‘ভিসি নাসির অপসারণ না হওয়া পর্যন্ত আন্দোলন চলবে’ - বিশ্ববিদ্যালয় - দৈনিকশিক্ষা

‘ভিসি নাসির অপসারণ না হওয়া পর্যন্ত আন্দোলন চলবে’

বশেমুরবিপ্রবি প্রতিনিধি |

আজ শুক্রবার ছুটির দিনেও উপাচার্য খোন্দকার নাসির উদ্দিনের অপসারণ দাবিতে আন্দোলন করছেন গোপালগঞ্জের বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (বশেমুরবিপ্রবি) সাধারণ শিক্ষার্থীরা। তাঁরা বলছেন, উপাচার্য অপসারণ না হওয়া পর্যন্ত আন্দোলন চালিয়ে যাবেন, ঘরে ফিরবেন না।

আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীরা তাঁদের এক দফা, এক দাবি—ভিসির অপসারণ এই স্লোগানে বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস মুখরিত করে রেখেছে। উপাচার্যের পদত্যাগ বা অপসারণের দাবিতে গত বুধবার রাত থেকে আন্দোলন শুরু করেন শিক্ষার্থীরা।

গতকাল বৃহস্পতিবার সকালে শিক্ষার্থীদের আগের ১৪ দফা দাবি মেনে নেয়ার ঘোষণা দেয় বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। কিন্তু শিক্ষার্থীরা আন্দোলনে অনড় থাকেন। তাঁরা উপাচার্যের পদত্যাগ চান।

গতকাল বৃহস্পতিবার বিকেল থেকে আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীরা আমরণ অনশনের ডাক দেন। এর ধারাবাহিকতায় আজ ছুটির দিনেও তাঁরা আন্দোলন চালিয়ে যাচ্ছেন।

আন্দোলনরত এক শিক্ষার্থী অভিযোগ করে বলেন, ‘এই ভিসি (খোন্দকার নাসির উদ্দিন) ১৯৯২ খ্রিষ্টাব্দে ময়মনসিংহ বিশ্ববিদ্যালয়ে বিএনপি-জামায়াত সমর্থিত সাদা দল থেকে নির্বাচনে অংশ নেন। সেখানে তিনি পরাজিত হন। একজন বিএনপিপন্থি ভিসি কখনো বঙ্গবন্ধুর নামে প্রতিষ্ঠিত একটি বিশ্ববিদ্যালয়ে ও বঙ্গবন্ধুর ভূমিতে থাকতে পারেন না। আমাদের একটাই দাবি, ভিসিকে অপসারণ করতে হবে।’

ফেসবুকে মন্তব্যের জেরে ফাতেমা-তুজ-জিনিয়া নামের এক ছাত্রীকে বহিষ্কার করার পর ব্যাপক সমালোচনার মুখে পড়েন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য। বুধবার রাতে ওই ছাত্রীর বহিষ্কারাদেশ প্রত্যাহার করা হয়। পরে শিক্ষার্থীদের ১৪ দফা দাবি মেনে নেয়ার ঘোষণা দেয় বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। তবে সাধারণ শিক্ষার্থীরা উপাচার্যের পদত্যাগের দাবিতে আন্দোলনে নামেন।

গতকাল দিনভর বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশের পর সন্ধ্যা থেকে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনিক ভবনের সামনে অবস্থান নিয়ে অনশন শুরু করেন কয়েকশ শিক্ষার্থী। এই কর্মসূচি এখনো চলছে।

শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভের মুখে গতকাল ক্যাম্পাসে ক্লাস, পরীক্ষাসহ কোনো একাডেমিক কার্যক্রম চলেনি। এদিকে শিক্ষার্থীদের আন্দোলনকে কেন্দ্র করে বিশ্ববিদ্যালয়ে বাড়তি পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

আন্দোলনরত অপর এক শিক্ষার্থী বলেন, ‘বিশ্ববিদ্যালয় থেকে উপাচার্যকে দ্রুত অপসারণ করা না হলে অ্যাকাডেমিক কার্যক্রম স্থবির হয়ে পড়বে। তাই আমাদের একটাই দাবি, ভিসিকে অপসারণ করে শিক্ষার সুষ্ঠু পরিবেশ তৈরি করা হোক।’

করোনায় আরো ৩৫ জনের মৃত্যু, নতুন শনাক্ত ২ হাজার ৪২৩ - dainik shiksha করোনায় আরো ৩৫ জনের মৃত্যু, নতুন শনাক্ত ২ হাজার ৪২৩ চাষ না করে কৃষি জমি ফেলে রাখলে নিয়ে নেবে সরকার - dainik shiksha চাষ না করে কৃষি জমি ফেলে রাখলে নিয়ে নেবে সরকার পছন্দের শিক্ষকের পাঠদান পাওয়া যাবে মোবাইল ফোনে - dainik shiksha পছন্দের শিক্ষকের পাঠদান পাওয়া যাবে মোবাইল ফোনে লকডাউন উঠানো, না উঠানো নিয়ে যা বললেন এন আই খান (ভিডিও) - dainik shiksha লকডাউন উঠানো, না উঠানো নিয়ে যা বললেন এন আই খান (ভিডিও) শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের তথ্য চেয়েছে মন্ত্রণালয় - dainik shiksha শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের তথ্য চেয়েছে মন্ত্রণালয় নটরডেম কলেজে ভর্তি কার্যক্রম স্থগিত - dainik shiksha নটরডেম কলেজে ভর্তি কার্যক্রম স্থগিত জেডিসির রেজিস্ট্রেশনের সময় ফের বাড়ল - dainik shiksha জেডিসির রেজিস্ট্রেশনের সময় ফের বাড়ল কলেজে ভর্তি : দৈনিক শিক্ষায় বিজ্ঞাপন পাঠান ইমেইলে - dainik shiksha কলেজে ভর্তি : দৈনিক শিক্ষায় বিজ্ঞাপন পাঠান ইমেইলে ঘরে বসে পাঠদান: শিক্ষকদের জন্য ফ্রি অনলাইন কোর্স - dainik shiksha ঘরে বসে পাঠদান: শিক্ষকদের জন্য ফ্রি অনলাইন কোর্স ৮ জুনের মধ্যে শিক্ষক-কর্মচারীদের তালিকা চেয়েছে কারিগরি শিক্ষা বোর্ড - dainik shiksha ৮ জুনের মধ্যে শিক্ষক-কর্মচারীদের তালিকা চেয়েছে কারিগরি শিক্ষা বোর্ড দাখিলের ফল পুনঃনিরীক্ষার আবেদন যেভাবে - dainik shiksha দাখিলের ফল পুনঃনিরীক্ষার আবেদন যেভাবে এসএসসির ফল পুনঃনিরীক্ষার আবেদন ৭ জুনের মধ্যে - dainik shiksha এসএসসির ফল পুনঃনিরীক্ষার আবেদন ৭ জুনের মধ্যে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া - dainik shiksha জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া উপবৃত্তির টাকা মেরে দেয়ার অভিযোগে মাদরাসার অফিস সহকারীর গলায় জুতার মালা - dainik shiksha উপবৃত্তির টাকা মেরে দেয়ার অভিযোগে মাদরাসার অফিস সহকারীর গলায় জুতার মালা please click here to view dainikshiksha website