসর মোঃ মাহাবুবুর রহমান। বিশেষ অতিথি ছিলেন অধিদপ্তরের পরিচালক (কলেজ ও প্রশাসন) প্রফেসর মোহাম্মাদ শামছুল হুদা ।

আলোচনা সভার শুরুতে উপস্থিত সবাই দাঁড়িয়ে মহান স্বাধীনতাযুদ্ধে অংশগ্রহণকারী শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে ১ মিনিট নিরবতা পালন করেন। নিরবতা পালন শেষে বাংলাদেশ বিনির্মাণে যে সকল বীর ও মহান ব্যক্তিবর্গ যুগেযুগে নিজেদের জীবন উৎসর্গ করেছেন তাদের রুহের মাগফেরাত কামনায় দোয়া ও মোনাজাত শেষে মূল আলোচনা সভা শুরু হয়।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে প্রফেসর মোঃ মাহাবুবুর রহমান বলেন, অবসরপ্রাপ্ত  শিক্ষকবৃন্দ মেধা ও মননের ক্ষেত্রে অনন্য সাধারণ। তাদেরকে দেশ ও জাতি গঠনে যথাযথভাবে ব্যবহার করলে আমরা কাংখিত লক্ষ্যে দ্রুত পৌছাঁতে সক্ষম হবো। তিনি আরও বলেন, মহান স্বাধীনতা দিবসে আয়োজিত এ অনুষ্ঠানকে প্রাণ দিয়ে অনুভব করছি। বিভিন্ন জাতীয় দিবস ও ঘটনাকে কেন্দ্র করে এ ধরনের আয়োজন নতুনভাবে আমাদের মাঝে মুক্তিযুদ্ধের প্রেরণার উজ্জীবন ঘটাবে।

প্রফেসর মোঃ নোমান উর রশীদ ১৯৭১ খ্রিস্টাব্দে মহান মুক্তিযুদ্ধে জীবন উৎসর্গকারী সকল শহীদদের প্রতি বিনম্র শ্রদ্ধা জ্ঞাপন ও জাতির জনকের স্বপ্নের সোনার বাংলা বিনির্মাণে সকল অবসরপ্রাপ্ত বিসিএস শিক্ষকদের  প্রতি নিরলসভাবে কাজ করার আহবান জানান।  তিনি আরও বলেন, মহান স্বাধীনতা আন্দোলনের এই গৌরব ও তাৎপর্যকে বুকে লালন করতে না পারলে লক্ষ্যে পৌঁছানো সম্ভব নয়। 

শিক্ষা অধিদপ্তরের সাবেক মহাপরিচালক অধ্যাপক মোহাম্মদ জুনাইদ আহমেদ বলেন, মুক্তিযুদ্ধের মাধ্যমে আমরা যা অর্জন করেছি সেটাই আসল অর্জন। বঙ্গবন্ধুর ৭ মার্চের ভাষণে এখনো আমরা উদ্বুদ্ধ হচ্ছি। তবে আমরা সবাই মিলে একসঙ্গে অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশ কেন গড়তে পারিনি তা আমাদের ভাবতে হবে।
 
বিশেষ অতিথি প্রফেসর মোঃ শামছুল হুদা  বলেন, মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস আমাদের জীবনে এক চরম ও পরম পাওয়া। স্বাধীনতার জন্য আমাদের অনেক মূল্য পরিশোধ করতে হয়েছে। তাই দেশের স্বাধীনতা সমুন্নত রাখতে ঐক্যবদ্ধ হয়ে নিজেদেরকে নিয়োজিত করতে হবে। তিনি বলেন, যারা অবসরে চলে গেছেন তাদের অভিজ্ঞতা কাজে লাগাতে পারলে আমাদের দেশ আরও এগিয়ে যাবে। বঙ্গবন্ধুর আদর্শ রপ্ত করতে পারলে অপরিসীম মর্যাদা দিয়ে বাংলাদেশ বিশ্ব দরবারে দাঁড়াতে পারবে।
 
অধিদপ্তরের সাবেক ভারপ্রাপ্ত মহাপরিচালক ও কলেজ শাখার পরিচালক বীর মুক্তিযোদ্ধা আবুল কাসেম মিয়া, অবসরপ্রাপ্ত বিসিএস শিক্ষক এসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক প্রফেসর মোঃ আব্দুল মালেক খান, সহসভাপতি প্রফেসর জাহাঙ্গীর আলমসহ উপস্থিত অনেকেই আলোচনায় অংশগ্রহণ করেন।
 
আলোচনা সভায় উপস্থিত ছিলেন ননী গোপাল ঘোষ, প্রফেসর মো: হাবিবুর রহমান, প্রফেসর মো: ওয়ালিউর রহমান, প্রফেসর কাদের হোসাইন চৌধুরী, প্রফেসর মো: সাদেকুর রহমান, প্রফেসর মো: জহুরুল হক, প্রফেসর মো: নুরুল ইসলাম, প্রফেসর মো: মোজাম্মেল হক, প্রফেসর এ রউফ, প্রফেসর আমিনা খাতুন, প্রফেসর এ.কে. এম. শামসুদ্দিন, মো: ফজলুর রহমান, প্রফেসর জাহাঙ্গীর আলম, মোহাম্মদ সোলায়মান, এ.কে.এম. আবদুল হামিদ, মুহাম্মদ তাসলিম উদ্দিন, মো: নুরুল আমিন, আ.ক.ম. শাখাওয়াত হোসেন, মোসা: সখিনা আখতার, ড. ইয়াসমিন আহমেদ, শাহাব  উদ্দিন, ড. মো: আব্দুল মালেক, দীপক কুমার নাগ, ড. মো: ওসমান গনী, নীরদ বরণ মজুমদার, শেখ আমজাদ হোসেন, এস. এম. আবু সাইদ, ড. রামদুলাল রায়, মো: ইদ্রিস, রেজাউল করিম, বি.এম.দেলোয়ার হোসেন, ড. মো: আব্দুল মালেক, প্রফেসর মো: জাকির হোসেন প্রমুখ।
ডিগ্রি ভর্তির অনলাইন আবেদন শুরু আজ - dainik shiksha ডিগ্রি ভর্তির অনলাইন আবেদন শুরু আজ বৈশাখী ভাতা ও ইনক্রিমেন্ট কার্যকর জুলাই থেকেই - dainik shiksha বৈশাখী ভাতা ও ইনক্রিমেন্ট কার্যকর জুলাই থেকেই সরকারি হলো আরও ৪ মাধ্যমিক বিদ্যালয় - dainik shiksha সরকারি হলো আরও ৪ মাধ্যমিক বিদ্যালয় ২০ হাজার টাকায় শিক্ষক নিবন্ধন সনদ বিক্রি করতেন তারা - dainik shiksha ২০ হাজার টাকায় শিক্ষক নিবন্ধন সনদ বিক্রি করতেন তারা অকৃতকার্য ছাত্রীকে ফের পরীক্ষায় বসতে দেয়ার নির্দেশ - dainik shiksha অকৃতকার্য ছাত্রীকে ফের পরীক্ষায় বসতে দেয়ার নির্দেশ আইডিয়াল স্কুলে ভর্তি ফরম বিতরণ শুরু - dainik shiksha আইডিয়াল স্কুলে ভর্তি ফরম বিতরণ শুরু নির্বাচনের সঙ্গে পেছাল সরকারি স্কুলের ভর্তি - dainik shiksha নির্বাচনের সঙ্গে পেছাল সরকারি স্কুলের ভর্তি শিক্ষকদের অন্ধকারে রেখে দেড় লাখ কোটি টাকার প্রকল্প! - dainik shiksha শিক্ষকদের অন্ধকারে রেখে দেড় লাখ কোটি টাকার প্রকল্প! একাডেমিক স্বীকৃতি পেল ৪৭ প্রতিষ্ঠান - dainik shiksha একাডেমিক স্বীকৃতি পেল ৪৭ প্রতিষ্ঠান দৈনিক শিক্ষায় বিজ্ঞাপন পাঠান ইমেইলে - dainik shiksha দৈনিক শিক্ষায় বিজ্ঞাপন পাঠান ইমেইলে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া - dainik shiksha জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া please click here to view dainikshiksha website