‘সেলফি না তুলে সবার হাতে বই থাকলে বেশি ভালো লাগত’ - বই - দৈনিকশিক্ষা

‘সেলফি না তুলে সবার হাতে বই থাকলে বেশি ভালো লাগত’

দৈনিকশিক্ষা ডেস্ক |

ভিড় ঠেলে তার কাছে পৌঁছানো অনেকটা যুদ্ধজয়ের শামিল। খুদে বাহিনী একবারে ঘিরে ধরে রেখেছে তাদের প্রিয় লেখক মুহম্মদ জাফর ইকবালকে। মেলা জুড়ে তিনি হাঁটছেন, তার সঙ্গে সঙ্গে হাঁটছে খুদে পাঠকের দল। বইয়ে স্বাক্ষর সংগ্রহ আর সেলফি শিকারিদের ভিড়ে তার সঙ্গে কথা বলার সুযোগ পাওয়া খুব কঠিন। এরই ফাঁকে তার সাক্ষাৎকার নেন ইত্তেফাক পত্রিকার প্রতিবেদক। শনিবার (৮ ফেব্রুয়ারি) প্রকাশিত সাক্ষাৎকারটির বিস্তারিত পাঠকদের জন্য তুলে ধরা হলো-

প্রতিবেদক : বইয়ে অটোগ্রাফ নেয়ার চেয়ে তো সেলফি শিকারিদের ভিড় বেশি।

মুহম্মদ জাফর ইকবাল : হুম। যা অবস্থা একটা সেলফি মেলা করতে হবে। যেখানে সবাই আসবে, শুধু সেলফি তুলবে। এর চেয়ে সবাই হাতে হাতে বই নিয়ে এলে ভালো লাগত।

প্রতিবেদক : স্যার, আপনার তো অনেক সাহস! সিলেটে আপনার ওপরে হামলা হলো, তার পরও এভাবে ভিড়ের মাঝে চলে আসেন। খুব স্বাভাবিকভাবে ঘুরে বেড়াচ্ছেন। ভয় লাগে না?

মুহম্মদ জাফর ইকবাল : আমার কোনো ভয় নাই। কোনো খ্যাপা মানুষ কী করেছিল তার জন্য ভয় পাব কেন? আমার সঙ্গে এই ছেলেমেয়েরা রয়েছে। এরা যখন সঙ্গে থাকে তখন ভয় পাওয়ার কিছু নেই। কে কী করতে পারে সেই ভয়ে ঘরে লুকিয়ে থাকার কোনো কারণ আছে বলেও মনে করি না।

প্রতিবেদক : আপনার সায়েন্স ফিকশন ও কিশোরদের নিয়ে লেখাগুলোর কারণে শিশুদের মাঝে আপনার তুমুল জনপ্রিয়তা। লেখালেখির শুরুতে শিশুদের জন্যই লিখবেন আগেই ঠিক করেছিলেন।

মুহম্মদ জাফর ইকবাল : কোনোকিছু আগে ঠিক করে লেখা শুরুর করিনি। শিশুদের জন্য সহজ সুন্দর করে লেখা যায়, শিশুরা স্বপ্ন দেখে। সেজন্যই শিশুদের জন্য লিখতে ভালো লাগে।

প্রতিবেদক : সায়েন্স ফিকশনের বাইরে এবার মেলায় ‘ব্ল্যাক হোল’ নিয়ে একটি বই এসেছে। পদার্থবিজ্ঞান নিয়ে লিখেছেন। এটাও দেখছি কিশোরদের কাছে জনপ্রিয়তা পেয়েছে।

মুহম্মদ জাফর ইকবাল : যে কোনো বিষয়ই সহজ করে বলতে হবে। শিশু হোক বা বড়ো। সহজ করে বললে জটিল বিষয়ও মানুষ বুঝতে পারে। আমি যা-ই লিখি তা সহজ করে বলতে চেষ্টা করি। সেজন্য হয়তো সবাই পছন্দ করছে।

প্রতিবেদক : বইমেলার কলেবর বাড়ছে। কেমন লাগছে বইমেলা?

মুহম্মদ জাফর ইকবাল : আমার তো মেলা ঘুরে দেখাই হয় না। মেলায় ঢুকলেই সবাই ঘিরে ধরে। সবার সঙ্গে সেলফি তুলতে হয়, বইয়ে স্বাক্ষর দিতে হয়। বইমেলা ঘুরে দেখা, বই দেখার সুযোগ খুব একটা হয় না। তার পরও মেলার কলেবর বাড়ছে। সুন্দর হচ্ছে বুঝতে পারি।

সব মাধ্যমিক স্কুল ডিজিটাল একাডেমি হবে ২০৩০ নাগাদ : প্রধানমন্ত্রী - dainik shiksha সব মাধ্যমিক স্কুল ডিজিটাল একাডেমি হবে ২০৩০ নাগাদ : প্রধানমন্ত্রী অনলাইন ক্লাস তদারকি: স্কুল-কলেজ আকস্মিক পরিদর্শন করবেন কর্মকর্তারা - dainik shiksha অনলাইন ক্লাস তদারকি: স্কুল-কলেজ আকস্মিক পরিদর্শন করবেন কর্মকর্তারা ভর্তি না হলেও শিক্ষার্থীর ভর্তির তথ্য দিয়েছে হলিক্রস, অধ্যক্ষকে শোকজ - dainik shiksha ভর্তি না হলেও শিক্ষার্থীর ভর্তির তথ্য দিয়েছে হলিক্রস, অধ্যক্ষকে শোকজ অক্টোবর-নভেম্বরেই হচ্ছে ‘ও’ এবং ‘এ’ লেভেলের পরীক্ষা - dainik shiksha অক্টোবর-নভেম্বরেই হচ্ছে ‘ও’ এবং ‘এ’ লেভেলের পরীক্ষা অফিস সময়ে কর্মকর্তাদের বাইরে ঘোরাঘুরিতে বিরক্ত শিক্ষা মন্ত্রণালয় - dainik shiksha অফিস সময়ে কর্মকর্তাদের বাইরে ঘোরাঘুরিতে বিরক্ত শিক্ষা মন্ত্রণালয় খাতা না দেখেই ফল প্রকাশ, বোর্ডের ২ পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক বরখাস্ত - dainik shiksha খাতা না দেখেই ফল প্রকাশ, বোর্ডের ২ পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক বরখাস্ত শিক্ষকের মান নিয়ে ৯২ শতাংশ শিক্ষার্থীর অসন্তোষ - dainik shiksha শিক্ষকের মান নিয়ে ৯২ শতাংশ শিক্ষার্থীর অসন্তোষ স্কুল খোলার প্রস্তুতি নিতে মন্ত্রণালয়ের ৯ নির্দেশনা - dainik shiksha স্কুল খোলার প্রস্তুতি নিতে মন্ত্রণালয়ের ৯ নির্দেশনা ১২ শিক্ষক-কর্মচারীর এমপিও বাতিল - dainik shiksha ১২ শিক্ষক-কর্মচারীর এমপিও বাতিল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খোলার আগে এইচএসসি পরীক্ষা হচ্ছে না - dainik shiksha শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খোলার আগে এইচএসসি পরীক্ষা হচ্ছে না please click here to view dainikshiksha website