১১ ও ১৩তম গ্রেড প্রত্যাখ্যান করলেন প্রাথমিক শিক্ষকরা - সমিতি সংবাদ - দৈনিকশিক্ষা

১১ ও ১৩তম গ্রেড প্রত্যাখ্যান করলেন প্রাথমিক শিক্ষকরা

নিজস্ব প্রতিবেদক |

সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকদের ১১তম ও সহকারী শিক্ষকদের ১৩তম গ্রেডে বেতন দেয়ার ঘোষণা দিয়েছে সরকার। কিন্তু ১১তম ও ১৩তম গ্রেডে বেতন প্রত্যাখান করেছেন প্রাথমিকের শিক্ষকরা। একই সাথে প্রধান শিক্ষকদের ১০ম এবং সহকারী শিক্ষকদের ১১তম গ্রেডে বেতন দেয়ার দাবি জানিয়েছেন প্রাথমিক শিক্ষক সংগঠনের দু'পক্ষে নেতারাই। 

শুক্রবার (১৫ নভেম্বর) প্রাথমিক শিক্ষক ঐক্য পরিষদ ও সহকারী শিক্ষক মহাজোট নেতারা দৈনিক শিক্ষাডটকমকে এসব তথ্য জানান।

দৈনিক শিক্ষা ডটকমে পাঠানো বিবৃতিতে ঐক্য পরিষদের নেতারা বলেন, অর্থ মন্ত্রণালয় প্রধান শিক্ষকদের ১১তম গ্রেড ও সহকারী শিক্ষকদের ১৩তম গ্রেড শিক্ষকরা সম্পূর্ণরূপে প্রত্যাখ্যান করেছেন। কারণ, ঐ গ্রেডে বেতন নির্ধারণ করলে শিক্ষকদের বেতন বাড়বে না বরং অধিকাংশ শিক্ষকদের বেতন কমে যাবে। ১০ বছর ও ১৬ বছর পূর্তির পর প্রধান শিক্ষকদের সাথে সহকারী শিক্ষকদের বেতন বৈষম্য কয়েকগুণ বেড়ে যাবে। প্রধানমন্ত্রীর জাতীয় সংসদে দেয়া বক্তব্যে ৬৫ হাজার প্রধান শিক্ষকদের ১১তম গ্রেড ও ৩ লক্ষ ৪২ হাজার সহকারী শিক্ষকদের ১৩তম গ্রেডে বেতন বাড়ানোর ঘোষণা দিয়েছেন। তাতে অধিকাংশ শিক্ষকদের বেতন বাড়ার পরিবর্তে বেতন কমে যাবে।

আরও পড়ুন: 

প্রাথমিকে প্রশিক্ষিত ও প্রশিক্ষণবিহীন শিক্ষকদের বেতন একই গ্রেডে

প্রধান শিক্ষকদের ১১ ও সহকারীদের ১৩তম গ্রেডে বেতন অনুমোদন

ঐক্য পরিষদের নেতারা বিবৃতিতে আরও জানান, উন্নীত স্কেলের নিম্নধাপে  ফিক্সেশন করলে প্রতিমাসে শিক্ষকদের বেতন এক হাজার থেকে দেড় হাজার টাকা কমে যাবে। যে ক্ষতি শিক্ষকরা চাকরি শেষেও কাটিয়ে উঠতে পারবে না। এর জন্য বর্তমান বেতন কাঠামোই দায়ি। তাই শিক্ষকদের দাবি প্রধান শিক্ষকদের ১০ম গ্রেড ও সহকারী শিক্ষকদের ১১তম গ্রেডে বেতন নির্ধারণ করে বেতন বৈষম্য নিরসন করা ও নির্বাচনী ইশতেহার বাস্তবায়ন করা।

আগামী ১৭ ডিসেম্বরের মধ্যে বেতন বৈষম্য নিরসনে শিক্ষকরা প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা করে বলেন, শিক্ষকদের সাথে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর সাথে সাক্ষাত হলেই তাদের বেতন বৈষম্য নিরসন হবে। অন্যথায় শিক্ষক নেতারা কর্মসূচি ঘোষণা করবেন।

ঐক্য পরিষদের আহ্বায়ক আনিসুর রহমান, সদস্য সচিব মোহাম্মদ সামছুদ্দিন মাসুদ, প্রধান মুখপাত্র মো. বদরুল আলম, প্রধান উপদেষ্টা আনোয়ারুল ইসলাম তোতা, আব্দুল্লাহ সরদার, আবুল কাশেম স্বাক্ষরিত বিবৃতিতে শুক্রবার দৈনিক শিক্ষাডটকমকে পাঠানো হয়।

সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকদের ১১তম ও সহকারী শিক্ষকদের ১৩তম গ্রেডে বেতন দেয়ার ঘোষণা দিয়েছে সরকার। কিন্তু ১১তম ও ১৩তম গ্রেডে বেতন প্রত্যাখ্যান করেছেন প্রাথমিকের শিক্ষকরা। ১৩তম গ্রেডে বেতন দিলে প্রাথমিকের সহকারী শিক্ষকদের বেতন কমবে বলে দাবি করেছেন তারা।   

এদিকে শুক্রবার (১৫ নভেম্বর) সকালে ১৩ তম গ্রেডে বেতন প্রত্যাখ্যান করে সংবাদ সম্মেলন করেছে সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক মহাজোটের নেতারা। এ সময় ১৩তম গ্রেডে বেতন দিলে সহকারী শিক্ষকদের বেতন কমার বিষয়টি ব্যাখ্যা করেছেন তারা। একই সাথে সহকারী শিক্ষকদের ১১তম গ্রেডে বেতন দেয়ার দাবি জানিয়েছেন তারা। 

সংবাদ সম্মেলনে মহাজোটের শরিক সংগঠন বাংলাদেশ প্রাথমিক সহকারী শিক্ষক সমাজ, বাংলাদেশ প্রাথমিক বিদ্যালয় সহকারী শিক্ষক সমিতি, বাংলাদেশ  প্রাথমিক সহকারী শিক্ষক সমাজ ও জাতীয় প্রাথমিক সহকারী শিক্ষক ফেডারেশনের কেন্দ্রীয় নেতারা উপস্থিত ছিলেন।

করোনায় ৩০ জনের মৃত্যু, নতুন শনাক্ত ২ হাজার ৬৮৬ - dainik shiksha করোনায় ৩০ জনের মৃত্যু, নতুন শনাক্ত ২ হাজার ৬৮৬ আশ্রয়কেন্দ্র হিসাবে বন্যা দুর্গত এলাকায় স্কুল-কলেজ খুলে দেয়ার নির্দেশ - dainik shiksha আশ্রয়কেন্দ্র হিসাবে বন্যা দুর্গত এলাকায় স্কুল-কলেজ খুলে দেয়ার নির্দেশ তিন শিক্ষকের ডাবল এমপিও : দৈনিক শিক্ষায় প্রতিবেদন প্রকাশের পর অধ্যক্ষকে শোকজ - dainik shiksha তিন শিক্ষকের ডাবল এমপিও : দৈনিক শিক্ষায় প্রতিবেদন প্রকাশের পর অধ্যক্ষকে শোকজ দৈনিক শিক্ষায় প্রতিবেদন প্রকাশের পর : তথ্য গোপন করে নেয়া অনুদানের টাকা ফেরত - dainik shiksha দৈনিক শিক্ষায় প্রতিবেদন প্রকাশের পর : তথ্য গোপন করে নেয়া অনুদানের টাকা ফেরত শিক্ষার্থীদের বিনামূল্যে ইন্টারনেট : সিদ্ধান্তে আসতে পারেনি মোবাইল অপারেটররা - dainik shiksha শিক্ষার্থীদের বিনামূল্যে ইন্টারনেট : সিদ্ধান্তে আসতে পারেনি মোবাইল অপারেটররা জটিলতার দ্রুত সমাধান চান এমপিওবঞ্চিত শিক্ষকরা - dainik shiksha জটিলতার দ্রুত সমাধান চান এমপিওবঞ্চিত শিক্ষকরা প্রভাষকের বিরুদ্ধে ভুয়া সনদে চাকরির অভিযোগ - dainik shiksha প্রভাষকের বিরুদ্ধে ভুয়া সনদে চাকরির অভিযোগ স্কুলছাত্রের মৃত্যুতে পরোক্ষ দায়ী সেই যুগ্মসচিব নৌঅধিদপ্তরের মহাপরিচালক - dainik shiksha স্কুলছাত্রের মৃত্যুতে পরোক্ষ দায়ী সেই যুগ্মসচিব নৌঅধিদপ্তরের মহাপরিচালক অধ্যক্ষ-উপাধ্যক্ষ হতে পারছেন না প্রভাষকরা: রুলের জবাব দেয়নি সরকার - dainik shiksha অধ্যক্ষ-উপাধ্যক্ষ হতে পারছেন না প্রভাষকরা: রুলের জবাব দেয়নি সরকার শিক্ষায় বঙ্গবন্ধুর অবদান নিয়ে লেখা আহ্বান - dainik shiksha শিক্ষায় বঙ্গবন্ধুর অবদান নিয়ে লেখা আহ্বান বিনামূল্যে আন্তর্জাতিক মানের ডিজিটাল কনটেন্ট দিচ্ছে টিউটর্সইঙ্ক - dainik shiksha বিনামূল্যে আন্তর্জাতিক মানের ডিজিটাল কনটেন্ট দিচ্ছে টিউটর্সইঙ্ক শিক্ষকদের ফ্রি অনলাইন প্রশিক্ষণ চলছে - dainik shiksha শিক্ষকদের ফ্রি অনলাইন প্রশিক্ষণ চলছে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া - dainik shiksha জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া please click here to view dainikshiksha website