হাসপাতালের পলেস্তারা খসে ৫ শিশুসহ আহত ৯ - বিবিধ - Dainikshiksha

হাসপাতালের পলেস্তারা খসে ৫ শিশুসহ আহত ৯

নোয়াখালী প্রতিনিধি |

নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালের শিশু ওয়ার্ডের ছাদের পলেস্তারা খসে পড়ে আজ (১২ জুন) সকালে ৫ শিশুসহ ৯ জন আহত হয়েছেন। এদের মধ্যে পাঁচজন ভর্তিকৃত শিশু রোগী ও বাকী চারজন শিশুদের অভিভাবক। আহতদের হাসপাতালের জরুরি বিভাগে চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে।

আহতরা হলেন, রাফি (২ বছর ৬ মাস), মো. ইসমাইল (৫), ইমাম উদ্দিন (৫), সুমাইয়া (১২), মো. রাসেল (১৬), মো. ইব্রাহিম (৫০), পারুল বেগম (৪৭), বাদশা (৩৫) ও রোজিনা বেগম (২০)।

রোগীর স্বজনরা জানান, সকাল ৭টায় হঠাৎ করে বিকট শব্দে শিশু ওয়ার্ডের পলেস্তারা খসে এ দুর্ঘটনা ঘটে। এ সময় রোগীর স্বজনদের মধ্যে আতংক ছড়িয়ে পড়ে। এ ঘটনায় অনেকেই তাদের শিশুদের হাসপাতাল ছেড়ে অন্যত্র নিয়ে যেতে দেখা যায়।

মাইজদী ফায়ার সার্ভিসের ষ্টেশন মাস্টার মো. হুমায়ুন জানান, খবর পেয়ে ফায়ার স্টেশনের লোকজন ঘটনাস্থল গিয়ে অন্যান্য রোগীদের বের করে আনেন।

নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালের আবাসিক চিকিৎসক সৈয়দ মহিউদ্দিন আবদুল আজিম জানান, সকাল ৭টায় আকস্মিক শিশু ওয়ার্ডের ছাদের পলেস্তারা খসে পড়ে পাঁচ শিশু ও চার অভিভাবক আহত হন। আহতদের হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে।

এর আগে, ২০১৮ সালের ১২ জুলাই নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালের পুরনো ভবনের দ্বিতীয় তলার একটি ওয়ার্ডের ছাদ ধসে পড়ে সিনিয়র স্টাফ নার্স স্বপ্না মজুমদার ও শিক্ষানবিশ নার্স রানী আক্তার আহত হয়েছিলেন।

হাসপাতাল সূত্র জানায়, পুরনো ভবন তিনটি পুরোপুরি ঝুঁকিপূর্ণ। তারপরও স্থান সংকুলানের অভাবে ওই ওয়ার্ডগুলোতে রোগীদের চিকিৎসা সেবা দেওয়া হচ্ছে। এরিমধ্যে একাধিকবার ভবনের বিভিন্ন ওয়ার্ডের ছাদের পলেস্তারা খসে পড়েছে।

নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক ডা. মো. খলিল উল্লাহ জানান, তিন বছর আগে শিশু ওয়ার্ডসহ আরও তিনটি ভবনকে নোয়াখালী গণপূর্ত বিভাগ পরিত্যক্ত ঘোষণা করেছিলো।

 

এমপিওভুক্তির দাবিতে ফের রাজপথে শিক্ষকদের অবস্থান কর্মসূচি শুরু - dainik shiksha এমপিওভুক্তির দাবিতে ফের রাজপথে শিক্ষকদের অবস্থান কর্মসূচি শুরু মারধরে অসুস্থ হলে আবরারকে অন্য রুমে নিয়ে গিয়ে পেটাই : রবিন - dainik shiksha মারধরে অসুস্থ হলে আবরারকে অন্য রুমে নিয়ে গিয়ে পেটাই : রবিন কী আছে শিক্ষক গোকুল দাশের লাইব্রেরিতে, কেন বিক্রির বিজ্ঞাপন? - dainik shiksha কী আছে শিক্ষক গোকুল দাশের লাইব্রেরিতে, কেন বিক্রির বিজ্ঞাপন? ৪২ শতাংশই অন্য চাকরি না পেয়ে শিক্ষকতায় এসেছেন - dainik shiksha ৪২ শতাংশই অন্য চাকরি না পেয়ে শিক্ষকতায় এসেছেন ডিগ্রি ১ম বর্ষ পরীক্ষার ফল পুনঃনিরীক্ষণের আবেদন ২৭ অক্টোবর পর্যন্ত - dainik shiksha ডিগ্রি ১ম বর্ষ পরীক্ষার ফল পুনঃনিরীক্ষণের আবেদন ২৭ অক্টোবর পর্যন্ত শিক্ষার এক্সক্লুসিভ ভিডিও দেখতে দৈনিক শিক্ষার ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন - dainik shiksha শিক্ষার এক্সক্লুসিভ ভিডিও দেখতে দৈনিক শিক্ষার ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া - dainik shiksha জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া please click here to view dainikshiksha website