৬ মাসের ডিপ্লোমাধারী সুপারিশপ্রাপ্তদের সম্পর্কে এনটিআরসিএর বক্তব্য - শিক্ষক নিবন্ধন - Dainikshiksha

৬ মাসের ডিপ্লোমাধারী সুপারিশপ্রাপ্তদের সম্পর্কে এনটিআরসিএর বক্তব্য

রুম্মান তূর্য |

বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে প্রায় ৪০ হাজার শূন্য পদে শিক্ষক নিয়োগের সুপারিশ করেছে বেসরকারি শিক্ষক নিবন্ধন ও প্রত্যয়ন কর্তৃপক্ষ (এনটিআরসিএ)। গত ২৪ জানুয়ারি প্রকাশিত তালিকা নিয়ে প্রার্থীদের রয়েছে অনেক অভিযোগ। দৈনিক শিক্ষায় ইমেইল ও টেলিফোন করে প্রার্থীরা তাদের অভিযোগের কথা জানিয়েছেন। প্রার্থীদের অভিযোগ নিয়ে এনটিআরসিএ কর্তৃপক্ষের মুখোমুখি দৈনিক শিক্ষাডটকম।  

প্রার্থীদের অভিযোগে জানা যায়, বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিষয়ে (আইসিটি) শিক্ষক নিয়োগের ক্ষেত্রে ৬ মাসের ডিপ্লোমা সনদধারীদের আবেদন নিষ্পত্তি করা হবে না বলা হলেও তারা নিয়োগের সুপারিশপ্রাপ্ত হয়েছেন। তথ্য গোপন করে তারা আবেদন করেছেন বলে অভিযোগ উঠেছে। এ বিষয়ে  এনটিআরসিএর একজন উচ্চ পদস্থ কর্মকর্তা দৈনিক শিক্ষাকে বলেন, ‘৬ মাসের ডিপ্লোমায় নিবন্ধন সনদধারীরা তথ্য গোপন করে আবেদন করেছেন। এ প্রেক্ষিতে শর্ত সাপেক্ষে তাদের সুপারিশ করা হয়েছিলো। সুপারিশ মানে এই নয় তাদের নিয়োগ দেয়া হয়েছে। শর্তপূরণ না করতে পারলে তারা যোগদান করতে পারবেন না। শর্ত হিসেবে ধরা হয়েছে এমপিও নীতিমালা ও জনবল কাঠামো-২০১৮-কে। আর নীতিমালার শর্ত পূরণ না করে নিয়োগপ্রাপ্ত হলে তিনি এমপিওভুক্ত হতে পারবেন না। এ বিষয়টি আরও স্পষ্ট করা হবে। তিনি আরও বলেন,যদি কোন প্রার্থী শিক্ষাগত যোগ্যতার ক্ষেত্রে মিথ্যা বা ভুল তথ্য দিয়ে সুপারিশপ্রাপ্ত হয়ে থাকেন তাহলে যোগদান করা থেকে বিরত থেকে এ বিষয়ে এনটিআরসিএকে লিখতভাবে জানানোর অনুরোধ করা হয়েছে। তা না হলে মিথ্যা তথ্য প্রদানের জন্য আইনানুগ ব্যভস্থা গ্রহণ করা হবে। 

অনেক প্রার্থীর অভিযোগ এমপিওভুক্ত পদে আবেদন করে নন এমপিও পরে জন্য সুপারিশপ্রাপ্ত হয়েছেন। অনেকে বলছেন যখন আবেদন করেছিলাম তখন এমপিও প্রাপ্য দেখালেও সুপারিশপ্রাপ্তির পরে তা পদটি ননএমপিও দেখাচ্ছে। এ বিষয়ে এনটিআরসিএসর কর্মকর্তা দৈনিকশিক্ষাকে বলেন, ‘একটি প্রতিষ্ঠানে একাধিক শূন্য পদ থাকলেও সব কয়টি পদ এমপিওভুক্ত নয়। বিভিন্ন স্কুলে প্রতি পদের বিপরীতে একজন শিক্ষক এমপিওভুক্ত হতে পারেন। কিন্তু প্রতিষ্ঠানগুলোতে একাধিক পদ থাকতে পারে। এমপিও-ননএমপিও উভয় পদে শিক্ষক নিয়োগের সুপারিশ করার দায়িত্ব এনটিআরসিএর। সে প্রেক্ষিতে নিয়োগ সুপারিশ করা হয়েছে। মেধা তালিকায় শুরু দিকে থাকা প্রার্থীদের তাদের বাছাই তালিকা অনুসারে এমপিওভুক্ত পদগুলোতে সুপারিশ করা হয়েছে। আর শেষের দিকের প্রার্থীদের এ প্রতিষ্ঠানগুলোতে ননএমপিও পদে নিয়োগের সুপারিশ করা হয়েছে। ননএমপিও পদে সুপারিশপ্রাপ্তরা বিষয়টি না বুঝতে পেরে এ ধরণের অভিযোগ করছেন। 

সুপারিশপ্রাপ্ত কয়েকজন প্রার্থী জানান তাদেরকে কয়েকটি প্রতিষ্ঠানের প্রধানরা বলছেন, যে পদটিতে শিক্ষক নিয়োগের সুপারিশ করা হয়েছে সে পদটি খালি নেই। শূন্যপদের তথ্য পাঠানোর সময় ভুলের কারণে পদটি শূন্য দেখায়। প্রার্থীদের অভিযোগ প্রতিষ্ঠান প্রধানরা তদের যোগদান করতে দিচ্ছেন না। এ বিষয়ে এনটিআরসিএর বক্তব্য:এ ধরণের জটিলতার বিষয়ে এক মাসের মধ্যে এনটিআরসিএকে জানাতে হবে। এনটিআরসিএ প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেবে। 

কয়েকজন প্রার্থীর অভিযোগ সুপারিশ প্রক্রিয়া মেধা তালিকা অনুসারে হয়নি। মেধাতালিকায় শেষের দিকে থাকা প্রার্থীরা সুপারিশপ্রাপ্ত হয়েছেন। এ বিষয়ে এনটিআরসিএর বক্তব্য: ‘মেধাতালিকার ভিত্তিতেই নিয়োগের সুপারিশ করা হয়েছে। আবেদনের সময় প্রার্থীদের বাছাই তালিকা দিতে বলা হয়েছিল। সে তালিকা অনুযায়ী তাদের নিয়োগের সুপারিশ করা হয়েছে। তবে কিছু পদে মহিলা কোট থাকায় নিয়োগের সুপারিশে মহিলাদের অগ্রাধিকার দেয়া হয়েছে। মহিলা কোটার বিষয়টি এমপিও নীতিমালায় স্পষ্টভাবে উল্লেখ করা হয়েছে। নীতিমালা মেনেই নিয়োগের সুপারিশ করা হয়েছে।’   

আসছে দ্বিতীয় ধাপের নিয়োগ সুপারিশ - dainik shiksha আসছে দ্বিতীয় ধাপের নিয়োগ সুপারিশ স্টুডেন্টস কেবিনেট নির্বাচন ১৪ মার্চ - dainik shiksha স্টুডেন্টস কেবিনেট নির্বাচন ১৪ মার্চ এনটিআরসিএর ভুল, আমি পরিপত্র মানি না.. (ভিডিও) - dainik shiksha এনটিআরসিএর ভুল, আমি পরিপত্র মানি না.. (ভিডিও) এমপিওভুক্তির নামে প্রতারণা, মন্ত্রণালয়ের গণবিজ্ঞপ্তি - dainik shiksha এমপিওভুক্তির নামে প্রতারণা, মন্ত্রণালয়ের গণবিজ্ঞপ্তি শিক্ষকদের কোচিং করাতে দেয়া হবে না: শিক্ষামন্ত্রী - dainik shiksha শিক্ষকদের কোচিং করাতে দেয়া হবে না: শিক্ষামন্ত্রী জারির অপেক্ষায় অধ্যক্ষ-উপাধ্যক্ষ নিয়োগ যোগ্যতার সংশোধনী - dainik shiksha জারির অপেক্ষায় অধ্যক্ষ-উপাধ্যক্ষ নিয়োগ যোগ্যতার সংশোধনী ৬০ বছরেই ছাড়তে হবে দায়িত্ব - dainik shiksha ৬০ বছরেই ছাড়তে হবে দায়িত্ব ফল পরিবর্তনের চার ‘গ্যারান্টিদাতা’ গ্রেফতার - dainik shiksha ফল পরিবর্তনের চার ‘গ্যারান্টিদাতা’ গ্রেফতার নকলের সুযোগ না দেয়ায় শিক্ষিকাকে জুতাপেটা - dainik shiksha নকলের সুযোগ না দেয়ায় শিক্ষিকাকে জুতাপেটা প্রাথমিকে সায়েন্স ব্যাকগ্রাউন্ড প্রার্থীদের ২০ শতাংশ কোটা - dainik shiksha প্রাথমিকে সায়েন্স ব্যাকগ্রাউন্ড প্রার্থীদের ২০ শতাংশ কোটা ১৮২ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের এমপিও বন্ধের প্রক্রিয়া শুরু - dainik shiksha ১৮২ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের এমপিও বন্ধের প্রক্রিয়া শুরু প্রাথমিকে সহকারী শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষা ১৫ মার্চ - dainik shiksha প্রাথমিকে সহকারী শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষা ১৫ মার্চ ২০১৯ খ্র্রিস্টাব্দের স্কুলের ছুটির তালিকা - dainik shiksha ২০১৯ খ্র্রিস্টাব্দের স্কুলের ছুটির তালিকা জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া - dainik shiksha জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া please click here to view dainikshiksha website